Home /News /kolkata /
Latest Bangla News|| দুর্নীতির বিরুদ্ধে আন্দোলনে শরীক, মশাল মিছিলে পা মেলাল গণতান্ত্রিক মহিলা সমিতি

Latest Bangla News|| দুর্নীতির বিরুদ্ধে আন্দোলনে শরীক, মশাল মিছিলে পা মেলাল গণতান্ত্রিক মহিলা সমিতি

Democratic Women's Federation organized Mashal Michil: দুর্নীতির বিরুদ্ধে লাগাতার আন্দোলনের পথে হাঁটার কথা ঘোষণা করেছে বামেরা। তারই অঙ্গ হিসেবে মঙ্গলবার মশাল মিছিল করল গণতান্ত্রিক মহিলা সমিতি।

  • Share this:

#কলকাতা: দুর্নীতির বিরুদ্ধে লাগাতার আন্দোলনের পথে হাঁটার কথা ঘোষণা করেছে বামেরা। তারই অঙ্গ হিসেবে মঙ্গলবার মশাল মিছিল করল গণতান্ত্রিক মহিলা সমিতি। এ দিন ধর্মতলা থেকে ওয়েলিংটন স্কোয়ার পর্যন্ত মিছিল করে সংগঠনের নেতা, কর্মী সমর্থকেরা।

সংগঠনের নেত্রী কনীনিকা ঘোষ বোস জানিয়েছেন, "এ মশাল প্রতিবাদের মশাল। যেভাবে দুর্নীতি হয়ে চলেছে তা কোনও ভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। রাজ্যের সর্বত্র সব বিভাগে রোজ রোজ নতুন নতুন দুর্নীতির খবর আসছে।  এসএসসি-তে কী হয়েছে? ছেলে-মেয়েগুলো রাস্তায় বসে আছে। ওরাও কারও বাড়ির সন্তান। কারও বাবা, মা। কেনও ওদের এ ভাবে বসে থাকতে হবে? যতক্ষণ না পর্যন্ত এর সুরাহা হবে আমাদের আন্দোলন চলবে। এর সঙ্গে রয়েছে মূল্যবৃদ্ধি। যেভাবে প্রতিদিন মানুষের জিনিসপত্রের দাম বাড়ছে তাতে সাধারণ মানুষ সমস্যায় পড়ছে। অথচ সরকার কোনও পদক্ষেপ করছে না। আমাদের দাবি অবিলম্বে জিনিষের দাম কমাতে হবে। আর সব চাইতে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা। যেভাবে একটার পর একটা ঘটনা রাজ্যে ঘটছে তাতে সরকার কী করেছে। এগুলো বন্ধ করতে হবে। আর এই সবের বিরুদ্ধে আমাদের মশাল মিছিল। এ আগুন প্রতিবাদের আগুন।"

আরও পড়ুন: নিয়োগ কবে? কর্মশিক্ষা ও শারীর শিক্ষা চাকুরী প্রার্থীরা ফের চাইছেন মুখ্যমন্ত্রীর সাক্ষাৎ

মূল্যবৃদ্ধি, দুর্নীতি ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে রাজ্যজুড়ে আন্দোলনের ডাক দিয়েছে বামেরা। আনিস খান-সহ বেশকিছু ইস্যু নিয়ে লাগাতার আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে বাম ছাত্রযুব সংগঠনগুলি। এসএসসি নিয়েও পথে রয়েছে বামেরা। মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে ২৫-৩১ মে পর্যন্ত রাজ্যজুড়ে বিক্ষোভ কর্মসূচি করেছে বামেরা। মঙ্গলবার রানি রাসমণি রোডে কর্মসূচির শেষ দিনে উপস্থিত হয়েছেন ১৫ বামপন্থী দলের নেতৃত্ব।

আরও পড়ুন: প্রকাশ্যে স্বামীকে কিল-চড়-ঘুষি! ব্যাপক জুতোপেটা! কোথায় ঘটল এমন ঘটনা?

এ প্রসঙ্গে বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু বলেন, "১৫ বাম দলের আহ্বানে কর্মসূচি। এর আগে জেলায় জেলায় কর্মসূচি ছিল ২৫-৩০ মে। মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে। বেকারির প্রতিবাদে। কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ ছিল। একই সঙ্গে কলকাতার বাজারে একই জিনিসের বিভিন্ন দাম। টাক্সফোর্সের কাজ কী? নাকে সরষের তেল দিয়ে ঘুমানো? এসএসসি পরীক্ষায় বসে উত্তীর্ন হয়েছে। নিয়োজিত হয়নি। এখনও বিক্ষোভ করছে। যারা পরীক্ষা দেয়নি হয়েছে। সিএম বলছেন নিয়ম মতো হয়। কী করে এরা পেল? নিয়ম মাফিক হয় না। বেশিরভাগ কাজ। প্রতিবাদ করতেই হবে। জেলা ও শহরে। তবে এই কর্মসূচি এখানেই শেষ নয়। শুরু হল বলা যায়। লাগাতার এই কর্মসূচি চলবে।"

UJJAL ROY

Published by:Shubhagata Dey
First published:

Tags: Cpim

পরবর্তী খবর