• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • বাংলার ২০টি উড়ালপুল মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়েছে, জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

বাংলার ২০টি উড়ালপুল মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়েছে, জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব চিত্র

  • Share this:

    #কলকাতা: মাঝেরহাট সেতুতে দুর্ঘটনার পর উঠেছে বহু প্রশ্ন । তৈরি হয়েছে একের পর এক আশঙ্কা ৷ শহরের অন্য ব্রিজের হাল নিয়েও সংশয় বাড়ছে সাধারণ মানুষের মনে । নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন নিত্যযাত্রীরা । এই অবস্থায় ব্রিজগুলির রক্ষণাবেক্ষণে ব্যবস্থা নিচ্ছে রাজ্য সরকার । সেতুতে নিষিদ্ধ হচ্ছে ভারি যান চলাচল । তৈরি হচ্ছে একাধিক মনিটারিং কমিটি ।

    মাঝেরহাট দুর্ঘটনা থেকে শিক্ষা নিচ্ছে রাজ্য সরকার । শহরের লাইফলাইন ব্রিজগুলির রক্ষণাবেক্ষণে তাই একগুচ্ছ সিদ্ধান্ত নিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । মাঝেরহাটের ব্রিজ ভাঙার পর উচ্চপর্যায়ের বৈঠকে উঠে এল একের পর এক তথ্য ৷ তারমধ্যেই উঠে এল ২০টি উড়ালপুলের ঘটনা ৷ রক্ষণাবেক্ষণ, মেরামতি ছাড়াও একাধিক ইস্যুতে লাল সতর্কতা জারি হল এই ২০টি উড়ালপুলে ৷ অত্যাধিক ভার বহনেই ক্ষমতা কমছে ব্রিজের । যার ফলে যেকোনও মুহূর্তে ঘটে যেতে পারে বড়সড় দুর্ঘটনা ৷ এই অভিযোগের প্রেক্ষিতেই নতুন নির্দেশিকা তৈরি করল রাজ্য সরকার ৷

    শিয়ালদহ থেকে রাসবিহারী ৷ উল্টোডাঙা থেকে বেলগাছিয়া ৷ শহরের একাধিক সেতুর বয়স কোন চার ৷ কিংবা কোনওটি পাঁচ দশক বা তারও বেশি পুরনো ৷ এই তালিকায় রয়েছে ঢাকুড়িয়া, চিংড়িহাটা, সাঁতরাগাছি ব্রিজও ৷ এই অবস্থায় ব্রিজ নিয়ে একটি সুসংহত নীতি তৈরি করছে রাজ্য সরকার ।

    আরও পড়ুন:  মাঝেরহাট ব্রিজ বিপর্যয়ের জেরে মেট্রোর কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর

    ব্রিজ মেরামতির ক্ষেত্রে অনেক সময়ই বাধার মুখে পড়তে হয়েছে রাজ্য প্রশাসনকে । কখনও সেখানে ঝুপড়ি বেঁধে বেশ কিছু মানুষ থাকতে শুরু করেছেন ৷ আবার কিছু কিছু ক্ষেত্রে বিক্রেতাদের সরানো যাচ্ছে না ব্রিজ থেকে ৷ এমন ঘটনায় স্থানীয় মানুষদের সহযোগিতা করার আবেদনও জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী । ব্রিজের রক্ষণাবেক্ষণ ও মেরামতিই আপাতত রাজ্যের অগ্রাধিকার । জোড়াতাপ্পি দিয়ে মেরামতি নয় ৷ বরং বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ মেনেই প্রয়োজনীয় রক্ষণাবেক্ষণ হবে শহরের ব্রিজগুলোর । যাত্রী সুরক্ষায় যাতে কোনও ফাঁক না থাকে, তা নিশ্চিত করতে চাইছে রাজ্য প্রশাসন । ​

    প্রসঙ্গত, মাঝেরহাট ব্রিজ দুর্ঘটনা কাণ্ডে নবান্নে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ ব্রিজ পর্যবেক্ষণে বিভিন্ন দফতরের আলাদা আলাদা সেল তৈরি করা হবে ৷ সেই সেলে পূর্ত দফতর, নগরোন্নায়ন, পিএইচই এবং কলকাতা পুলিশ কমিশনার ও বিশেষজ্ঞরা থাকবেন ৷ এর পাশাপাশি মাঝেরহাট কাণ্ডে পূর্ত দফতরের কাজে উষ্মাপ্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী ৷ পূর্ত দফতরকে আরও সক্রিয় হওয়ার নির্দেশ দেন তিনি ৷ পাশাপাশি, প্রাক্তন পূর্ত সচিব ইন্দিবর পাণ্ডের কাজেও নবান্নের বৈঠকে ক্ষোভ প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী ৷

    First published: