• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • বঞ্চিত বাংলা, ‘ভোট জিততে শুধু বাংলা বললেই হয় না’, মোদিকে কটাক্ষ মমতার

বঞ্চিত বাংলা, ‘ভোট জিততে শুধু বাংলা বললেই হয় না’, মোদিকে কটাক্ষ মমতার

অনেকে টেলিপ্রম্পটারের সাজানো লেখা দেখে ভাষণ দেন।  ‘আমি সরকারের পয়সায় এক কাপ চাও খাইনি ৷ পিএম কেয়ার্সের টাকা কোথায় যাচ্ছে? আগে সে জবাব দিন ৷’ মমতার জবাব

অনেকে টেলিপ্রম্পটারের সাজানো লেখা দেখে ভাষণ দেন। ‘আমি সরকারের পয়সায় এক কাপ চাও খাইনি ৷ পিএম কেয়ার্সের টাকা কোথায় যাচ্ছে? আগে সে জবাব দিন ৷’ মমতার জবাব

অনেকে টেলিপ্রম্পটারের সাজানো লেখা দেখে ভাষণ দেন। ‘আমি সরকারের পয়সায় এক কাপ চাও খাইনি ৷ পিএম কেয়ার্সের টাকা কোথায় যাচ্ছে? আগে সে জবাব দিন ৷’ মমতার জবাব

  • Share this:

#কলকাতা: মুখ্যমন্ত্রীর নিশানায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও কেন্দ্রীয় সরকার থেকে রাজ্যের গেরুয়া শিবির ৷ নবান্নের সাংবাদিক বৈঠক থেকেই টাকা নয়ছয়ের অভিযোগের কড়া জবাব দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ বললেন, ‘আমি সরকারের পয়সায় এক কাপ চাও খাইনি ৷ পিএম কেয়ার্সের টাকা কোথায় যাচ্ছে? আগে সে জবাব দিন ৷’ অন্যদিকে, রাজ্যের মানুষের জন্যেও মঙ্গলবার সাংবাদিক বৈঠক থেকে একাধিক ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷

বহিরাগত ইস্যুতে ফের কেন্দ্রের শাসকদল বিজেপিকে বিঁধলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সাংবাদিক বৈঠকে ফের কেন্দ্রের বিরুদ্ধে রাজ্যকে বঞ্চনার অভিযোগে সরব হয়েছেন তিনি। কেন্দ্রীয় প্রকল্প থেকে রাজ্যের মানুষকে বঞ্চিত করা হচ্ছে ৷ বিজেপির ওই অভিযোগের জবাবে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলা বঞ্চিত দিল্লির কাছে। রাজ্যের যে প্রকল্প চলছে, তা বিজেপির কথায় করব কেন? কেন্দ্রীয় সরকার এজেন্সি দিয়ে প্রতিমুহূর্তে হয়রানি করে। ৮০ শতাংশ রাজ্যের থেকে নিয়ে রাজা হলাম, হবে না। রাজ্য সরকার কৃষকদের সব ব্যাপারে সাহায্য করে। আমরা ভাল কাজ করছি বলেই খুব হিংসা। বহিরাগত গুন্ডা এসে বলছে গণতন্ত্রে এসব চলতে পারে না। আমফানে শুধু ১ হাজার কোটি টাকা অগ্রিম দিয়েছে।’

মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘বই লিখে, গানের সিডি বিক্রি করে আমার চলে যায়। আমফানে অডিট নিয়ে অনেকে প্রশ্ন তুলছে। রাজ্যের কথা না শুনে কেন্দ্রকে দিয়ে করানো হচ্ছে। রাজ্যকে শুধুই বদনাম করার চেষ্টা চলছে। করোনা মোকাবিলায় কী দিয়েছে? শুধু কয়েকটা ভেন্টিলেটর। আগামিদিনে সবকিছুর ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে উত্তর দেব। ভোট আসছে, বাংলাকে তো টার্গেট করবেই। আমি রুশ, ভিয়েতনাম, নাগা, মরাঠিদের ভাষা জানি। যে যে ভাষা জানি, করবেন নাকি চ্যালেঞ্জ? অনেকে টেলিপ্রম্পটারের সাজানো লেখা দেখে ভাষণ দেন। যত বাহিনী আছে, নিয়ে আসুন, পারবেন না।’

