সৌজন্য়ে 'টুম্পা সোনার' প্যারোডি, রাতারাতি বিখ্যাত সিপিএম সমর্থক রাহুল-নীলব্জ

সৌজন্য়ে 'টুম্পা সোনার' প্যারোডি, রাতারাতি বিখ্যাত সিপিএম সমর্থক রাহুল-নীলব্জ
রাহুল পাল এবং নিলব্জ নিয়োগী৷ Photo-Facebook

নীলব্জ জানিয়েছেন, রাহুলের সঙ্গে আগেই পরিচয় ছিল৷ বাম রাজনীতির সমর্থক আরও কয়েকজন সতীর্থের সঙ্গে মিলেই ব্রিগেডের প্রচারে গান তৈরির ভাবনা মাথায় এসেছিল৷

  • Share this:

#কলকাতা: সৌজন্যে বাম-কংগ্রেসের ব্রিগেডের প্রচারে টুম্পা সোনার প্যারোডি৷ আর তাতেই রীতিমতো বিখ্যাত হয়ে গিয়েছেন দু' জনে৷ রাহুল পাল এবং নীলব্জ নিয়োগী- প্রথমজন গানের কথা লিখেছেন, দ্বিতীয় জন গানটি গেয়েছেন৷

সোশ্যাল মিডিয়ার সৌজন্যে শনিবার রাতারাতি ভাইরাল হয়ে গিয়েছে টুম্পা সোনার এই প্যারোডি৷ এমন কি, গানটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন সিপিএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্রও৷ যে ভাবে সহজ কথায় রাজনৈতিক দাবিগুলিকে এই গানের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে, তাকে স্বাগত জানিয়েছেন অধিকাংশ বাম সমর্থক৷ গান বিখ্যাত হতেই একের পর এক ফোন পাচ্ছেন রাহুল এবং নিলব্জ৷ ফেসবুকের সৌজন্যে তাঁদের পরিচয়ও সামনে চলে এসেছে৷ যদিও বিতর্ক এড়াতেই সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে চাইছেন না রাহুল৷ নীলব্জ অবশ্য জানিয়েছেন, বেশ কয়েকদিন পরিকল্পনার পরই তৈরি হয়েছে টুম্পা সোনা নিয়ে প্যারোডি৷

প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলায় এমএ পড়ছেন নীলব্জ৷ সঙ্গীতচর্চার পাশাপাশি তিনি একজন পেশাদার সাউন্ড ইঞ্জিনিয়ার৷ এসএফআই সহ সিপিএমের প্রচারে বেশ কয়েকটি গান গেয়েছেন এর আগে৷ কিন্তু সেসব কিছুকেই ছাপিয়ে গিয়েছে টুম্পা সোনার প্যারোডি৷ নীলব্জ জানিয়েছেন, রাহুলের সঙ্গে আগেই পরিচয় ছিল৷ বাম রাজনীতির সমর্থক আরও কয়েকজন সতীর্থের সঙ্গে মিলেই ব্রিগেডের প্রচারে গান তৈরির ভাবনা মাথায় এসেছিল৷ জনপ্রিয়তার কারণেই বেছে নেওয়া হয় টুম্পা সোনাকে৷  মাঝে বাম ছাত্র যুবদের নবান্ন অভিযানে মইদুল ইসলাম মিদ্যার মৃত্যুর ঘটনার কারণে গান প্রকাশে কয়েকদিন দেরি হয়েছে বলে জানিয়েছেন নীলব্জ৷


টুম্পার সোনার এই প্যারোডি বাম কর্মী সমর্থকদের মধ্যে বিপুল জনপ্রিয়তা পেলেও অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন, প্রচারে এই গানের ব্য়বহার বাম রাজনীতির সংস্কৃতির পরিপন্থী কি না? সোশ্যাল মিডিয়ায় নীলব্জেরও তা চোখে পড়েছে৷ তাঁর জবাব, 'অনেকেই তো বলেন বামেদের কথা নাকি সাধারণ মানুষের মাথার উপর দিয়ে বেরিয়ে যায়৷ আমরা সহজ কথাটা সহজ ভাবে মানুষের কানে ঢুকিয়ে দিতে পেরেছি৷ এর মধ্যে খারাপ কিছু চোখে পড়ছে না৷'

গানের কথা যিনি লিখেছেন, কলকাতার বাসিন্দা সেই রাহুল পাল সিপিএম সমর্থক৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় দলের প্রচারে আগেও বেশ কিছু কাজ করেছেন তিনি৷ সেই সমস্ত কাজ প্রশংসা কুড়োলেও এ ভাবে ভাইরাল হয়নি৷ রাহুলের ঘনিষ্ঠরা জানাচ্ছেন, এই প্যারোডি গান যে এতটা ভাইরাল হয়ে যাবে, গানের কথা লেখার সময় রাহুল নিজেও তা আঁচ করতে পারেননি৷ জনপ্রিয় গান হিসেবেই 'টুম্পা সোনাকে' বেছে নিয়েছিলেন তিনি এবং তাঁর সঙ্গীরা৷

টুম্পা সোনার প্যারোডি ছড়িয়ে পড়ার পর ফেসবুকে অনেকেই নীলব্জ-রাহুলের কাছে ভবিষ্যতেও এমন সৃষ্টির দাবি জানিয়েছেন৷ টুম্পা সোনার প্য়ারোডি হিট হওয়ার পর দু' জনের কাছ থেকে প্রত্যাশাও বেড়ে গিয়েছে বাম কর্মী- সমর্থকদের৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published: