Home /News /kolkata /
শিশু পাচারকাণ্ডে নয়া মোড়, সিআইডির নজরে একাধিক ফার্টিলিটি সেন্টার

শিশু পাচারকাণ্ডে নয়া মোড়, সিআইডির নজরে একাধিক ফার্টিলিটি সেন্টার

শুধু নার্সিংহোম বা এনজিও নয়, সিআইডি-র টার্গেট ফার্টিলিটি সেন্টারগুলিও। রাজ্যের একাধিক এমন কেন্দ্রে ছড়ানো শিশুপাচার চক্রের জাল।

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা: শুধু নার্সিংহোম বা এনজিও নয়, সিআইডি-র টার্গেট ফার্টিলিটি সেন্টারগুলিও। রাজ্যের একাধিক এমন কেন্দ্রে ছড়ানো শিশুপাচার চক্রের জাল। নিঃসন্তান দম্পতিকে কম খরচে সন্তান দত্তক নেওয়ার টোপ দেয় ফার্টিলিটি সেন্টারের আয়া ও নার্সরাই। লেনদেন হয় লাখ লাখ টাকার। বিদেশেও পাচার করা হয় শিশু। বিদেশি মুদ্রার সূত্র ধরেই তদন্তে সিআ রাজ্যের একাধিক ফার্টিলিটি সেন্টারে চলছে শিশু পাচারচক্র। উপযুক্ত পয়সা দিলেই মিলবে শিশু। গোয়েন্দাদের নজরে সেই কেন্দ্রগুলিই। রাজ্যে রমরমিয়ে চলছে একাধিক ফার্টিলিটি সেন্টার। সন্তানলাভের আশায় নিঃসন্তান দম্পতি সেখানে যান চিকিৎসার জন্য। শুরুতেই চলে ব্যয়বহুল চিকিৎসার কথা বলে তাঁদের খরচের ভয় দেখানোর পালা। তা কাজ না হলে, চিকিৎসা ব্যর্থ হতে পারে বলেও ভয় দেখানো হয়। এসব শুনে অনেকেই পিছিয়ে আসেন। তখনই তাঁদের বিকল্প রাস্তা বাতলান ফার্টিলিটি সেন্টারের আয়া বা নার্সরা। অনেক কম খরচে সন্তান পাইয়ে দেওয়ার প্রলোভন দেখানো হয়। দত্তক নেওয়ার সময় আইনি ঝামেলা সামলানোর প্রতিশ্রুতিও দেওয়া হয়। অনেক দম্পতিই এই ফাঁদে পা দেন। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত তো বটেই, বিদেশেও শিশু পাচারের সম্ভাবনা রয়েছে। অন্যের সন্তান চুরি করে লাখ লাখ টাকায় বিক্রি। বছর পাঁচেক আগে সন্তানহারা হয়েছিলেন হাবড়ার রাঘবপুরের বাসিন্দা জয়া রায়। সুজিত দত্ত মেমোরিয়াল ট্রাস্ট নার্সিংহোমের চিকিৎসকরাই তাঁর সন্তানকে মৃত বলে জানান। কিন্তু, সন্তানের দেহ তুলে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ। তাতেই দানা বাঁধছে সম্দেহ। ফার্টিলিটি সেন্টারগুলিতে গোপনে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে আয়া ও নার্সদের এমন চক্র। শিশুপাচার চক্রের ঘটনা সামনে আসতেই শুরু হয়েছে নজরদারি।

    First published:

    Tags: Bengali News, Child Trafficking, CID Investigating Child Trafficking, CID Investigation, ETV News Bangla, Fertility Centres

    পরবর্তী খবর