শুধু বিরোধী বা কেন্দ্রীয় সরকারকে আক্রমণ নয়, রাজ্যের মানুষের জন্যেও একাধিক ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ রাজ্য সরকার প্রতিভাবান, মেধাবী এবং দরিদ্র মহিলা বিজ্ঞানীদের গবেষণায় সহায়তা করতে সিনিয়র বিজ্ঞানী কন্যা মেধাবৃত্তি চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি আজ নবান্নে বলেন এই প্রকল্পে ৫০ জন মেধাবী কন্যাকে এক বছর প্রতি মাসে ৪ হাজার টাকা করে বৃত্তি দেওয়া হবে। উল্লেখ্য জুনিয়ার বিজ্ঞানী কন্যা মেধাবৃত্তি প্রকল্পে রাজ্য সরকার বর্তমানে ৫০ জন মেধাবী কন্যাকে দুই বছর ধরে প্রতিমাসে ১ হাজার ২৫০ টাকা করে বৃত্তি প্রদান করে।

দীর্ঘ লকডাউনের কারণে মার্চ মাস থেকে সরকারি অফিস বন্ধ থাকায় রাজ্য সরকার জমির অনাদায়ী খাজনার উপরে সুদ মকুব করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি আজ নবান্নে বলেন কৃষি জমি ছাড়া অন্যান্য জমির খাজনার উপরে মালিকদের যে ৬ দশমিক ২৫ শতাংশ হারে সুদ দিতে হতো চলতি বঙ্গাব্দের জন্য তা মকুব করে দেওয়া হল। আগামী জুন মাস পর্যন্ত এই সুদ দিতে হবে না বলেও তিনি জানিয়েছেন।

নতুন মাঝেরহাট সেতুর নাম বদলে জয় হিন্দ সেতু করা হচ্ছে। নবান্নে আজ রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একথা ঘোষণা করেছেন। তিনি জানান আগামী বৃহস্পতিবার বিকাল ৫ টায় নতুন মাঝেরহাট ব্রিজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হবে। নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর আসন্ন ১২৫ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে ওই সেতুকে তাঁর নামাঙ্কিত করা হচ্ছে।

তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পের উন্নয়নে রাজ্য সরকার নিউ টাউনের সিলিকন ভ্যালিতে আরো ২০টি তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা কে জমি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির পৌরহিত্যে আজ নবান্নে রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন। প্রথম পর্যায়ে এর আগে এখানে যে একশো একর জমি দেওয়া হয়েছিল তা ভর্তি হয়ে যাওয়ায় দ্বিতীয় পর্যায়ে এখানে আরো ১০০ একর জমি বরাদ্দ করা হয়েছে বলে মুখ্যমন্ত্রী জানান। পাশাপাশি আন্তর্জাতিক মানের তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা উইপ্রো এখানে একটি সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট সেন্টার তৈরি করবে বলে জানিয়েছে। অনুমোদনের জন্য আগামী বিশে ডিসেম্বরের মধ্যে তারা পরিকল্পনা জমা দেবে। দুই বছরের মধ্যে সংস্থা নির্মাণকাজ শেষ করবে বলেও মুখ্যমন্ত্রী এইদিন জানান। উত্তরবঙ্গের জলপাইগুড়িতে স্টার সিমেন্ট সংস্থার একটি ইউনিট গড়ে তোলার জন্য তাদের জমি দেওয়ার প্রস্তাব ও এই দিনের বৈঠকে গৃহীত হয়েছে।

Abir Ghosal

Published by:Elina Datta
First published: