corona virus btn
corona virus btn
Loading

বিদ্যুৎ ও পানীয় জল দ্রুত স্বাভাবিক করতে নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের     

বিদ্যুৎ ও পানীয় জল দ্রুত স্বাভাবিক করতে নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের     
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

জনস্বাস্থ্য কারিগরি দফতরের আধিকারিকদের জানানো হয়েছে প্রয়োজনে জেনারেটর চালিয়ে কাজ সারতে হবে।

  • Share this:

#কলকাতা: সবার আগে ফেরাতে হবে বিদ্যুত। সেই বিদ্যুৎ ফেরাতে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় কাজ চালিয়ে যেতে বললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একই সঙ্গে তিনি আধিকারিকদের জানিয়েছেন পানীয়জল যেন দ্রুত দেওয়ার ব্যবস্থা করা যায়। জনস্বাস্থ্য কারিগরি দফতরের আধিকারিকদের জানানো হয়েছে প্রয়োজনে জেনারেটর চালিয়ে কাজ সারতে হবে। শনিবার বিধ্বস্ত দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার সামগ্রিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শনিবার আকাশ পথে তিনি সাগর, বাসন্তী, নামখানা সহ বিভিন্ন প্রান্ত দেখেন। আগামীদিনে কিভাবে জেলা প্রশাসন কাজ করবে তা নিয়েও দফতরের আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী।

মুখ্যমন্ত্রী এদিন জানিয়েছেন, রাজ্যকে ৪টি চ্যালেঞ্জের মধ্যে দিয়ে যেতে হচ্ছে। প্রথম চ্যালেঞ্জ এখন আমফান পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবিলা করা। দ্বিতীয় চ্যালেঞ্জ হল করোনা। তৃতীয় চ্যালেঞ্জ হল লকডাউন আর শেষ চ্যালেঞ্জ হল পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরানো। এ কারণেই তিনি মনে করিয়ে দিয়েছেন, অত্যন্ত সাবধানে বুঝে দেখে সমস্ত খরচ করতে হবে।

সেই হিসেবে প্রথমেই বলা হয়েছে বিদ্যুৎ ফিরিয়ে আনতে হবে। দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলা প্রশাসন সূত্রে খবর এখানে প্রায় ৪৩ হাজার বিদ্যুতের খুঁটি উপড়ে পড়ে গিয়েছে। সাব স্টেশনের ক্ষতি হয়েছে ৫১টি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার জন্যে বিদ্যুৎ দফতরের আধিকারিক ও কর্মীদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি। একইসঙ্গে তাঁর বক্তব্য, এত বড় একটি ঝড় বয়ে গেছে। লকডাউনের সময় একা কারও পক্ষে সম্ভব নয় সব কাজ করা। তাই দফতরের কর্মী ছাড়াও স্থানীয়দের কাজে যোগ দেওয়ার জন্যে বলছেন মুখ্যমন্ত্রী। অন্যদিকে, ঝড়ের তান্ডবে একাধিক পুকুরে বাড়ির চাল পড়ে আছে। জল নোংরা হয়েছে। গন্ধ বেরোচ্ছে। বহু জায়গায় পানীয় জলের অভাব রয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী জনস্বাস্থ্য কারিগরি দফতরের আধিকারিকদের নিদেশ দিয়েছেন তারা যেন জেনারেটর ব্যবহার করে। কিন্তু এত সংখ্যক জেনারেটর কোথায় পাওয়া যাবে তা নিয়ে সংশয়ে রয়েছেন সুন্দরবন উন্নয়ন দফতরের আধিকারিকরা। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, "একান্ত জলের সমস্যা হলে পাউচ দিন জলের। জল খেতে পাচ্ছিনা এটা যেন না হয়।"

অন্যদিকে এদিনও মুখ্যমন্ত্রী বেসরকারি বাস চালানোর জন্যে অনুরোধ করেছেন। তবে ভাড়া বৃদ্ধি করা যাবে না। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, এই পরিস্থিতিতে ভাড়া বাড়ানো সম্ভব নয়। শুধু বলব মানুষের পাশে থাকতে।

ABIR GHOSHAL

Published by: Ananya Chakraborty
First published: May 23, 2020, 8:24 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर