corona virus btn
corona virus btn
Loading

গমের জোগান পর্যাপ্ত , তবে বাজার থেকে আটা উধাও কেন ? প্রশ্ন দিলীপ ঘোষের 

গমের জোগান পর্যাপ্ত , তবে বাজার থেকে আটা উধাও কেন ? প্রশ্ন দিলীপ ঘোষের 

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় কেন্দ্র ১লক্ষ ৭০ হাজার কোটি টাকার প্যাকেজ ঘোষণা করেছে। অথচ আটা কিনতে গিয়ে পাচ্ছেন না খোদ রাজ্যের বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ

  • Share this:

#কলকাতা: করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় কেন্দ্র ১লক্ষ ৭০ হাজার কোটি টাকার প্যাকেজ ঘোষণা করেছে। অথচ আটা কিনতে গিয়ে পাচ্ছেন না খোদ রাজ্যের বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। ফুড কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়া-র জেনারেল ম্যানেজারকে তলব করেন দিলীপ। তাঁর কাছ থেকেই নেন গমের হিসেব। বৃহস্পতিবার বিধান নগরের বাসভবনে দিলীপবাবু জানান, ' আটা নিয়ে কালোবাজারির তত্ত্বতালাশে এফসিআই জিএম-কে ডেকে পাঠাই। কেন্দ্রের পর্যাপ্ত পরিমাণ গমের যোগান রাজ্যে রয়েছে। চাকি হয়ে রেশন ব্যবস্থার মাধ্যমে রাজ্যে সরবরাহ হচ্ছে আটা। দ্বিতীয় জায়গাতে অব্যবস্থার কারণে বাজারে আটা অমিল। কালোবাজারি রুখতে  রাজ্যকে সঠিক পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।'

কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর ঘোষণাকে স্বাগত জানান দিলীপবাবু। তবে তাঁর অনুযোগ, আয়ুষ্মান যোজনা এবং কৃষক সম্মান নিধি প্রকল্পে অবিলম্বে রাজ্য যুক্ত হোক। রাজ্য এই প্রকল্পগুলিতে যুক্ত না হওয়ার কারণে কেন্দ্রীয় সুবিধা থেকে বঞ্চিত হবে এই রাজ্যের মানুষ। কেন্দ্র ও রাজ্য মিলিয়ে ১৬ হাসপাতালে করোনা-র চিকিৎসা করার উপযুক্ত পরিকাঠামো তৈরি করার পক্ষে সওয়াল করেন দিলীপবাবু। বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালের নার্সদের বিক্ষোভ প্রাসঙ্গিক বলেও এদিন জানান বিজেপি সাংসদ। কেন্দ্রীয় সরকার ১৫০০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে চিকিৎসার সঙ্গে যুক্তদের সাহায্যার্থে। রাজ্য সেই প্রকল্পের সুবিধা নিক। চিকিৎসার সঙ্গে যুক্তদের সুরক্ষা সবার আগে বলেও জানান তিনি।

তবে এদিন ছকভেঙে রাজনীতির ময়দানের বাইরে হেঁটে দিলীপ ঘোষের বার্তা, 'এখন রাজনীতি করার বা অভিযোগ জানানোর সময় নয়। পরিকাঠামো রয়েছে করোনা মোকাবিলার। তার সঠিক ব্যবস্থাপনার উদ্দেশ্যে রাজ্যের এগিয়ে আসা উচিত।' দিলীপ বাবু আরও জানান, টাকা নেই, টাকা নেই বলে অভিযোগ না করে কেন্দ্রীয় প্রকল্পের সুবিধা নিক রাজ্য। দিল্লিও শেষ মুহূর্তে কেন্দ্রীয় প্রকল্প গ্রহণ করেছে।  করোনায় গোষ্ঠী-সংক্রমণ ঠেকাতে সামাজিক দূরত্বের কথা বলছেন প্রধানমন্ত্রী, মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে সাংবাদিক সম্মেলন করলেন কীভাবে ? দিলীপের জবাব, ' সাংবাদিকদের মুখে মাস্ক ছিল আর আমিও এক মিটারের বেশি দূরত্বে দাঁড়িয়ে বক্তব্য রেখেছি।'

ARNAB HAZRA

First published: March 27, 2020, 11:55 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर