এ রাজ্যেই সবচেয়ে খারাপ অবস্থায় সাফাইকর্মীরা, মন্তব্য জাতীয় সাফাইকর্মী কমিশনের চেয়ারম্যানের

এ রাজ্যেই সবচেয়ে খারাপ অবস্থায় সাফাইকর্মীরা, মন্তব্য জাতীয় সাফাইকর্মী কমিশনের চেয়ারম্যানের

সাফাইকর্মীরা বঞ্চিত বেশী এরাজ্যে-মত জাতীয় সাফাইকর্মী কমিশনে।

  • Share this:

Rajarshi Roy #কলকাতা:  প্রতিদিন আমার আপনার বর্জ্য যারা পরিস্কার করে আমাদের একটা সুন্দর সকাল দেয়। নিশ্চিতে ঘুমাতে যাই পরের দিনটা আরো সুন্দর হবে। সেই সাফাইকর্মীরা এদেশে একটা সুন্দর জীবন পাচ্ছে না। বৃহস্পতিবার বারাসাতে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এই কথা বললেন, কেন্দ্রীয় সাফাইকর্মী কমিশনের চেয়ারম্যন মনহার ভালজিভাই জালার । তার অভিযোগ, দেশের মধ্যে পশ্চিম বঙ্গের সাফাইকর্মীরা বড়ই বঞ্চিত সবচেয়ে বেশি । তাঁদের জীবনধারণের ন্যূনতম ব্যবস্থা নেই এখানে। বৃহস্পতিবার বারাসতে জেলা প্রশাসনিক ভবনে সাংবাদিক বৈঠক করে এভাবেই তোপ দাগলেন কেন্দ্রীয় সাফাইকর্মী কমিশনের চেয়ারম্যন মনহার ভালজিভাই জালার। শ্রমআইন মেনে অবিলম্বে সাফাইকর্মীদের বেতন-সহ সমস্ত সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার জন্য তিনি জেলাশাসককে নির্দেশ দিয়েছেন। সেই সঙ্গে রাজ্যের পুরসভাগুলি চুক্তিতে সাফাই কর্মীরা রয়েছে বেশি । তাদের স্থায়ী করা হচ্ছে না বলে তার অভিযোগ । আর এদিনই জেলার আর এক পুরসভায় সাফাইকর্মীরা আন্দোলন শুরু করে স্থায়ীকরনের দাবী। বরানগর পুরসভার সফাই কর্মীরা নিজেদের অধিকার বুঝে নিতে আন্দোলনে সামিল হয় এই জেলায়।

সম্প্রতি দিল্লি থেকে সাফাইকর্মী কমিশনের প্রতিনিধি দল রাজ্যে এসেছে। ওই প্রতিনিধি দলে রয়েছেন খোদ কমিশনের চেয়ারম্যান মনহর। তিনি এদিন বারাসতে উত্তর ২৪ পরগনার বিধাননগর করপোরেশন ও ২৬টি পুরসভার নির্বাহী আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করেন। কমিশন জানতে চায়, রাজ্যের সাফাইকর্মীদের হাল হকিকত ও কেমন আছেন তারা।তাদের প্রাপ্য পাওয়না গন্ডা ঠিক মত দেওয়া হচ্ছে কি। সে সব তথ্য দেখার পর কমিশন স্তম্ভিত হয়ে যায়। পরে সাংবাদিক বৈঠকে কমিশনের চেয়ারম্যান বলেন, 'রাজ্যের সাফাইকর্মীরা চরম দুরবস্থার মধ্যে রয়েছেন। তাঁরা শ্রম আইন অনুযায়ী ন্যূনতম মজুরি পান না। তাঁদের পিএফ নেই। চিকিৎসার সুযোগ নেই। নেই ভালো বাসস্থানও। অধিকাংশ সাফাইকর্মী ঝুপড়ি-বস্তিতে বাস করেন। জেলাশাসককে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, অবিলম্বে তাঁদের সমস্ত সুযোগ-সুবিধা দিতে হবে।' দিল্লির সাফাইকর্মীরাও দুরবস্থার মধ্যে রয়েছেন। রাজধানীর সাফাইকর্মীদের জন্য কমিশন কী ব্যবস্থা নিয়েছে? সাংবাদিকদোর সে প্রশ্নের জবাবে কমিশনের চেয়ারম্যান বলেন, 'দিল্লির সাফাইকর্মীরাও ভালো নেই, সেকথা ঠিক। তবে তাঁদের চেয়ে পশ্চিমবঙ্গের সাফাইকর্মীদের অবস্থা আরও বেশি খারাপ। আমরা দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সঙ্গে সে ব্যাপারে কথা বলেছি।' এদিন কমিশনের চেয়ারম্যান প্রধানমন্ত্রীর স্বচ্ছভারত অভিযান কর্মসূচির তারিফ করেছেন। তিনি বলেছেন, 'প্রধানমন্ত্রীর স্বচ্ছ ভারত কর্মসূচি সফল হয়েছে সাফাইকর্মীদের জন্য। সেনা জওয়ান আর সাফাইকর্মীরাই দেশের প্রকৃত সেবক।' কমিশন জানিয়েছে, তারা দুই ২৪ পরগনা ও হাওড়া জেলা পরিদর্শন করেছে। হুগলি-সহ আরও কয়েকটি জেলা তারা পরিদর্শন করবে।

First published: December 20, 2019, 12:07 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर