এক-দুই-তিন-চার সংখ্যার ঘেরাটোপে বন্দি জীবনের ছবি এবার হাজরা পার্কের দুর্গাপুজোয়

এক-দুই-তিন-চার সংখ্যার ঘেরাটোপে বন্দি জীবনের ছবি এবার হাজরা পার্কের দুর্গাপুজোয়

আজকের জীবনের প্রতিটি মূহূর্ত কয়েকটি সংখ্যায় বন্দি। ক্রমাগত পাসওয়ার্ডের ছকে বন্দি হতে হতে মানুষও আজ ভীষণ যান্ত্রিক। একমাত্র পুজোর কদিন জীবনের স্বাদবদল।

  • Share this:

#কলকাতা: নম্বরের গেড়োয় আটকে জীবন। সকাল থেকে রাত, পাসওয়ার্ডেই চিচিং-ফাঁক। শিল্পী তন্ময় চক্রবর্তীর ভাবনায় এক-দুই-তিন-চারের ঘেরাটোপে বন্দি জীবনের ছবি এবার হাজরা পার্কের দুর্গাপুজোয়।

ঘুম থেকে উঠেই প্রথম কাজ কী? পাসওয়ার্ড দিয়ে মোবাইল খোলা। পেটিএম থেকে এটিএম...অনলাইন শপিং থেকে সিনেমার বুকিং...কিংবা দিনের শেষে বাড়ি ফিরে তালা-চাবি ঘুরিয়ে বন্ধ দরজার লক খোলা....সবেতেই এখন পাসওয়ার্ডের খেলা। কিন্তু সেই পাসওয়ার্ড যদি হ্যাক হয়ে যায়? মূহূর্তে যাবতীয় অন্দরকাহিনী ফাঁস। নম্বরের সেই খেলাই এবার হাজরা পার্ক দুর্গোৎসব সমিতির থিম।

আজকের জীবনের প্রতিটি মূহূর্ত কয়েকটি সংখ্যায় বন্দি। ক্রমাগত পাসওয়ার্ডের ছকে বন্দি হতে হতে মানুষও আজ ভীষণ যান্ত্রিক। একমাত্র পুজোর কদিন জীবনের স্বাদবদল। শিল্পীর কথায়, উমার কাছে যেতে তো কোনও পাসওয়ার্ড লাগে না।
কয়েক ধাপ সিঁড়ি পেরিয়ে মূল মণ্ডপ। ভিতরে ডিজিটাল গ্লোব ঘিরে অসংখ্য সংখ্যার হাতছানি। তার মধ্যেই দশপ্রহরণধারিণীর সাবেকি মূর্তি। তাহলে? এবার পুজোর পাসওয়ার্ড হোক হাজরা পার্ক।

First published: September 6, 2019, 11:14 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर