• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • অনলাইন ক্লাসের ফাঁদে বিপদে পড়ুয়ার চোখ, পরামর্শ দিলেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক

অনলাইন ক্লাসের ফাঁদে বিপদে পড়ুয়ার চোখ, পরামর্শ দিলেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক

বাচ্চাদের কম্পিউটার বা মোবাইলে খেলা এখন জীবনের অঙ্গ। সঙ্গে টিভি দেখা তো আছেই

বাচ্চাদের কম্পিউটার বা মোবাইলে খেলা এখন জীবনের অঙ্গ। সঙ্গে টিভি দেখা তো আছেই

বাচ্চাদের কম্পিউটার বা মোবাইলে খেলা এখন জীবনের অঙ্গ। সঙ্গে টিভি দেখা তো আছেই

  • Share this:

#কলকাতা: ঢাকুরিয়ার বাসিন্দা প্রাঞ্জল সাহা অনলাইন ক্লাসের পরেই বলত, চোখ জ্বালা করছে। প্রাঞ্জলের মা ভাবতেন, দুষ্টুমি করছে। আর গড়িয়াহাটের দিশার এখন মাঝে মধ্যেই চোখ দিয়ে জল পড়ে। অনেক পড়ুয়া আবার অনলাইন ক্লাসের পরে সব জিনিসকেই দু'টো করে দেখে। লকডাউনে অনলাইনে ক্লাস করতে গিয়ে অভিভাবকদের নতুন মাথাব্যথা বাচ্চার চোখের সমস্যা। প্রাঞ্জলের কথায়, ক' দিন অনলাইনে ক্লাস করার পরেই খালি চোখ জ্বালা করত।" আর দিশা বলছে, "অনলাইন ক্লাস শুরু হওয়ার পরে পরেই নাগাড়ে চোখ দিয়ে জল পড়ত।"

বাচ্চাদের কম্পিউটার বা মোবাইলে খেলা এখন জীবনের অঙ্গ। সঙ্গে টিভি দেখা তো আছেই। এ বার তার সঙ্গে যোগ হয়েছে অনলাইন ক্লাস। এ ভাবে লকডাউনে দিনের পর দিন টানা কম্পিউটার কিংবা মোবাইলে চোখ রেখে কাজ করতে গিয়েই এমন সমস্যায় পড়ছেন পড়ুয়ারা। আর এই চিন্তায় কপালে ভাঁজ বাবা-মায়েদের। অথচ, ক্লাসও তো বন্ধ করা যাবে না। তা হলে এখন উপায়...?

উপায় বলে দিচ্ছেন চক্ষু বিশেষজ্ঞেরা। চিকিৎসক দেবাঞ্জন সেনের কথায়, "আমাদের অভ্যাস হল, কম্পিউটার বা মোবাইলের দিকে তাকায়ে থাকার সময়ে চোখের পলক ফেলতে ভুলে যাই। বাচ্চাদেরও এটা হয়। এতে ক্ষতি হয় চোখের। তাই, বাচ্চাদের কম্পিউটারে কাজ করার সময়ে বারবার চোখের পাতা ফেলতে বলুন।"

তিনি আরও পরামর্শ দিয়েছেন, "কাজ হয়ে গেলে বা আধঘণ্টা একটানা কাজ করার পরে সরিয়ে নিয়ে, বাচ্চা চোখ রাখুক প্রকৃতির দিকে বা দূরের জিনিসের দিকে। কাজ করার সময়ে কম্পিউটারের অবস্থান এবং লেখার সাইজও কিন্তু খুব গুরুত্বপূর্ণ। সে দিকেও নজর দিতে হবে।" কোনও অবস্থাতেই যাতে চোখের উপরে অত্যধিক চাপ না পড়ে, নাগাড়ে কম্পিউটারে কাজ করলে আবার মোবাইল বা টিভি যাতে বাচ্চারা না দেখে, সে দিকে কড়া দৃষ্টি রাখতে হবে।

আর দু'টো করে জিনিস দেখলে? যাকে ইংরেজীতে বলে ডাবল ভিশন? "তা হলে তৎক্ষণাৎ পরামর্শ নিন চিকিৎসকের", বলছেন দেবাঞ্জন।

 SHALINI DATTA

Published by:Debalina Datta
First published: