• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • DILIP GHOSH ON FAKE VACCINATION DRIVE IN KOLKATA ATTACKED MAMATA BANERJEE RC

Dilip Ghosh on Mamata Banerjee: 'কেউ অসুস্থ হলে বলত মোদিজি বাংলার মানুষকে মারতে চাইছেন', ভুয়ো ভ্যাকসিন-কাণ্ডে মমতাকে খোঁচা দিলীপের

ভুয়ো ভ্যাকসিন-কাণ্ডে মমতাকে খোঁচা দিলীপের

কলকাতার কসবায় ভুয়ো ভ্যাকসিন-কাণ্ড (Fake Vaccination Drive in Kolkata) নিয়ে প্রথম থেকেই কড়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Dilip Ghosh on Mamata Banerjee) প্রশাসন।

  • Share this:

    #কলকাতা: কলকাতার কসবায় ভুয়ো ভ্যাকসিন-কাণ্ড (Fake Vaccination Drive in Kolkata) নিয়ে প্রথম থেকেই কড়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) প্রশাসন। তিনি প্রথমেই জানিয়ে দিয়েছিলেন এই ঘটনায় সরকারের কোনও হাত নেই। তবে চোখের সামনে এত বড় ঘটনা ঘটে যাওয়ার দায় এড়াতে পারে না পুরসভা ও পুলিশ প্রশাসন। শুধু তাই নয়, দেবাঞ্জন ও তাঁর সহযোগীদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থাই নেবে তাঁর সরকার, তেমনই ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি। তবে রাজ্যের বিরোধী শিবির বিজেপি অবশ্য সরকারের ভূমিকা নিয়ে প্রথম থেকেই প্রশ্ন তুলেছে। বুধবারও সেই একই প্রসঙ্গ উস্কে দিয়েছেন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)।

    দেবাঞ্জন দেবের নীল বাতি লাগানো গাড়ি প্রসঙ্গে সাংবাদিক বৈঠকে দিলীপ ঘোষ বলেছেন, 'এই নীল বাতির মধ্যে কতগুলি ভুয়ো সেগুলি আগে খুঁজে বের করা দরকার। দেখছি যে গ্রামেগঞ্জেও নীল বাতি নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে। আমাদের সরকার কেন্দ্রে মোদিজি লাল বাতির সংস্কৃতি বন্ধ করেছেন। তখন এরা চ্যালেঞ্জ করে বলেছিল আমরা লাল বাতি ব্যবহার করবই। লাল-নীল-সবুজ বাতি জ্বলছে, এর মধ্যে কতটা সঠিক আর কোনটা ভুয়ো সেটা তদন্ত হওয়া উচিত।'

    এরই সঙ্গে মেয়র ফিরহাদ হাকিমের সঙ্গেও এই ঘটনার যোগ নিয়ে মন্তব্য করেছেন দিলীপ ঘোষ। তাঁর দাবি, 'কর্পোরেশনের অফিস থেকে দেওয়া হয়েছে ভ্যাকসিন, কিন্তু সেটা আদৌ কোনও ভ্যাকসিন নয়। কী করে এটা হতে পারে? গাড়ি, লোগো, নেমপ্লেট সব সরকারি। এটা হল কী করে? এটা একদিনে হতে পারে না। যে লোকটা নিজেকে জয়েন্ট কমিশনার পরিচয় দিচ্ছে, মেয়রের সঙ্গে বসছে, মেয়র জানেন না এমন কোনও কমিশনার আছেন কিনা। কতজন কমিশনার রয়েছেন কর্পোরেশনে? তার মানে তাঁরাই তাঁকে ওই তথ্য দিয়েছেন এবং সবাই মিলে ভাগ করে খাচ্ছেন। আরও কত জালি আছে কে জানে।'

    পাশাপাশি, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করে দিলীপ ঘোষের বক্তব্য, 'যদি ধরা না পড়ত, আর কেউ অসুস্থ হত, তাহলে বলত মোদিজি এই ভেজাল ভ্যাকসিন পাঠিয়ে বাঙালিদের মারতে চেয়েছেন। এই সুযোগ ওরা পায়নি। নিজের সাংসদ ওই কাণ্ডে ভুক্তভোগী বলে সবাই জানলেন। কিন্তু বাকি যাঁদের এই ভ্যাকসিন দেওয়া হল তাঁদেরকে নিয়ে সরকার কী ভাবছে? গুজরাতে তো এমন স্ক্যাম হয় না। ৫ বছর কি এমন জালিকাণ্ডই চলবে। মানুষ এখন বুঝতে পারছেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথা পাল্টে যাচ্ছে। উনি কিছু বোঝেন? কথার কোনও যুক্তি-তক্ক নেই।'

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: