হাসপাতালে চুক্তি ভিত্তিক স্বাস্থ্যকর্মীদের বিক্ষোভ ! ভোটের মুখে চাপে সরকার

হাসপাতালে চুক্তি ভিত্তিক স্বাস্থ্যকর্মীদের বিক্ষোভ ! ভোটের মুখে চাপে সরকার
সমকাজ সমবেতনের মর্যাদা দিতে হবে। তাঁদের ঠিকা কর্মী হিসাবে না রেখে স্বাস্থ্যকর্মী হিসাবে সম্মান দিতে হবে ।

সমকাজ সমবেতনের মর্যাদা দিতে হবে। তাঁদের ঠিকা কর্মী হিসাবে না রেখে স্বাস্থ্যকর্মী হিসাবে সম্মান দিতে হবে ।

  • Share this:

#কলকাতা: সরকারি হাসপাতালে গেলে যে সমস্ত নীল  জামা,প্যান্ট পরা নিরাপত্তা রক্ষী ও ওয়ার্ড বয়, ও সেবিকা দেখেন,তাঁরা প্রত্যেকেই চুক্তি ভিত্তিক কর্মচারী। আজ তাঁরা হাসপাতালে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন।   রাজ্য সৈনিক বোর্ড পরিচালিত , এক্স সার্ভিস ম্যান রি - সেটেলমেন্ট সোসাইটির মাধ্যমে দীর্ঘ্য ১৮ বছর ধরে সারা পশ্চিম বঙ্গে ৩৪৪২ জন চুক্তি ভিত্তিক কর্মী কাজ করছেন ।তার মধ্যে পি জি হাসপাতালে কাজ করছে ৯৪০ জন।প্রথম থেকে আজ অবধি ৭৩০০ টাকা হারে বেতন পেয়ে আসছেন তাঁরা। করোনা কালে এরাই পরিষেবার মুখ্য দায়িত্ব নিয়েছিলেন।এর মধ্যে কেউ করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন।   এই কর্মীরা প্রতিদিন তাদের কর্মস্থলে বিভিন্ন জেলা থেকে আসেন।যাতায়াত ,টিফিন বাবদ দূরত্ব অনুযায়ী, প্রায় দুহাজার টাকা চলে যায়। তার পর ,বেতনের যে সামান্য টাকা টুকু থাকে,তাতে দুবেলা ঠিক মত সংসার চলে না। এমনকি ছেলে মেয়েদের শিক্ষা দিতে পারেন না।   সেই দাবীতে আজ তাঁরা পিজি হাসপাতালে অবস্থানে বসেন ।

তাঁদের দাবী ,তাঁরা স্বাস্থ্য পরিষেবা সচল রেখেই অবস্থান করছিলেন। তাঁরা দাবী করেন, সম কাজ সমবেতনের মর্যাদা দিতে হবে। তাঁদের ঠিকা কর্মী হিসাবে না রেখে স্বাস্থ্যকর্মী হিসাবে সম্মান দিতে হবে ।   ওই ঠিকা কর্মীরা এও দাবী করেন, যতক্ষণ পর্যন্ত মুখ্যমন্ত্রীর তরফ থেকে, দাবীর বিষয়ে সদুত্তর ও আশ্বাস বাণী না আসবে, ততক্ষণ অবধি তারা অবস্থান চালিয়ে যাবেন।   অবশেষে , কলকাতা পুলিশের ডিসি সাউথ পি সুধাকর ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছান।তিনি হাসপাতাল কতৃপক্ষ ও অন্দোলন কারীদের সঙ্গে কথা বলেন, স্থির করেন বেলা দুটোর সময় চার জনের প্রতিনিধি দল স্বাস্থ্য ভবনে পাঠানোর।পুলিশের পক্ষ থেকে তাদেরকে নির্দিষ্ট সময়ে স্বাস্থ্য ভবনে নিয়ে যায়।   স্বাস্থ্য দফতর থেকে ফিরে,কর্মীদের নেতা নিমাই প্রতিহার জানান,' স্বাস্থ্য কর্তা কথা দিয়েছেন,এক সপ্তাহের মধ্যে বিষয়টি নিয়ে সদর্থক সিদ্ধান্ত জানাবেন। যদি না জানায়,তাহলে , কর্মীরা স্বাস্থ্য ভবনের সামনে গিয়ে আন্দোলন করবেন। '

SHANKU SANTRA


Published by:Piya Banerjee
First published: