শান্তি স্থাপনের দাবি, আগামিকাল ভাটপাড়ায় বুদ্ধিজীবীরা

শান্তি স্থাপনের দাবি, আগামিকাল ভাটপাড়ায় বুদ্ধিজীবীরা
অপর্ণা সেন, কৌশিক সেন

বৃহস্পতিবার ভাটপাড়া যাচ্ছেন অভিনেত্রী ও পরিচালক অপর্ণা সেন, কৌশিক সেন, চিত্রশিল্পী ওয়াসিম কাপুর-সহ বাংলার একাধিক বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব৷ তাঁদের এই কর্মসূচিকে সমর্থন জানালেন কবি শঙ্খ ঘোষ৷

  • Share this:

#কলকাতা: ভাটপাড়া, কাঁকিনাড়া এলাকায় ভোটপরবর্তী হিংসার বিরুদ্ধে এ বার সোচ্চার হলেন নাগরিক সমাজের বিশিষ্টরা৷ বৃহস্পতিবার ভাটপাড়া যাচ্ছেন অভিনেত্রী ও পরিচালক অপর্ণা সেন, কৌশিক সেন, চিত্রশিল্পী ওয়াসিম কাপুর-সহ বাংলার একাধিক বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব৷ তাঁদের এই কর্মসূচিকে সমর্থন জানালেন কবি শঙ্খ ঘোষ৷

একটি প্রতিবেদনে নাগরিক সমাজের তরফে ভাটপাড়া, কাঁকিনাড়া এলাকার অশান্তির তীব্র সমালোচনা করা হয়েছে ও শান্তি স্থাপনের দাবি জানানো হয়েছে৷ প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, 'শিল্প, সংস্কৃতি ও সম্প্রীতির জন্য দীর্ঘকাল ধরে সুপরিচিত জনপদ ভাটপাড়া আর তার পার্শ্ববর্তী কাঁকিনাড়া অঞ্চলজুড়ে গত সাধারণ নির্বাচনের পর সপ্তাহাধিক কাল ধরে বীভৎসতা চলছে তাতে অনেকের মতো আমরাও স্তম্ভিত, ব্যথিত ও শোকার্ত। দুজন সাধারণ দিনশ্রমিকের নিষ্ঠুর হত্যার পাশাপাশি (হত্যাকারী এখনও সরকারি ভাবে অনির্দিষ্ট ও অধরা) ব্যাপক অঞ্চল জুড়ে অবাধে যে সন্ত্রাস ও লুঠপাট, বোমাবাজি চলেছে, সাধারণ মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাপন ও রুটি-রুজির উপর যে ভাবে ক্রমাগত আক্রমণ চলেছে, তা জেনে আমরা শিল্প সাহিত্যের সঙ্গে সম্পৃক্ত বহু মানুষ, দূর থেকে অসহায় যন্ত্রণা অনুভব করেছি। আজ বাধ্য হয়েই যাঁরা পেরেছি তাঁরা ভাটপাড়া অঞ্চলের সাধারণ মানুষের যন্ত্রণার সঙ্গে সহমর্মিতা প্রকাশ করতে ছুটে এসেছি এবং সংকীর্ণ রাজনৈতিক বা প্রশাসনিক রং বিবেচনা না করে প্রকৃত অপরাধীদের শাস্তি দেবার আর এই অঞ্চলের শান্তি ও সম্পৃতি ফিরিয়ে আনার দাবি জানাচ্ছি।'

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, 'শিক্ষায়তন থেকে কলকারখানা, দোকানপাট-বাজার থেকে এই অঞ্চলের পাড়া-মহল্লা শ্রমিক বস্তিসহ সমস্ত জনপদ এখন খুনোখুনির, আতঙ্কের, সাম্প্রদায়িক বিভ্রান্তি ও রাজনৈতিক দলাদলির শিকার। বহিরাগত সমাজবিরোধীরাও সুযোগ বুঝে লুঠপাট ও গুন্ডামিতে সক্রিয়। এই স্বার্থান্ধ আরোপিত অন্ধকার দূর করে ভাটপাড়ার বিস্তীর্ণ অঞ্চলের সর্বত্র শান্তি ও সম্প্রীতি পুনঃপ্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে এখানকার যে সাহিত্য সংস্কৃতিজন, সমাজকর্মী ও শিক্ষাকর্মীরা সক্রিয় তাদের সমর্থন ও সহমর্মিতা জানাচ্ছি। এই এলাকাকে লুঠপাট, পীড়ন, রক্তপাত ও হত্যার মুক্তাঞ্চল তৈরী করতে যারা চাইছে তাদের বিরুদ্ধে কোন সংকীর্ণ রাজনীতির রঙ না দেখে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য পুলিশ-প্রশাসনের কাছে দাবি জানাচ্ছি। বাজার ও দোকানপাটের ক্রেতা-বিক্রেতাসহ ভাটপাড়া ও পার্শ্ববর্তী অঞ্চলের সমস্ত শান্তিপ্রিয় মানুষদের শান্তি ও সম্প্রীতির আবহাওয়া ফিরিয়ে আনতে সক্রিয় হবার এবং ভয় ও জড়তা দূর করে সম্মিলিত হবার আহ্বান জানাচ্ছি। পুলিশ-প্রশাসনকেও আরও সক্রিয় ও সজাগ হওয়ার আহ্বান জানাই।'

নাগরিক সমাজের পক্ষে এই উদ্যোগে সামিল হয়েছেন রুদ্রপ্রসাদ সেনগুপ্ত, বিভাস চক্রবর্তী, অপর্ণা সেন, কৌশিক সেন, শ্যামল মৈত্র, দেবাশিস ভৌমিক, সৈয়দ হাসমত জালাল, চন্দন সেন, ওয়াসিম কাপুর-সহ সমাজের ক্ষেত্রে বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বরা৷

First published: 11:42:59 PM Jun 26, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर