corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা যুদ্ধে বাঙালির লড়াইয়ে আত্মবিশ্বাস বাড়াতে আসছে করোনা সন্দেশ ও কেক !

করোনা যুদ্ধে বাঙালির লড়াইয়ে আত্মবিশ্বাস বাড়াতে আসছে করোনা সন্দেশ ও কেক !
Representational Image

দেখতে হবে অবিকল করোনা ভাইরাসের মত। তবে তা অদৃশ্য ভাইরাস নয়, সুন্দর নরম গরম পাকের করোনা সন্দেশ।

  • Share this:

#কলকাতা: করোনা যুদ্ধে বাঙালির লড়াইয়ে আত্মবিশ্বাস বাড়াতে আসছে করোনা সন্দেশ ও কেক।

দেখতে হবে অবিকল করোনা ভাইরাসের মত। তবে তা অদৃশ্য ভাইরাস নয়, সুন্দর নরম গরম পাকের করোনা সন্দেশ।  মুখ, গলা হয়ে যখন তৃপ্তির ঢেঁকুর তুলবে করোনা থুড়ি সন্দেশ তখন বাঙালির আত্মবিশ্বাসও এক লহমায় বেড়ে যাবে অনেকটাই। করোনা খেয়ে হজম করে নিতে পারলে তাকে ভয় পাবো কেন! করোনা যুদ্ধে বাঙালির লড়াইয়ের আত্মবিশ্বাস বাড়াতেই এমন অভিনব ভাবনা যাদবপুর হিন্দুস্তান সুইটস- এর কর্ণধারের। করোনা সন্দেশের পাশাপাশি থাকছে করোনা কেক-ও। করোনা কেক-ও দেখতে হবে করোনা ভাইরাস এর মতনই।

করোনা সন্দেশ হবে প্রমাণ সাইজের। স্বাদে, গন্ধে, বর্ণে করোনা সন্দেশ হবে অতুলনীয়। তুলনায় করোনা কেক হবে আকারে একটু বড়। যা বেশ কয়েকদিন বাড়িতে রেখে খেতে পারবেন।  বিনামূল্যে করোনা কেক ও সন্দেশ দেওয়ার সিদ্ধান্ত হিন্দুস্তান সুইটস কর্ণধার রবীন্দ্র কুমার পালের। সোমবার থেকে যারা মিষ্টি কিনবেন সেইসব ক্রেতাদের বিনামূল্যে দেওয়া হবে করোনা কেক ও সন্দেশ। ৫ এপ্রিল, ২০২০ রবিবার  বিকেলেই প্রথমবারের জন্য সামনে আসবে করোনা কেক ও সন্দেশ। অভিনব ভাবনা যাঁর সেই রবীন্দ্র কুমার পাল বলছেন, ‘উই আর ফাইটিং এগেন্স্ট করোনা, উই শ্যাল ওভারকাম করোনা...’, এমন একটা আত্মবিশ্বাসী বার্তা সর্বত্র পৌঁছে দিতেই করোনা সন্দেশ ও কেকে'র ভাবনা। তিনি চান, সবাই একজোট হয়ে লড়াই করুক মারণ ভাইরাসের বিরুদ্ধে।

করোনা যুদ্ধের লড়াইয়ে আসলে কোনও ভাবেই হারতে রাজি নন রবীন বাবু। ইতিমধ্যেই মুখ্যমন্ত্রী বিশেষ তহবিলে দান করেছেন ১ লক্ষ টাকা। ঢাকুরিয়ার নিজের পুরো বাড়ি করোনা চিকিৎসার প্রয়োজনে ছেড়ে দিতে চান। চিকিৎসক,  পুলিশের মতন তিনিও একজন সত্যিকারের করোনা হীরো। বেসরকারি চাকুরে দীপান্বিতা বাগচি'র কথায়, " বর্তমান সময়ে এমন মানুষের দেখা পাওয়া খুবই গর্বের। বাঙালি নয় দেশের করোনা লড়াইয়ে উনিও একজন অন্যতম যোদ্ধা।" যাই হোক সোমবার পর্যন্ত অপেক্ষায় বাঙালি করোনা সন্দেশ ও কেক চেখে দেখার জন্য।

Arnab Hazra

First published: April 4, 2020, 6:25 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर