corona virus btn
corona virus btn
Loading

লকডাউনে সাধারণ মানুষকে বাড়িতে আটকে রাখতে এবার ত্রাণের সঙ্গে বিলি হচ্ছে এই জিনিসগুলিও

লকডাউনে সাধারণ মানুষকে বাড়িতে আটকে রাখতে এবার ত্রাণের সঙ্গে বিলি হচ্ছে এই জিনিসগুলিও

লক ডাউনের শুরুতে যেখানে যা দান তারা পেয়েছে সবই চাল ডাল আর আলুর মধ্য সীমিত ছিল। এবার তার সঙ্গে মিলল লুডো ও দাবাও

  • Share this:
 #বারাসত: ত্রান আর দান চারিদিকে ছড়াছড়ি। চাল আলুর বন্যা। তবু বুভুক্ষু মানুষের ভিড়ও সব জায়গায়। দিন আনা দিন খাওয়া মানুষ গুলির কাছে এই লক ডাউন এক অভিশাপ।যেখানেই দান বা ত্রানের খবর আসছে, কাজ হারানো মানুষ ঠিক পৌছে যাচ্ছে সেখানে।হতদরিদ্র এই মানুষ গুলির কাছে সামাজিক দূরত্ব বাতুলতার মত। তবু সকাল সকাল দানের লাইন দাঁড়িয়ে পড়া।আর দান নিয়ে বাড়ি ফেরার পথ এই দিন জমক ছিল বারাসাত ১১ নং ওয়ার্ডে গ্রাহিতাদের মধ্যে।লক ডাউনের শুরুতে যেখানে যা দান তারা পেয়েছে সবই চাল ডাল আর আলুর মধ্য সীমিত ছিল।কিন্তুু এই দিন সকালে বারাসাত ১১ ওয়ার্ডের সজল,তুহিন,কৌশিক রা তাদের দানের সামগ্রীর মধ্যে রেখেছে লুডো ও দাবা খেলার সরঞ্জামও । পাড়ার কয়েকজন যুবক মিলে লক ডাউনে মানুষের পাশে দাঁড়াতে চেয়ে সিদ্ধান্ত নেয় সামর্থ্য মত তারাও চাল আর আলু বিলাবেন।তাদের মধ্যে একজন প্রথম প্রস্তাবটা দেয় চালু আর আলু তো দেবোই। কিন্তুু লক ডাউনে গরীবরা যাতে বেশী সময় সহজেই ঘরে কাটায় তার জন্য লুডো ও দাবা দিলে কেমন হয়।এই প্রস্তাব লুফে নেয় অন্যরা।লক ডাউনের এই সময় শহর জুরে খুঁজে আনেন ১০০ দাবা ও লুডোর বোর্ড ও গুটি ৷ এই সব সামগ্রীর সঙ্গে চাল আলু ডাল ও তেল নিয়ে ওয়ার্ডের গরীব মানুষের মধ্যে সকাল থেকে বিলি করা শুরু করে তারা।তুলি ঘোষ লাইনে দাঁড়িয়ে জানতে পাড়েন তাদের চাল আলুর সঙ্গে দেওয়া হবে দাবা ও লুডো।চমকে ওঠেন ৷ তিনি সামনে দাদার থেকে চাল ব্যাগে ভরার সময় জানতে পাড়েন লুডোর রহস্য।সজল,জন দের পরিস্কার ফরমান,এবার বাড়ি গিয়ে সবার সঙ্গে লুডো খেলুনকিন্তুু প্রাণে বাঁচতে হলে ঘরে সময় কাটানোটাই এক মাত্র পথ।তাই লুডো আর দাবা দেওয়া হয়েছে সেই গুলি নিয়ে পরিবারের সঙ্গে সুন্দর সময় কাটাও।কোন ভাবে ঘরের বাইরে এসো না।সজলে দাসের কথায় মানুষ শুধু টিভি দেখে দেখ বোর হয়ে যাচ্ছে। তাই লক ডাউনের বাজারে তারা চাল আর আলুর সঙ্গে লুডো ও দাবা বিলি করলেন । যাতে পরিবারের সবাই মিলে এই কঠিন  সময় ঘরেই কাটাতে পারে। Rajorshi Roy
First published: April 6, 2020, 11:44 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर