ধেয়ে আসছে বুলবুল, সন্ধে ৬টা থেকে বন্ধ কলকাতা বিমানবন্দর

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Nov 09, 2019 04:54 PM IST
ধেয়ে আসছে বুলবুল, সন্ধে ৬টা থেকে বন্ধ কলকাতা বিমানবন্দর
Photo Courtesy: ANI/Twitter
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Nov 09, 2019 04:54 PM IST

#কলকাতা: গতি বাড়িয়ে ধেয়ে আসছে ‘বুলবুল’। ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় কোমর বেঁধে তৈরি রাজ্য প্রশাসন। উপকূলের জেলাগুলিকে বাড়তি সতর্ক থাকতে বলেছে নবান্ন। কলকাতা-সহ সাত জেলায় আজ সব সরকারি স্কুলে ছুটি ঘোষণা করেছে শিক্ষা দফতর। হাতে আর কয়েক ঘণ্টা। তার আগে বুলবুলের ধাক্কায় বিপর্যয়ের আঁচ পেয়ে, আগাম প্রস্তুত রাজ্য প্রশাসন।

আজ, শনিবার সন্ধে ৬টা থেকে বন্ধ কলকাতা বিমানবন্দর ৷ আগামী ১২ ঘণ্টা দমদম বিমানবন্দরে বন্ধ বিমান চলাচল ৷ অর্থাৎ আজ, সন্ধে ৬টা থেকে রবিবার সকাল ৬টা পর্যন্ত বন্ধ থাকবে কলকাতা বিমানবন্দর ৷ ফলে সন্ধের পর সব বিমানই বাতিল করা হয়েছে ৷ দেশের মধ্যে বিভিন্ন রুটের পাশাপাশি বিদেশের সব রুটের বিমান বাতিল হওয়ায় স্বভাবতই সমস্যায় যাত্রীরা ৷ কলকাতাগামী সব বিমানই বাতিল করা হয়েছে ৷ ইন্ডিগোর পাশাপাশি ভিস্তারাও ইতিমধ্যেই ৮টি ফ্লাইট বাতিল করেছে ৷ এখনও পর্যন্ত সেভাবে যাত্রী হয়রানির খবর না পাওয়া গেলেও সন্ধে ৬টা-র পর তেমনটা হওয়ারই আশঙ্কা থাকছে ৷

f6c26504-35dd-438d-a48e-b2034f55b822

ঝড়ের কারণে কলকাতা বিমানবন্দর থেকে সকালেই ২৩টি বিমান বাতিল করেছিল ইন্ডিগো বিমান সংস্থা। বিমানগুলি সকাল ১১ টার পর কলকাতা থেকে রাঁচি, পাটনা, দিল্লি, চেন্নাই, মুম্বই, পুণে-সহ আরও বেশ কয়েকটি জায়গায় যাওয়ার কথা ছিল সেগুলিকে বাতিল করা হয়।

প্রতি মুহূর্তে আবহাওয়া দফতরের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে নবান্ন ৷ উপকূলবর্তী সব জেলাকে বাড়তি সতর্কতা নিতে বলা হয়েছে ৷ পর্যাপ্ত ত্রাণসামগ্রী মজুত রাখতে বলা হয়েছে জেলা প্রশাসনকে ৷ তৈরি রাখা হয়েছে বিপর্যয় মোকাবিলা দলও ৷ সমুদ্র তীরবর্তী বাসিন্দাদের ইতিমধ্যেই অন্যত্র সরানো হয়েছে ৷

Loading...

এছাড়া নবান্নে বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের কন্ট্রোল রুম থেকে পরিস্থিতির উপর চব্বিশ ঘণ্টা নজর রাখা হচ্ছে। পরিস্থিতির উপর নজর রাখছে সল্টলেকে সেচ দফতরের কন্ট্রোল রুমও। দুর্যোগের আশঙ্কায় আগামী ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত সব ছুটি বাতিল করেছে কলকাতা পুরসভা। শহরের প্রতিটি বোরোয় তৈরি পুরসভার বিশেষ টিম। দুর্যোগের আশঙ্কায় সতর্ক শিক্ষা দফতরও। শনিবার কলকাতা, হাওড়া, দুই চব্বিশ পরগনা, দুই মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রামের সব সরকারি স্কুলে ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। বেসরকারি স্কুলগুলিকেও ছুটি ঘোষণার আবেদন করেছে শিক্ষা দফতর।

মনে করা হচ্ছে আজ, শনিবার সন্ধের পরই স্থলভাগে আছড়ে পড়বে এই ঘূর্ণিঝড়। যার জেরে বিপর্যস্ত হতে পারে জনজীবন। ঝড়ের মোকাবিলায় তৎপর রাজ্য প্রশাসন। নেওয়া হচ্ছে আগাম সতর্কতা।

ঘূর্ণিঝড় বুলবুল আজ, শনিবার সন্ধেতে এ রাজ্যে সাগরদ্বীপ এবং বাংলাদেশের খেপুপাড়া এলাকার মধ্যে আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আজ, শনিবার সকাল থেকে দুই ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, কলকাতা, হাওড়া, হুগলি এবং নদিয়াতে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি চলছে। উপকূল অঞ্চলে ঝোড়ো হাওয়া বইছে এবং তার প্রভাব পড়েছে কলকাতায়।

First published: 04:26:56 PM Nov 09, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर