কেন্দ্রের বঞ্চনার বিরুদ্ধে দলকে আন্দোলনমুখী হওয়ার বার্তা, ৭ ডিসেম্বর থেকে পথে নামছেন মমতা

দলকে আরও আন্দোলনমুখী হওয়ার বার্তা দিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। শুক্রবার কালীঘাটে নিজের বাসভবনে হাইভোল্টেজ বৈঠক করেন মমতা বন্দোপাধ্যায়। সেই বৈঠকে দলকে দ্রুত রাস্তায় নেমে আন্দোলনে নামার কথা বলেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো।

দলকে আরও আন্দোলনমুখী হওয়ার বার্তা দিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। শুক্রবার কালীঘাটে নিজের বাসভবনে হাইভোল্টেজ বৈঠক করেন মমতা বন্দোপাধ্যায়। সেই বৈঠকে দলকে দ্রুত রাস্তায় নেমে আন্দোলনে নামার কথা বলেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো।

  • Share this:

#কলকাতা: দলকে আরও আন্দোলনমুখী হওয়ার বার্তা দিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। শুক্রবার কালীঘাটে নিজের বাসভবনে হাইভোল্টেজ বৈঠক করেন মমতা বন্দোপাধ্যায়। সেই বৈঠকে দলকে দ্রুত রাস্তায় নেমে আন্দোলনে নামার কথা বলেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। ইতিমধ্যেই রাজনৈতিক সফর শুরু করে দিয়েছেন তিনি। সূত্রের খবর, আগামী ৭ ডিসেম্বর থেকে রাস্তায় নামছেন মমতা বন্দোপাধ্যায় নিজেই। চলতি সপ্তাহেই বাঁকুড়া সফরে রাজনৈতিক সভা করেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। এরপরে জঙ্গলমহল ও উত্তরবঙ্গের একাধিক জেলায় সফর করবেন তিনি। রাজনৈতিক মহলের মতে শুভেন্দু অধিকারী যে সব জেলার দায়িত্বে ছিলেন। সেই সব জেলায় সফর করবেন তিনি।

তবে প্রশাসনিক সূত্রে খবর, মমতা বন্দোপাধ্যায়ের এই সফর পূর্ব নির্ধারিতই ছিল। তবে দলীয় সূত্রে খবর, মমতা বন্দোপাধ্যায় দলের নেতাদের রাস্তায় নেমে কেন্দ্রের জন বিরোধী সিদ্ধান্ত ও রাজ্যের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক প্রচারের কাজ চালিয়ে যেতে বলেছেন। সেই সূত্রে খবর, আগামী সোমবার শিলিগুড়িতে মিছিল করবেন রাজ্যের মন্ত্রী ও তৃণমূল শীর্ষ নেতা ফিরহাদ হাকিম। আগামী রবিবার দক্ষিণ ২৪ পরগণায় সভা করবেন অভিষেক বন্দোপাধ্যায়। গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই প্রশাসনিক ও রাজনৈতিক দুটো স্তরেই দূরত্ব বাড়ছিল শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে। এর মধ্যেই  বৃহস্পতিবার বিকেলে এইচআরবিসি চেয়ারম্যান পদ থেকে ইস্তফা দেন শুভেন্দু। কিছুক্ষণের মধ্যেই সেই দায়িত্বে নিয়ে আসা হয় কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়কে।  এরই মধ্যে শুক্রবার সকাল থেকে মন্ত্রী সভার যাবতীয় পদ ছেড়ে দেন শুভেন্দু। সন্ধ্যায় গৃহীত হয় তার ইস্তফাপত্র।

এরপরেই জল্পনা বাড়তে থাকে, শুভেন্দুর তৃণমূল ছাড়া নিয়ে। অপর একটি মহলের ব্যাখ্যা ছিল, শুভেন্দুকে দল থেকে বহিষ্কার করা হতে পারে। তবে শুভেন্দুর পদত্যাগকে এখনই গুরুত্ব দিতে রাজি নয় রাজ্যের শাসক দল। বরঞ্চ দলের মনোভাব, কে এল, কে গেল না ভেবে এখন মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে আআন্দোলন করতে হবে। সেই সূত্রেই কোমর বেঁধে রাস্তায় নামছে তৃণমূল কংগ্রেস।

ABIR GHOSHAL

Published by:Shubhagata Dey
First published: