• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • করোনা আক্রান্ত বৃদ্ধ হাসপাতালের বেড থেকে নিখোঁজ, কাঠগড়ায় কলকাতা মেডিক্যাল

করোনা আক্রান্ত বৃদ্ধ হাসপাতালের বেড থেকে নিখোঁজ, কাঠগড়ায় কলকাতা মেডিক্যাল

কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে তাঁরা সিসিটিভি ফুটেজ দেখে বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।

কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে তাঁরা সিসিটিভি ফুটেজ দেখে বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।

কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে তাঁরা সিসিটিভি ফুটেজ দেখে বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।

  • Share this:

ABHIJIT CHANDA

#কলকাতা: আবারও কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে করোনা আক্রান্ত রোগী নিখোঁজ। উত্তর কলকাতার পাইকপাড়ার বাসিন্দা নিতাই চন্দ্র ধাওয়া, ৭৩ বছর বয়স। গত শুক্রবার অসুস্থ বোধ করায় স্থানীয় চিকিৎসককে দেখালে ধরা পড়ে, ফুসফুসের সংক্রমণ রয়েছে । সঙ্গে অক্সিজেনের মাত্রা অনেকটাই কম হওয়ায় সেই চিকিৎসক তাঁকে দ্রুত হাসপাতালে ভর্তি করার পরামর্শ দেন। সেই মতো তাঁকে আরজিকর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে জরুরি বিভাগে চিকিৎসকরা দেখার পর তাঁকে আইসোলেশন ওয়ার্ডে রেখে নভেল করোনাভাইরাস পরীক্ষা করতে দেয়। রবিবার রিপোর্ট এলে দেখা যায় পজিটিভ। সরকারি নিয়ম অনুযায়ী করোনা আক্রান্ত হলে আরজিকর হাসপাতাল থেকে সেই রোগীকে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।

রবিবার সকালে নিতাইবাবুকে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের তিনতলায় ২০৫ নম্বর বেডে ভর্তি করানো হয়। বিকেলেই হাসপাতাল থেকে বাড়ির লোককে ফোন করে বলা হয়, রোগী কোনও মতেই হাসপাতালে থাকতে চাইছেন না, পরিবারের লোকজন যেন রোগীকে বাড়ি নিয়ে যান। নিতাইবাবুর পরিবারের লোকজন হাসপাতালকে জানায় তাঁদের পক্ষে রোগীকে বাড়ি নিয়ে আসা সম্ভব নয়, কারন বাড়িতে আলাদা কোনও ঘর নেই।

এরপর মঙ্গলবার সকালে বাড়ির লোক নিতাইবাবুর জন্য মোবাইল ফোন, খাবার সহ অন্যান্য জিনিস দিতে এলে দীর্ঘক্ষণ পরে জানতে পারেন রোগী বেডে নেই। চিকিৎসকদের সঙ্গে দেখা করার পর তাঁরা জানতে পারেন সকাল থেকেই নিতাইবাবুকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ে নিতাইবাবুর পরিবারের সদস্যদের। পরিবারের সদস্যরা প্রথমে হাসপাতালের ভেতরে থাকা বউ বাজার থানার পুলিশ ফাঁড়িতে জানতে চায়। কিন্তু সেখান থেকে কোনও সদুত্তর না পাওয়ায় তাঁরা হাসপাতাল সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। নিখোঁজ করোনা আক্রান্ত রোগী নিতাই চন্দ্র ধাওয়ারের কন্যা আনন্দী সরকার বলেন, "এত বড় একটা হাসপাতাল। এত নিরাপত্তা, এমার্জেন্সির সামনে ২৪ ঘন্টা পুলিশি পাহারা, প্রত্যেকটা ওয়ার্ডে নিরাপত্তারক্ষী, তবু আমার বাবা কীভাবে নিখোঁজ হলেন? ভাবতেই পারছিনা, যে মানুষটাকে সুস্থ করে নিয়ে যাব ভেবেছিলাম, তাঁকে এখনও খুঁজেই পাচ্ছিনা। মাথার কী আর ঠিক আছে!" কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে তাঁরা সিসিটিভি ফুটেজ দেখে বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।

Published by:Simli Raha
First published: