• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • নোবেল চুরির ঘটনায় বোলপুরে তল্লাশি অভিযান চালাচ্ছে CID

নোবেল চুরির ঘটনায় বোলপুরে তল্লাশি অভিযান চালাচ্ছে CID

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নোবেল চুরির ঘটনায় বোলপুরে তল্লাশি অভিয়ন শুরু করেছে সিআইডি ৷ এর আগে নোবেল চুরির ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে এক বাউল গায়ককে গ্রেফতার করেছিল গোয়েন্দারা ৷

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নোবেল চুরির ঘটনায় বোলপুরে তল্লাশি অভিয়ন শুরু করেছে সিআইডি ৷ এর আগে নোবেল চুরির ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে এক বাউল গায়ককে গ্রেফতার করেছিল গোয়েন্দারা ৷

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নোবেল চুরির ঘটনায় বোলপুরে তল্লাশি অভিয়ন শুরু করেছে সিআইডি ৷ এর আগে নোবেল চুরির ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে এক বাউল গায়ককে গ্রেফতার করেছিল গোয়েন্দারা ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #বোলপুর: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নোবেল চুরির ঘটনায় বোলপুরে তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে সিআইডি ৷ এর আগে নোবেল চুরির ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে প্রদীপ বাউরি নামে এক বাউল গায়ককে গ্রেফতার করেছিল গোয়েন্দারা ৷ সঞ্জয় হাজরা নামে বোলপুরের আরেক বাসিন্দাকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন এক শীর্ষ গোয়েন্দা আধিকারিক ৷ প্রদীপকে জেরার সময় সঞ্জয় হাজরা নাম উঠে এসেছে ৷ শুক্রবার বোলপুরে তার বাড়িতে থেকে সঞ্জয়কে আটক করা হয়েছে ৷ তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে ৷ এছাড়াও নোবেল চুরির ঘটনায় যুক্ত থাকায় আরও বেশ কয়েকজনের নাম জানিয়েছে প্রদীপ বাউরি ৷ তাদের খোঁজে বোলপুরে তল্লাশি চালাচ্ছে গোয়েন্দা আধিকারিকরা ৷ এক আইপিএস অফিসার জানিয়েছেন, বাউরি এবং হাজরা দুজনেরই ফিঙ্গার প্রিন্ট নেওয়া হয়েছে। এশিয়ার প্রথম নোবেল প্রাপকের পদক চুরি যাওয়া দেশের জন্য বড় একটি কলঙ্ক ৷ এক দশক কেটে গেলেও তদন্তের কোনও কিনারা হয়নি ৷ জানা গিয়েছে, ১৯৯৮ থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত প্রদীপ বাউরি গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান ছিলেন ৷ যে দুষ্কৃতিরা নোবেল চুরি করেছেন তাদের আশ্রয় দিয়েছেন বাউরি এবং তাদের রাজ্য থেকে পালাতেও সাহায্য করেছিলেন ৷ জেরায় জানা গিয়েছে, বাংলাদেশের নাগরিক মহম্মদ হোসেন এই পুরো ঘটনার মূল চক্রী ছিলেন ৷ এছাড়া দু’জন ইউরোপিয়ান এর সঙ্গে যুক্ত ছিলেন ৷ হাল ছেড়েছিল সিবিআই৷ নোবেল উদ্ধার করতে ব্যর্থ হয়ে বন্ধ করে দিয়েছিল তদন্ত ৷ সেখান থেকেই শুরু করেছিলেন রাজ্য গোয়েন্দারা৷ অগাস্ট মাসে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন রাজ্যকে এই তদন্তে দায়িত্ব দেওয়া হলে তারা রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের চুরি চাওয়া নোবেল পুরস্কার উদ্ধারের চেষ্টা করবেন ৷ এরপরই SIT গঠন করা হয় ৷  যার নেতৃত্বে ছিলেন খোদ কলকাতার পুলিশ কমিশনার৷ এরপরই বড় সাফল্য মিলল তদন্তের ঘটনায় ৷

    First published: