corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা সতর্কতায় পিছিয়ে যাচ্ছে পুরভোট, সিদ্ধান্ত রাজ্য নির্বাচন কমিশনের

করোনা সতর্কতায় পিছিয়ে যাচ্ছে পুরভোট, সিদ্ধান্ত রাজ্য নির্বাচন কমিশনের

করোনাভাইরাসের জের। পুরভোট পিছনো নিয়ে এক সুর যুযুধান তৃণমূল ও বিজেপির।

  • Share this:

#কলকাতা: করোনা সতর্কতায় পুরভোট পিছনোর দাবি আগেই তুলছিল তৃণমূল। এক্ষেত্রে অন্য দলগুলিকেও পাশে চায় ঘাসফুল শিবির। আজ, সোমবার নির্বাচন কমিশনের ডাকা সর্বদল বৈঠকের পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবে কমিশন। করোনা সতর্কতায় ভোট প্রচার নিয়ে জটিলতা ৷ ভোটপ্রস্তুতিতেও বাধা করোনা ৷

করোনা সতর্কতায় বন্ধ স্কুল-কলেজ। বড় জমায়েতে না করার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। এই পরিস্থিতিতে এপ্রিলে পুরভোট করার মতো পরিস্থিতি কি আছে? উত্তরের খোঁজে সোমবার সর্বদল বৈঠকের ডাক দিয়েছে রাজ্য নির্বাচন কমিশন। তার ঠিক আগেই পুরভোট পিছনোর পক্ষে জোর সওয়াল শাসক দল তৃণমূলের। রবিবার রাতে তৃণমূলের বিবৃতি,- এই সঙ্কটের পরিস্থিতিতে রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে পুরভোট পিছনোর আর্জি জানাচ্ছি। মহামারীর মোকাবিলায় সব রাজনৈতিক দলগুলিকে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করতে হবে ৷

করোনাভাইরাসের জের। পুরভোট পিছনো নিয়ে এক সুর যুযুধান তৃণমূল ও বিজেপির। রাজ্যব্যাপী আসন্ন পুরভোট নিয়ে আজ, সোমবার রাজ্য নির্বাচন কমিশন সর্বদল বৈঠক ডেকেছে। সেই বৈঠকেই বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনা করে পুরভোট আপাতত স্থগিত করার পক্ষে মতামত দেবে রাজ্যের শাসক দল। একই কথা জানাতে পারে গেরুয়া শিবিরও। জোট সঙ্গী কংগ্রেসের সঙ্গে আলোচনা করেই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানানো হবে বলে স্পষ্ট করেছে বামেরা।

করোনা-সঙ্কটে পুরভোট পিছোলে যে আপত্তি নেই, তা আগেই স্পষ্ট করে দিয়েছে বিজেপি-কংগ্রেস। এক্ষেত্রে বামেদের অবস্থান একেবারে উল্টো।বামেরা ভিন্নসুরে গাইলেও, পুরভোট পিছনোর প্রশ্নে বিরোধী দলগুলিকে পাশে চায় তৃণমূল। শাসক দলের বিবৃতিতেই এই কৌশল স্পষ্ট। নির্বাচন যাবে-আসবে। এই সংকটের পরিস্থিতিতে রাজনীতি ভুলে সব দলগুলিকে হাতে হাত মিলিয়ে কাজ করা উচিৎ ৷ সোমবার কমিশনের ডাকা সর্বদল বৈঠক। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, সর্বদল বৈঠকে শাসক ও প্রধান প্রতিপক্ষ একসুরে কথা বললে, পুরভোট পিছিয়ে যাওয়া কার্যত অবধারিত।

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: March 16, 2020, 11:50 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर