রাহুলের পর সংসদে কংগ্রেস দলনেতা নির্বাচিত অধীর, শুভেচ্ছা জানালেন সৌমেন মিত্র সহ কংগ্রেস নেতাদের

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jun 18, 2019 09:10 PM IST
রাহুলের পর সংসদে কংগ্রেস দলনেতা নির্বাচিত অধীর, শুভেচ্ছা জানালেন সৌমেন মিত্র সহ কংগ্রেস নেতাদের
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jun 18, 2019 09:10 PM IST

#কলকাতা: লোকসভায় কংগ্রেসের ভার রাজ্যের এক সাংসদের ওপর। লোকসভায় কংগ্রেস দলনেতা হলেন অধীর চৌধুরী। প্রণব মুখোপাধ্যায়ের পর দ্বিতীয় বাঙালি হিসাবে লোকসভায় কংগ্রেস দলনেতা মনোনীত হলেন বহরমপুরের সাংসদ। প্রবল চাপের মুখে বহরমপুর কেন্দ্র থেকে জিতে আসারই স্বীকৃতি পেলেন পাঁচবারের সাংসদ। অধীরের এই সাফল্যে উচ্ছ্বাসে মাতলেন রাজ্যের কংগ্রেস নেতা ও কর্মী-সমর্থকেরা ৷ শুভেচ্ছা বার্তা পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সৌমেন মিত্র ৷

বহরমপুরে কংগ্রেস কার্যালয়ে উৎসব। উচ্ছ্বল কংগ্রেস নেতা-কর্মীরা। লোকসভায় কংগ্রেস দলনেতা হিসাবে বিজেপির সঙ্গে টক্কর দেওয়ার ভার অধীর চৌধুরীকে দিলেন সোনিয়া গান্ধি।

লোকসভায় কংগ্রেস দলনেতা নির্বাচিত হয়ে ইতিহাস তৈরি করলেন বহরমপুরের সাংসদ। এর আগে কংগ্রেস কেন্দ্রে ক্ষমতায় থাকার সময় প্রণব মুখোপাধ্যায় লোকসভার দলনেতা নির্বাচিত হন। কিন্তু বিরোধী শিবিরে থাকার সময় বাঙালি হিসেবে অধীর চৌধুরীই প্রথম লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা। এই দায়িত্ব যে তাঁকে দেওয়া হতে পারে, গত কয়েকদিনে তার ইঙ্গিত মিলছিল।

সংসদ শুরুর আগে সর্বদল বৈঠকে কংগ্রেসের প্রতিনিধি ছিলেন অধীর চৌধুরী ৷ বহরমপুরের সাংসদের সঙ্গে আলোচনা করেন সোনিয়া ৷ কখনও বাম, কখনও তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়ে পরপর পাঁচবার লোকসভার সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন অধীর চৌধুরী। উনিশের ভোটে প্রবল চাপের মুখেও নিজের কেন্দ্র ধরে রাখতে সফল পোড়খাওয়া রাজনীতিবিদ।

1446a2bd-2cbb-4cba-a997-fbddafd3684c

Loading...

সোমবারই অধীরের লড়াকু মানসিকতার প্রশংসা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তাঁর উপরই মোদির সঙ্গে টক্কর দেওয়ার ভার দিলেন সোনিয়া-রাহুল গান্ধিরা। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করছেন, অধীর চৌধুরীই এই মুহূর্তে লোকসভায় কংগ্রেসের সেরা বাজি। তাই অধীরকে বাছা ছাড়া সোনিয়া-রাহুলের উপায়ও ছিল না।

জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া, মিলিন্দ দেওরার মতো রাহুল ঘনিষ্ঠ নেতারা ভোটে হেরেছেন ৷ গতবারের দলনেতা মল্লিকার্জুন খাগড়েও পরাজিত ৷ চিদম্বরম, এ কে অ্যান্টনি, গুলাব নবি আজাদরা রাজ্যসভার সদস্য ৷

শশী থারুর বা পি সুরেশের নাম জল্পনায় থাকলেও তাঁদের কারও ওপরই ভরসা রাখতে পারেনি কংগ্রেস হাইকম্যান্ড। বদলে বেছে নেওয়া হয় কখনও প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি, কখনও কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর দায়িত্ব সামলানো বহরমপুরের সাংসদকে। এবার সম্ভবত আরও কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে অধীর চৌধুরী। ৫২ জন সাংসদকে নিয়ে বিজেপির ৩০৩ সাংসদের মোকাবিলার চ্যালেঞ্জ।

First published: 09:01:28 PM Jun 18, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर