corona virus btn
corona virus btn
Loading

কেরলের পর এবার বাংলা, করোনা সচেতনতায় স্যানিটাইজার বানাচ্ছে সিপিএম

কেরলের পর এবার বাংলা, করোনা সচেতনতায় স্যানিটাইজার বানাচ্ছে সিপিএম

সংগঠনের সবকটি ইউনিটে তৈরি করা হচ্ছে স্যানিটাইজার।

  • Share this:

#কলকাতাঃ করোনা ইতিমধ্যেই আতঙ্ক ছড়িয়েছে দেশজুড়ে। আতঙ্কিত মানুষ হ্যান্ড স্যানিটাইজারের খুঁজছেন হন্যে হয়ে। কিন্তু কোথাও তা পাওয়া যাচ্ছে না। আর পাওয়া  গেলেও তার দাম কয়েকগুন বেশি। সাধারণ মানুষকে এই স্যানিটাইজারের জোগান দিতে প্রথমে কেরালায় সিপিএমের যুব সংগঠন উদ্যোগ নিয়েছে। সংগঠনের সবকটি ইউনিটে তৈরি করা হচ্ছে স্যানিটাইজার। পৌছে দেওয়া হচ্ছে সাধারণ মানুষের মধ্যে।

এই রাজ্যেও করোনা থাবা বসিয়েছে ইতিমধ্যেই। আতঙ্ক ছড়িয়েছে। বাজারে অমিল স্যানিটাইজার। গেলেও দাম বেশি। এর ফলে সব চাইতে বেশি সমস্যায় পড়েছে গরিব মানুষ। তাই কেরালার মতো এখানেও স্যানেটাইজারের যোগান দিতে উদ্যোগ নিয়েছে সিপিএমের গণসংগঠনগুলি। স্যানিটাইজার তৈরি করতে করে মানুষের মধ্যে বিলি করছেন সংগঠনের সদস্যরা।

সিপিএম নেতা সুদীপ সেনগুপ্ত বলেন, "রাতারাতি স্যানিটাইজার বাজার থেকে উবে গেল। শুরু হয়ে গেল কালোবাজারি। সে কারণেই একটা স্যানিটাইজার কয়েকগুণ বেশি দাম দিয়ে মানুষকে কিনতে হচ্ছিল। এর ফলে সবথেকে বেশি সমস্যায় পড়েন গরীব মানুষ। বিশেষ করে অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমিকরা। সমস্যায় পড়েছিলেন সেই সব প্রবীণ মানুষেরা যারা বাড়িতে একা থাকেন। এরপরেই আমরা স্যানিটাইজার বানানো শুরু করলাম। কলকাতায় এক লক্ষেরও বেশি মানুষকে বিনামূল্যে স্যানিটাইজার বিলি করা হয়েছে। আরও স্যানিটাইজার বানানোর কাজ চলছে। এক্ষেত্রে প্রচুর মানুষ সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। তবে এক্ষেত্রে সবথেকে বড় সমস্যা কাঁচামালের অভাব।" তবে কেরালাতে ডিওয়াইএফআই যেমন কার্যত কারখানা বানিয়ে স্যানিটাইজারের জোগান দিচ্ছে এখানে কি সেরকম করা হবে?

ডিওয়াইএফআই-এর রাজ্য সম্পাদক সায়নদীপ মিত্র বলেন, "কেরালা আর এখানকার পরিস্থিতি আলাদা। কেরালা সরকার প্রথম থেকেই এই বিষয়টিতে অনেক গুরুত্ব দিয়েছে। তাই ওখানে যেটা সম্ভব হচ্ছে এখানে সেটা হচ্ছে না। এখানে সমস্যা হল স্যানিটাইজার বানানোর কাঁচামালের অভাব রয়েছে। প্রচুর পরিমানে স্যানিটাইজারের প্রয়োজন থাকলেও কিছু অসাধু ব্যবসায়ীর জন্য এটা করা যাচ্ছে না। স্যানিটাইজারের পাশাপাশি কাঁচামাল নিয়েও কালোবাজারি চলছে। সরকারের এই বিষয়টা দেখা উচিত। তবে যত বেশি কাঁচামাল পাওয়া যাবে ততই এখানে স্যানিটাইজার বানিয়ে সাধারণ মানুষকে দেওয়া হবে।"

UJJAL ROY

First published: March 27, 2020, 10:49 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर