corona virus btn
corona virus btn
Loading

রাম মন্দিরের শিলান্যাসের দিন রাজ্যে লকডাউন প্রত্যাহার করা হোক, দাবি দিলীপের

রাম মন্দিরের শিলান্যাসের দিন রাজ্যে লকডাউন প্রত্যাহার করা হোক, দাবি দিলীপের
রবীন্দ্র সরোবরে দিলীপ ঘোষ৷
  • Share this:

#কলকাতা: রাজ্য সরকার লকডাউন করলেও রাম ভক্তরা মন্দিরে মন্দিরে পুজো দেবেন। রাম মন্দিরের শিলান্যাসের দিন লকডাউন ঘোষণা করে রাজ্য সরকার অমানবিক কাজ করেছে বলে অভিযোগ তুলে এমনই দাবি করলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এদিন রবীন্দ্র সরোবরের সাফারি পার্কে তিনি রাম ভক্তদের উদ্দেশে বক্তব্য রাখেন।

এ রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি প্রসঙ্গে উদ্বিগ্ন দিলীপ ঘোষ মন্তব্য করেন, 'রেজাল্ট আসার আগেই আরেকটা পদ্ধতি ফলো করা হচ্ছে। স্থায়ী সমাধানের কোনও ব্যবস্থা করা হচ্ছে না।এক্সপেরিমেন্ট করতে করতে হাতের বাইরে চলে যাবে করোনা পরিস্থিতি। দীর্ঘস্থায়ী ব্যবস্থা নিয়ে অন্য রাজ্য ফল পেয়েছে। সেখানে করোনার প্রকোপ কমেছে।'

রাজ্যে বিজেপি কর্মীদের খুন ও সেই প্রসঙ্গে দিল্লিতে দরবার করা নিয়ে দিলীপ ঘোষ জানান, 'সরকার সর্বত্র ব্যর্থ। করোনা আটকাতে ব্যর্থ। করোনা আবহে গত এক মাসের মধ্যে পাঁচজন বিজেপি কর্মী খুন হয়েছেন। মেরে ঝুলিয়ে দেওয়া হচ্ছে।রাজনৈতিক হিংসা সরকারের একটা পলিসি হয়ে গেছে। এই সরকারের তাই ক্ষমতায় থাকার অধিকার নেই। সরকারের বিদায় হবার দরকার আছে, রাষ্ট্রপতি ভাবুন।'

আগামী ৫ অগাস্ট রাম মন্দিরের ভূমি পুজো। সেদিন রাজ্যে লকডাউন রয়েছে৷ এ নিয়েও সরকারের সমালোচনা করেন দিলীপবাবু৷ তাঁর অভিযোগ, 'গোটা ভারতে রাম মন্দিরের শিলান্যাস অনুষ্ঠান ধুমধাম করে পালন করা হবে , অথছ এ রাজ্যের মানুষ তা করতে পারবে না।এটা অমানবিক৷লকডাউনের দিনক্ষণ চার বার চেঞ্জ করেছেন তো  পাঁচ বার করতে আপত্তি কোথায়? ৫ ই আগস্ট সকাল ১১ টা থেকে মন্দিরে মন্দিরে পূজা দেওয়া হবে। সন্ধ্যেবেলা রাজ্যের মানুষ প্রদীপ জ্বালাবেন বাড়িতে বাড়িতে।'

দিলীপবাবু অভিযোগ করেন, পরিকল্পনা করে শ্রমিক স্পেশাল আনা হয়নি রাজ্যে। রাজ্য বিমান চলাচলও নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে। তাঁর অভিযোগ, 'আমরাও দিল্লিতে  বৈঠকে যোগ দিতে যেতে পারছিনা। দিল্লি থেকে নেতা মন্ত্রীরা এরাজ্যে আসতে পারছেন না। করোনাকে আটকাবার পথ এটা হলে আটকানো যাচ্ছে না কেন? একটা ব্যবস্থা তৈরি করে শুধুমাত্র নাগরিকদের কষ্ট দেওয়া হচ্ছে। দেশ থেকে বাংলাকে বিচ্ছিন্ন করার চক্রান্ত করা হচ্ছে।'

Biswajit Saha

Published by: Debamoy Ghosh
First published: August 2, 2020, 11:17 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर