Cyclone YAAS Update : ঘূর্ণিঝড় যশের আশঙ্কায় কাঁপছে গোটা বাংলা, ল্যান্ডফল কবে? কবে থেকে বৃষ্টি শুরু?

ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় প্রতীকী ছবি

ঘূর্ণিঝড় যশ (Cyclone Yaas) এর গতিপ্রকৃতি নিয়ে তটস্থ আবহাওয়া দফতরও। জানা যাচ্ছে শনিবারই পূর্ব মধ্য বঙ্গোপসাগর ও সংলগ্ন উত্তর আন্দামান সাগরে নিম্নচাপ তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে। সেই নিম্নচাপ ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে সোমবার।

  • Share this:

    #কলকাতা : গত বছরই আমফানের তান্ডবলীলা দেখেছে বাংলা। তাই এই বছর একই সময় ঘূর্ণিঝড় যশের পূর্বাভাসে ভয়ে কাঁটা হয়ে রয়েছে উপকূল এলাকা তথা পশ্চিমবঙ্গবাসী। ঘূর্ণিঝড় যশ (Cyclone Yaas) এর গতিপ্রকৃতি নিয়ে তটস্থ আবহাওয়া দফতরও (Weather Office)। জানা যাচ্ছে শনিবারই পূর্ব মধ্য বঙ্গোপসাগর ও সংলগ্ন উত্তর আন্দামান সাগরে নিম্নচাপ তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে। সেই নিম্নচাপ ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে সোমবার। এমনটাই জানাচ্ছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। তারপর আরও শক্তি বাড়িয়ে উত্তর পশ্চিম দিকে এগোবে এই ঝড়। সম্ভবত আগামী বুধবার বাংলার উপকূলে আছড়ে পড়তে পারে ঘূর্ণিঝড় যশ বা ইয়াস।

    বাংলায় বৃষ্টি কবে শুরু?

    এদিকে, গত কয়েকদিন থেকেই গা জ্বালানি গরমে হিমশিম খাচ্ছেন বঙ্গবাসী। বৃষ্টির দেখা নেই। ভোর হতে না হতেই চড়া রোদে নাজেহাল অবস্থা। আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানা যাচ্ছে, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে রাজ্যে আগামী মঙ্গলবার থেকে বৃষ্টি শুরু হবে। ২৫ মে থেকে রাজ্যের উপকূলবর্তী জেলায় হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি শুরু হবে। কোথাও কোথাও ভারী বৃষ্টি হতে পারে পরবর্তী সময়ে বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বে। মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা বাকি জেলাগুলিতেও।

    কবে ল্যান্ডফল?

    আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে ২৬ তারিখ দিঘা এবং পারাদ্বীপের মাঝে কোনও একটি জায়গায় আছড়ে পড়ার কথা ঘূর্ণিঝড় যশের। সেকারণেই এর সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়বে পূর্ব মেদিনীপুরে। এছাড়া সুন্দরবন, দুই ২৪ পরগনা, কলকাতা শহরেও যশ বা ইয়াসের প্রভাব পড়বে। তবে আম্ফান যেমন শহরের উপর দিয়ে বয়ে গিয়েছিল। যশ কলকাতা শহরে সেই তাণ্ডব চালাবে না। তবে ২৩-২৪ তারিখ থেকেই গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের জেলা গুলিতে ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণের পূর্বাভাস দিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। তার সঙ্গে বইবে ঝোড়ো হাওয়া।

    মৎস্যজীবীদের জন্য সতর্কতা :

    ২৩ মে থেকে পূর্ব মধ্য বঙ্গোপসাগর ও আন্দামান সাগরে ঘণ্টায় ৪৫-৬৫ কিমি বেগে ঝোড়ো হাওয়া বইতে পারে। হাওয়ার সর্বোচ্চ বেগ হতে পারে ঘণ্টায় ৬৫ কিমি। ২৩ মে'পর থেকে হাওয়ার বেগ আরও বাড়তে থাকবে। ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে উত্তাল হতে পারে সমুদ্র। ২৩ মে থেকে সমুদ্রে মৎস্যজীবীদের যেতে নিষেধ করা হয়েছে। যাঁরা মাঝ সমুদ্রে রয়েছেন, তাঁদের ২৩ তারিখ সকালের মধ্যে ফিরে আসার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এদিকে, গত বছর আমফানের তাণ্ডবে তছনছ হয়েছিল বাংলার একাংশ। এবার ঘূর্ণিঝড় যশ মোকাবিলায় আগাম প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে প্রশাসন।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: