• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • মহালয়ার শুভেচ্ছা জানাতে অভিনব ট্যুইট মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

মহালয়ার শুভেচ্ছা জানাতে অভিনব ট্যুইট মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

আজ মহালয়া ৷ পিতৃপক্ষের শেষ, দেবীপক্ষের শুরু ৷

আজ মহালয়া ৷ পিতৃপক্ষের শেষ, দেবীপক্ষের শুরু ৷

আজ মহালয়া ৷ পিতৃপক্ষের শেষ, দেবীপক্ষের শুরু ৷

  • Share this:

    #কলকাতা: আজ মহালয়া ৷ পিতৃপক্ষের শেষ, দেবীপক্ষের শুরু ৷ শুক্রবার থেকেই পুজোর ঢাকে কাঠি ৷ শুরু হল মা দুর্গা আগমনের চুড়ান্ত মুহূর্তের কাউন্টডাউন ৷ উৎসবের শুভক্ষণে ট্যুইটারে অভিনব শুভেচ্ছাবার্তা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ৷

    বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রের মহিষাসুরমর্দিনীর নির্বাচিত অংশের সঙ্গে চক্ষুদানের ছবি পোস্ট করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লিখেছেন, ‘দেবীপক্ষের শুভক্ষণে, মায়ের আশিস আসুক প্রাণে ৷’ মহালয়া দিয়েই শুরু দুর্গা আহবান ৷

    মহালয়ার মাধ্যমে দেবী দুর্গা আজ পা রেখেছেন মর্ত্যলোকে। বছর ঘুরে আবারও উমা দেবী আসছেন তার বাপের বাড়ি। পুরাণমতে, অশুভ অসুর শক্তির কাছে পরাভূত দেবতারা স্বর্গলোকচ্যুত হওয়ার পর চারদিকে শুরু হয় অশুভ শক্তির প্রতাপ। এই অশুভ শক্তিকে বিনাশ করতে একত্র হন দেবতারা। তখন দেবতাদের তেজরশ্মি থেকে আবির্ভূত হন অসুরবিনাশী দেবী দুর্গা। মহালয়ার সময় ঘোর অমাবস্যা থাকে। তখন দুর্গা দেবীর মহাতেজের আলোয় সেই অমাবস্যা দূর হয়। প্রতিষ্ঠা পায় শুভশক্তি।

    শাস্ত্রমতে, হিমালয়ের কৈলাশ থেকে সুদূর পথ পাড়ি দিয়ে প্রতিবছর দুর্গা দেবী আসেন সমতল ভূমির এই বাংলায়। সঙ্গে নিয়ে আসেন গণেশ, কার্তিক, লক্ষ্মী আর সরস্বতীকে। প্রতিবছরের শরৎকালে দেবী দুর্গার এই আগমন হয় নিজ ভূমিতে। বিশুদ্ধ পঞ্জিকামতে, এবার দুর্গা দেবী আসছেন ‘ঘোটক’-এ চড়ে। গমনও করবেন একই বাহনে। ফল-ছত্রভঙ্গস্তুরঙ্গমে। হিন্দু শাস্ত্রমতে দেবী দুর্গার আবাহনই মহালয়া হিসেবে পরিচিত। মহালয়া দুর্গোৎসবের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। ষষ্ঠী পূজার মাধ্যমে শারদীয় দুর্গোৎসবের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হলেও মূলত আজ থেকেই পূজারীরা দুর্গা মায়ের আগমন ধ্বনি শুনতে পাবেন। হিন্দু ধর্মমতে, মহালয়ার দিনে দেব-দেবীকুল দুর্গাপূজার জন্য নিজেদের জাগ্রত করেন। শাস্ত্রীয় বিধান মতে, মহালয়ার দু’টি পর্ব রয়েছে, একটি পিতৃপক্ষ, অন্যটি দেবীপক্ষ। অমাবস্যা তিথিতে পিতৃপক্ষের শেষ হয়, আর প্রতিপদ তিথিতে শুরু হয় দেবী পক্ষের। আজ মহালয়া দিয়ে আরম্ভ হচ্ছে সেই দেবীপক্ষ। এদিন গঙ্গাতীরে প্রার্থনা করে ভক্তরা মৃত আত্মীয়স্বজন ও পূর্বপুরুষদের আত্মার মঙ্গল কামনা করেন।

    First published: