corona virus btn
corona virus btn
Loading

এখনও নিস্প্রভই কিছু অঞ্চল, ৯৭ শতাংশ জায়গাতেই কারেন্ট এসেছে, দাবি সিইএসসির

এখনও নিস্প্রভই কিছু অঞ্চল, ৯৭ শতাংশ জায়গাতেই কারেন্ট এসেছে, দাবি সিইএসসির
এখনও নিস্প্রভ বহু এলাকাই।

এই বেহাল দশায় বহু মানুষ সিইএসসির পেশাদারিত্ব নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন। ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়েছে পুরসভার তরফেও।

  • Share this:

#কলকাতা: আমফান চলে যাওয়ার পর কেটে গিয়েছে ৬ দিন। দুর্যোগ মিটলেও এখনও জনসংযোগ বিচ্ছিন্ন বহু এলাকা। তবে সব কিছুকে ছাপিয়ে গিয়েছে বিদ্যুৎ ভোগান্তি। খাস কলকাতায় বিদ্যুতের অভাবে ত্রাহি ত্রাহি রব উঠে গিয়েছে বারবার। জল-বিদ্যুতের অভাবে বিক্ষুব্ধ মানুষ আঙুল লকডাউন উপেক্ষা করে রাস্তায় নেমে এসেছে। সরাসরি আঙুল তুলেছে সিইএসসি-র দিকে। সিইএসসি অবশ্য বলছে, যুদ্ধকালীন তৎপরতায় কাজ চলছে। বিদ্যুৎ এসে গিয়েছে ৯৭ শতাংশ এলাকায়।

এ দিন সিইএসসির তরফে জানানো হয়, প্রায় ১৫০টি দল কাজ করছে বিদ্যুৎ ফেরাতে। এলাকা ধরে ধরে কাজ হচ্ছে, জানাচ্ছেন সিইএসসি কর্তারা। কোন অঞ্চলগুলিতে এখনও মেরামতের কাজ এখনও শেষ হয়নি? সিইএসসি-এর মতে, বেহালা,গড়িয়া,সার্ভে পার্কে কাজ চলছে। এখনও পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়নি,সরশুনা,রামগড় অঞ্চলে। কাজ চলছে বজবজ,মহেশতলাতেও।

এই মুহূর্তে এই সংস্থার গ্রাহক ৩৩ লক্ষ। সিইএসসি জানাচ্ছে, মোট ৩২লক্ষ গ্রাহক বিদ্যুৎ পেয়েছেন ইতিমধ্যেই। কিন্তু কেন এত দেরি হল? সিইএসসি-র এক কর্তার দাবি, তাদের দুর্যোগ মোকাবিলার পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু ‌কতটা ক্ষতি আগে থেকে বোঝা যায় নি।

এই বেহাল দশায় বহু মানুষ সিইএসসির পেশাদারিত্ব নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন। ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়েছে পুরসভার তরফেও। ফিরহাদ হাকিম সোমবারই জানান, সিইএসসি-কে অবিলম্বে লোক বাড়াতে হবে। সমন্বয়ের অভাব নিয়েও প্রশ্ন ঘুরপাক খেতে থাকে শহরে। সিইএসসি অবশ্য বলছে, সম‌ন্বয়ে ফাঁক রাখতে চায় না তারা।

Published by: Arka Deb
First published: May 26, 2020, 10:19 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर