Home /News /kolkata /
Coronavirus || ফের চোখ রাঙাচ্ছে করোনা, যা সিদ্ধান্ত নিল স্কুল কর্তৃপক্ষ

Coronavirus || ফের চোখ রাঙাচ্ছে করোনা, যা সিদ্ধান্ত নিল স্কুল কর্তৃপক্ষ

Coronavirus || পড়ুয়াদের সুরক্ষার কথা ভেবে শহরের বেশ কিছু স্কুল কড়া পদক্ষেপ করেছে।

  • Share this:

ভেঙ্কটেশ্বর লাহিড়ী, কলকাতা: বাড়ছে করোনা ভাইরাসের দাপট।  স্কুলে 'মাস্ক মাস্ট'। কুড়ি মাস পর খুলেছে স্কুল গেট। বেজেছে স্কুল খোলার ঘণ্টা। আবারও বাড়ির দরজায় এসে দাঁড়াতে শুরু করেছে স্কুল বাস। পড়ুয়ারা পা রেখেছে তাদের প্রিয় স্কুলের চৌহদ্দিতে। শহরের নামি দামি স্কুলগুলিতে দেখা মিলছে সেই ছবি। ফের করোনার ভ্রুকুটি। চিন্তার ভাঁজ স্কুল কর্তৃপক্ষ থেকে শুরু করে পড়ুয়া এবং অভিভাবকদের কপালে। সরকারের তরফ থেকে কোভিড বিধি মেনে স্কুল চালুর উদ্যোগ নেওয়া হলেও অনেকেই এখনও অসচেতন। কিন্তু পড়ুয়াদের সুরক্ষার কথা ভেবে শহরের বেশ কিছু স্কুল কড়া পদক্ষেপ করেছে।

ডিপিএস রুবি পার্ক, বালিগঞ্জ শিক্ষা সদন, সেন্ট জেভিয়ার্স স্কুলের পাশাপাশি  লা মাটস স্কুল কর্তৃপক্ষ নোটিস দিয়েছে। মাস্ক ছাড়া ক্লাসরুম ও স্কুলে অনুমতি নয়। কলকাতা শহরের একাধিক স্কুলে গিয়ে দেখা গেল, পড়ুয়াদের সুরক্ষার কথা ভেবে সেই কোভিড বিধির পুরনো ছবি। বালিগঞ্জ শিক্ষা সদনের প্রিন্সিপাল সুনিতা সেন বলেন, 'আমরা পড়ুয়াদের সুরক্ষার বিষয়ে কোনও রকম আপোশ করতে রাজি নই। শ্রেণিকক্ষে পড়ুয়াদের পাশাপাশি শিক্ষকদেরও মাস্ক পরে ক্লাস নেওয়ার নির্দেশ জারি করা হয়েছে। এমনকি কোনও পড়ুয়া বা অভিভাবক যদি মাস্ক না নিয়ে স্কুলে আসে তাদেরকে আমরা স্কুল থেকেই মাস্ক দিচ্ছি। কিন্তু কোনও অবস্থাতেই মাস্ক ছাড়া স্কুলে ঢোকার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না'।

স্কুলের ভাইস প্রিন্সিপাল সুদেষ্ণা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথায়, শুধু পড়ুয়ারাই নয়৷ টিচিং, নন টিচিং স্টাফ প্রত্যেকের ক্ষেত্রেই একই নিয়ম লাগু করা হয়েছে। মাস্কের পাশাপাশি হ্যান্ড স্যানিটাইজার, থার্মাল গান দিয়ে শরীরের  তাপমাত্রা পরীক্ষা, সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনে স্কুল পরিচালনার ক্ষেত্রে সব বিধি মেনে চলা হচ্ছে'। শিক্ষা মহলের বক্তব্য, 'দীর্ঘদিন স্কুল বন্ধ থাকায় অনলাইনে পঠনপাঠন জারি থাকলেও পড়াশোনার মান কমেছে। তাই এই মুহূর্তে যেহেতু করোনা ভাইরাসের দাপট ফের মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে তাই সমস্ত স্কুলেরই পুরোদমে করোনা বিধি মেনে চলা উচিত। প্রত্যেককে এ ব্যাপারে সচেতন হওয়া উচিত। করোনা বিধি মানার ক্ষেত্রে আরও কড়া পদক্ষেপ নেওয়া উচিত সরকারের'।

Published by:Rachana Majumder
First published:

পরবর্তী খবর