কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

গুপ্তবাবুর গুপ্তজীবন! মৃত্যুর ৬ বছর পর দুই আলাদা পরিবার স্মরণপত্র ছাপাল একই কাগজে!

গুপ্তবাবুর গুপ্তজীবন! মৃত্যুর ৬ বছর পর দুই আলাদা পরিবার স্মরণপত্র ছাপাল একই কাগজে!

দুই শোকজ্ঞাপনেই একই ব্যক্তির দুই আলাদা মুহূর্তের ছবি ছাপা হয়েছে। ব্যক্তি একই, কিন্তু তাঁর পরিবার আলাদা । আলাদা আলাদা স্ত্রী, ছেলে-মেয়ে-নাতি-নাতনি ।

  • Share this:

#কলকাতা: ব্যাপারটা স্বাভাবিক ভাবেই চমকে দিয়েছে দেশ এবং তার সোশ্যাল মিডিয়া ইউজারদের। এমন নয় যে এ দেশে বহুবিবাহ সম্পূর্ণ ভাবে লোপ পেয়েছে। কোনও ধর্মে বহুবিবাহ এখনও আইনত সিদ্ধ। আবার, কোথাও তা আইনত সিদ্ধ না হলেও লুকিয়ে-চুরিয়ে অনেকেই একাধিক বিয়ে করে থাকেন। এ প্রসঙ্গে আরও একটি ঘটনার কথা উল্লেখ না করলেই নয়। সম্প্রতি ছত্তিসগড়ের এক যুবক একই মণ্ডপে বিয়ে করেছেন দুই পাত্রীকে। কিন্তু গুপ্তবাবুর ব্যাপারটা সে রকম নয়। আর সেই জন্যই তুমুল রহস্য দানা বেঁধেছে ঘটনাকে ঘিরে।

খবর বলছে যে সম্প্রতি দেশের এক প্রথম সারির ইংরেজি কাগজপত্রের স্মরণতালিকায় সুরিন্দর কে গুপ্ত নামে এক ব্যক্তির মৃত্যুসংবাদ এবং সেই উপলক্ষ্যে তাঁর পরিবারের শোকজ্ঞাপনের সংবাদ ছাপা হয়। শুনতে অদ্ভুত লাগলেও এটা সত্যি ওই ব্যক্তির মৃত্যুর ৬ বছর বাদে দুই আলাদা পরিবার তাঁর মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করেছে। একটি বয়ানে দেখা যাচ্ছে যে, ওই ব্যক্তির স্ত্রীর নাম স্বর্ণলতা, তাঁদের এক মেয়ে রয়েছে। স্বর্ণলতা, মেয়ে রুচিকা, জামাই প্রশান্ত এবং নাতনি রুহির নাম উল্লেখ করা আছে সেই শোকজ্ঞাপনে।

অন্য দিকে, তার ঠিক পাশেই একই ব্যক্তির মৃত্যুতে শোকজ্ঞাপন করেছে একটি আলাদা পরিবার। এই শোকজ্ঞাপনের বয়ানমতে প্রয়াত সুরিন্দরের স্ত্রীর নাম গুলশন। তাঁদের এক ছেলে রয়েছে। ছেলে নীতীন, বউমা নেহা আর নাতি-নাতনি বংশরাজ-মুসকান এই বিজ্ঞাপনে শোক প্রকাশ করেছে সুরিন্দরের জন্যে। দুই শোকজ্ঞাপনেই একই ব্যক্তির দুই আলাদা মুহূর্তের ছবি ছাপা হয়েছে।

আপাতত এই বিষয়টি নিয়েই রীতিমতো আলোড়ন পড়ে গিয়েছে ট্যুইটারে (Twitter)। ট্যুইটারেতিরা বুঝে উঠতে পারছেন না যে কী ভাবে এই দুই পরিবার পরস্পরের অবস্থান মেনে নিয়েছে! না কি তারা সত্যিটা জানে না- প্রশ্ন উঠছে সে ব্যাপারেও। ইউজারদের অনেকেরই বক্তব্য- এটা সংবাদপত্রের ভুল নয়!

তা হলে ব্যাপারটা কী হতে পারে? ইউজারদের অনেকে মজা করে বলেছেন যে গুপ্তবাবুর গুপ্তজীবন নিয়ে একটা Netflix ওয়েব সিরিজ তৈরি হোক! অনেকের আবার অভিমত- খুব সম্ভবত সম্পত্তির দাবিতে এই দুই পরিবার একত্রে শোকজ্ঞাপন করেছে সংবাদপত্রে!

Published by: Simli Raha
First published: January 8, 2021, 12:46 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर