corona virus btn
corona virus btn
Loading

পুলিশ ওদিকে মাইকে সতর্ক করছে, বাজারে ভিড় করা বাঙালি নির্বিকার

পুলিশ ওদিকে মাইকে সতর্ক করছে, বাজারে ভিড় করা বাঙালি নির্বিকার
মানিকতলায় মাছের বাজারে ভিড়

আর শুক্রবারের পর শনিবারের এই ছবি করোনা সংক্রমণের গ্রাফ বাড়াতে পারে বলেই উদ্বেগ প্রকাশ করছেন চিকিৎসকরা।

  • Share this:

#কলকাতা: বৃহস্পতিবার রাজ্যে সর্বোচ্চ করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের পরিসংখ্যান উঠে এসেছিল। যদিও শুক্রবার সেই পরিসংখ্যান সামান্য কমলেও লাফিয়ে লাফিয়ে রাজ্যে বেড়ে যাচ্ছে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। কিন্তু তাতে কী! বাজারের ছবিটা অবশ্য বদলাল না।

সামাজিক দূরত্ব বিধিকেকে লঙ্ঘন করে শনিবারেও একাধিক বাজারে এই ভাবেই চলল কেনাকাটা। বাজারে এই ছবি ক্রমশই উদ্বেগ বাড়াচ্ছে শহর কলকাতার। শনিবার মানিকতলা বাজারে কলকাতা পুলিশের তরফে বার বার মাইকে ঘোষণা করা হচ্ছিল। কিন্তু সেই ঘোষণাকে কোনও পাত্তাই দিচ্ছেন না বাজার করতে আসা ক্রেতারা। যদিও গা ঘেঁষাঘেঁষি করে কেন বাজার তার জিজ্ঞাসা করতেই একে অপরের ওপর দায় চাপাতে ব্যস্ত বাজার করতে আসা ক্রেতারা।

আর শুক্রবারের পর শনিবারের এই ছবি করোনা সংক্রমণের গ্রাফ বাড়াতে পারে বলেই উদ্বেগ প্রকাশ করছেন চিকিৎসকরা।

রবিবার শেষ হচ্ছে চতুর্থ দফার লকডাউন। কিন্তু লকডাউন শেষ হতে চললেও রাজ্যে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ক্রমশই ঊর্ধ্বমুখী। জল্পনা পঞ্চম দফা শুরু হলেও তা অবশ্য একাধিক সরলীকরণ করা হবে। আগামী সপ্তাহ থেকে এরাজ্যে কী কী ব্যবস্থা নেওয়া হবে তা ইতিমধ্যেই শুক্রবার সাংবাদিক সম্মেলন করে ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে তার সঙ্গে একে অপরের সঙ্গে দূরত্ব বজায় রাখার পাশাপাশি মাস্ক, গ্লাভস ব্যবহার করা প্রয়োজনীয় বলেও শুক্রবার মনে করিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

করোনাভাইরাসকে আটকানোর জন্য সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনে চলা একান্তই দরকার বলে বারবারই বলে আসছেন চিকিৎসক থেকে শুরু করে বিজ্ঞানীরা। কিন্তু কলকাতার বাজারগুলি ছবি দেখলে করো না ভাইরাসে আক্রান্তের গ্রাফ ক্রমশই উদ্বেগ বাড়াচ্ছে। কেন না শুক্রবারের পর শনিবারেও শহর কলকাতার একাধিক বাজারেই কার্যত সামাজিক দূরত্ব বিধিকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে চলছে বাজার।

 শনিবার মানিকতলা বাজারে সামাজিক দূরত্ব বৃ্দ্ধি যে মানা হচ্ছে না তা কার্যত স্বীকার করে নিচ্ছেন বাজার করতে আসা ক্রেতারাই। সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনে চলার জন্য একাধিক জায়গায় পুলিশের তরফে চক কেটে দাঁড়ানোর জায়গা নির্দিষ্ট করে দেওয়া হলেও তা অবশ্য এখন কেউ মানছেন না। উল্টে একে অপরের ঘাড়ে চেপে বাজার করতে ব্যস্ত এখন শহর কলকাতার একাধিক বাজারে ক্রেতারা।

SOMRAJ BANDOPADHYAY

Published by: Arindam Gupta
First published: May 30, 2020, 1:36 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर