• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • DILIP GHOSH CLAIMS TO FILE A BIG NAME AGAINST MAMAT BANERJEE IN BHABANIPUR DMG

Dilip Ghosh| Bhabanipur: মমতার বিরুদ্ধে বড় নাম, ভবানীপুরে সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপানোর হুঁশিয়ারি দিলীপের

ভবানীপুর নিয়ে মমতাকে হুঁশিয়ারি দিলীপের৷

মমতার ঘরের মাঠ হলেও নন্দীগ্রামের মতো ভবানীপুরেও বিজেপি তাঁকে কড়া পরীক্ষার মুখে ফেলতে চায়, এমনই ইঙ্গিত দিয়েছেন দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh| Bhabanipur)৷

  • Share this:

    #কলকাতা: শুধু ভবানীপুরেই কেন উপনির্বাচন করাচ্ছে নির্বাচন কমিশন, তা নিয়ে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন৷ কিন্তু বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বুঝিয়ে দিলেন, কমিশনের সিদ্ধান্তে অখুশি হলেও মুখ্যমন্ত্রীকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে এক ইঞ্চি জমিও ছাড়তে রাজি নয় বিজেপি৷ নিউজ ১৮-কে দেওয়া এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকারে দিলীপ ঘোষ বুঝিয়ে দিয়েছেন, ভবানীপুরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কোনও বড় নামকেই প্রার্থী করবে বিজেপি৷ যাতে লড়াই হয় সমানে সমানে৷

    মমতার ঘরের মাঠ হলেও নন্দীগ্রামের মতো ভবানীপুরেও বিজেপি তাঁকে কড়া পরীক্ষার মুখে ফেলতে চায়, এমনই ইঙ্গিত দিয়েছেন দিলীপ ঘোষ৷ তিনি বলেন, 'ভবানীপুরে উপনির্বাচন হচ্ছে এবং সেখানে আমরা সর্বশক্তি দিয়েই ঝাঁপাবো৷ ভোটের সবরকম প্রস্তুতি নিয়েই আমরা লড়াইয়ের ময়দানে নামব৷ মুখ্যমন্ত্রী নিজে যেহেতু প্রার্থী, তাই তাঁর বিরুদ্ধে আমরাও বড় কোনও নামকেই ভবানীপুরে প্রার্থী করব৷ মুখ্যমন্ত্রী তো নন্দীগ্রামে হেরে গিয়েছেন৷ ভবানীপুরেও লড়াই সমানে সমানে হবে৷ দল এ বিষয়ে শিগগিরই সিদ্ধান্ত নেবে৷' বিজেপি সূত্রে খবর, ভবানীপুরে উপনির্বাচন এবং মু্র্শিদাবাদের দুই কেন্দ্র সামশেরগঞ্জ ও জঙ্গিপুরের ভোট নিয়ে সোমবার বৈঠকে বসতে চলেছে রাজ্য বিজেপি৷

    যদিও নির্বাচন কমিশনের ভূমিকায় তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি৷ নির্বাচনের নির্ঘণ্ট প্রকাশ করে কমিশন বিবৃতিতে জানিয়েছিল, রাজ্যে সাংবিধানিক সংকট এড়াতেই ভবানীপুরে উপনির্বাচন করিয়ে নেওয়া হচ্ছে৷ রাজ্য সরকারের অনুরোধেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলেও জানায় কমিশন৷ কারণ শপথ গ্রহণের ছ' মাসের মধ্যেই ভোটে জিতে আসতে হবে মুখ্যমন্ত্রীকে৷ এই প্রসঙ্গ তুলেই দিলীপ ঘোষের পাল্টা প্রশ্ন, 'কেউ যাতে মুখ্যমন্ত্রী পদে থাকতে পারেন, তার জন্য কোনও একটি কেন্দ্রে ভোট করানোটা নির্বাচন কমিশনের কাজ নয়৷' বিজেপি রাজ্য সভাপতি আরও বলেন, 'রাজ্যে পাঁচটি কেন্দ্রে উপনির্বাচন বাকি ছিল৷ আর দু'টি কেন্দ্রে ভোট স্থগিত হয়ে গিয়েছিল৷ ওই দু'টি কেন্দ্রের সঙ্গে কেন ভবানীপুরকে জুড়ে দিয়ে উপনির্বাচন করানো হচ্ছে, তা আমাদের মাথায় ঢুকছে না৷ এই সিদ্ধান্তের ভিত্তি কী, তা আমরা বুঝতে পারছি না?'

    মুখ্যমন্ত্রী ভোটে জিতে আসতে না পারলে রাজ্য সাংবিধানিক সংকট তৈরি হবে, এই যুক্তিও মানতে নারাজ বিজেপি রাজ্য সভাপতি৷ পাল্টা উত্তরাখণ্ডের উদাহরণ দিয়েছেন তিনি৷ কারণ সেখানে কয়েক মাস আগেই উপনির্বাচন না হওয়ায় বিজেপি-র মুখ্যমন্ত্রী তীর্থ সিং রাওয়াত ইস্তফা দেন৷ কারণ তিনিও ভোটে না জিতেই মুখ্যমন্ত্রী হয়েছিলেন৷ দিলীপের অভিযোগ, 'মুখ্যমন্ত্রী প্রভাব খাটিয়ে তড়িঘড়ি উপনির্বাচন করাতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন৷ সাংবিধানিক সংকটের প্রশ্নই ওঠে না৷'

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: