‘ইস্টবেঙ্গল আর ওয়েস্টবেঙ্গলে ফারাক নেই’, তথাগত রায়ের মন্তব্যকে কটাক্ষ মুখ্যমন্ত্রীর

ইস্টবেঙ্গল , মোহনবাগান আর ময়দানের ফুটবল জগৎ - সবটাই একটা পরিবারের মতো। নাম না করে তথাগত রায়ের টুইটের জবাবই কী ফিরিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়?

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Aug 01, 2019 09:20 PM IST
‘ইস্টবেঙ্গল আর ওয়েস্টবেঙ্গলে ফারাক নেই’, তথাগত রায়ের মন্তব্যকে কটাক্ষ মুখ্যমন্ত্রীর
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Aug 01, 2019 09:20 PM IST

#কলকাতা: মাঠের রেষারেষিতে রাজনীতির রঙ লেগেছিল একটি টুইটে।  আর ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের শতবর্ষের সূচনা অনুষ্ঠানে সেটাই ধুয়েমুছে গেল। ইস্টবেঙ্গল , মোহনবাগান আর ময়দানের ফুটবল জগৎ - সবটাই একটা পরিবারের মতো। নাম না করে তথাগত রায়ের টুইটের জবাবই কী ফিরিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়?

একই ময়দানে তাঁবুতে পাশাপাশি ঘর করা, বেড়ে ওঠা, প্রতিদিন দেখা, প্রাকটিস আর প্রবল রেষারষি। এটাই ময়দান। এটাই ময়দানি ফুটবল।  ইস্টবেঙ্গলের শতবর্ষ পূর্তি উৎসবের সেটাই মনে করালেন মুখ্যমন্ত্রী ৷ ‘আমরা সকলে এক পরিবারের সদস্য’,ইস্টবেঙ্গলের অনুষ্ঠানে মন্তব্য মমতার ৷

মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্যে কী কারোর প্রতি বার্তাও থাকল? থাকল কোনও প্রশ্নের জবাব? সেই জল্পনা চলে আসছেই।  মুখ্যমন্ত্রীর কথায় তথাগত রায়ের মন্তব্যের জবাব খুঁজে পেয়েছেন অনেকেই।

গত মঙ্গলবার টুইটে ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের আক্রমণ করেন মেঘালয়ের রাজ্যপাল।  টুইটে  তথাগত লেখেন, ‘ইস্টবেঙ্গল ক্লাব তাদের শতবর্ষ পালন করছে। পশ্চিমবঙ্গে বসে কেন ইস্টবেঙ্গলকে সমর্থন? সেটা কী কখনও ভেবে দেখেছেন ক্লাবকর্তা বা সমর্থকরা?’

তীব্র প্রতিক্রিয়ায় রোষে ফেটে পড়েন শতবর্ষে দাঁড়িয়ে থাকা লাল-হলুদ সমর্থকরা।  রিট্যুইট করে তথাগত সাফাই দিলেও ক্ষোভ কমেনি।  অনেকেই প্রশ্ন তোলেন, ১০০ বছর পূর্তির সময় দেশভাগের স্মৃতি ও যন্ত্রণাকে উসকে দেওয়া কেন?

Loading...

আসিয়ান কাপ জয়, বিদেশি দলের বিরুদ্ধে সমানে সমানে লড়াই। এটাই ইস্টবেঙ্গল। যেমন ব্রিটিশদের হারিয়ে মোহনবাগানের আইএফএ শিল্ড জয়। এটাই ইতিহাস আর ঐতিহ্য।  সেখানেই মিলেমিশে যায় বাংলার ফুটবল আবেগ।  বাকি সবই তুচ্ছ। সেটাই কী মনে করালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ তিনি বলেন, ‘ইস্টবেঙ্গল আর ওয়েস্টবেঙ্গলে ফারাক নেই ৷ এপার বাংলায় জন্মালে ইস্টবেঙ্গল নয়?’

First published: 09:20:38 PM Aug 01, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर