• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • CENTRAL GOVERNMENT SENDS STERN LETTER TO ALAPAN BANDYOPADHYAY PROPOSING PENALTY PROCEEDINGS DMG

Alapan Bandyopadhyay: আলাপনের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক পদক্ষেপের হুঁশিয়ারি, ফের কড়া চিঠি কেন্দ্রের

আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়।

আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Alapan Alapan Bandyopadhyay) বিরুদ্ধে কেন্দ্রের মূল অভিযোগ, কলাইকুণ্ডায় ইয়াস ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী প্রধানমন্ত্রীর পর্যালোচনা বৈঠকে তিনি উপস্থিত না থেকে বেরিয়ে যান৷

  • Share this:

#কলকাতা: আলাপন বন্দোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে এবার কঠোর শাস্তিমূলক পদক্ষেপের হুঁশিয়ারি দিল কেন্দ্রীয় সরকার৷ কেন্দ্রীয় কর্মিবর্গ মন্ত্রকের পক্ষ থেকে করা শো কজের যে জবাব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় দিয়েছিলেন, তাতে সন্তুষ্ট না হয়েই নতুন করে চিঠি দেওয়া হয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর প্রধান উপদেষ্টাকে৷ সেখানে বলা হয়েছে, ৩০ দিনের মধ্যে এই চিঠির জবাব না দিলে আলাপনের বিরুদ্ধে একতরফা ভাবে শাস্তিমূলক পদক্ষেপ করা হবে বলেও কেন্দ্রীয় কর্মিবর্গ মন্ত্রক থেকে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে৷ চিঠিতে বলা হয়েছে, চাইলে আলাপন দিল্লিতে গিয়ে মুখোমুখি সাক্ষাৎ করেও আত্মপক্ষ সমর্থনে বক্তব্য রাখতে পারেন আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়৷

রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কেন্দ্রের মূল অভিযোগ, কলাইকুণ্ডায় ইয়াস ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী প্রধানমন্ত্রীর পর্যালোচনা বৈঠকে তিনি উপস্থিত না থেকে বেরিয়ে যান৷ গত ৩১ মে অবসর গ্রহণ করেছিলেন আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এ দিন যে চিঠি দিয়েছে, তাতে স্পষ্ট হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে যে আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের অবসরকালীন সুযোগ সুবিধায় কোপ পড়তে পারে৷ চিঠিতে বলা হয়েছে, ১৯৬৯ সালের অল ইন্ডিয়া সার্ভিস রুলস-এর ৮ নম্বর ধারা অনুযায়ী তাঁর বিরুদ্ধে শৃ্ঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ আনা হয়েছে৷

চিঠিতে স্পষ্টই বলা হয়েছে, হয় লিখিত জবাব দিয়ে নাহলে সরাসরি তদন্তকারী কর্তৃপক্ষের সামনে উপস্থিত হয়ে তাঁর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ স্বীকার বা খণ্ডন করতে হবে আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে৷ অন্যথায় তাঁর বিরুদ্ধে একতরফা ভাবেই শাস্তিমূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে৷

গত ২৮ মে কলাইকুণ্ডায় ইয়াস ঘূর্ণিঝড়ের ক্ষয়ক্ষতি পর্যালোচনায় বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করলেও বৈঠকে থাকতে পারেননি তৎকালীন মুখ্যসচিব আলাপন৷ কারণ ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষয়ক্ষতির হিসেব প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দিয়েই বৈঠক থেকে বেরিয়ে দিঘায় ঘূর্ণিঝড় নিয়ে ক্ষয়ক্ষতি পর্যালোচনার বৈঠকে চলে যান মুখ্যমন্ত্রী৷ মুখ্যমন্ত্রী বেরিয়ে আসায় তাঁর সঙ্গে দিঘার বৈঠকে যোগ দিতে যান আলাপন৷

এর পরেই বৈঠকে উপস্থিত না থাকার জন্য আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে শো কজ করে কেন্দ্রীয় কর্মিবর্গ মন্ত্রক৷ আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের অবসর নেওয়ার কথা ছিল ৩১ মে৷ কলাইকুণ্ডার ঘটনার পর অবসর গ্রহণের দিনেই আলাপনকে দিল্লিতে গিয়ে কর্মিবর্গ মন্ত্রকে কাজে যোগ দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়৷ যা নিয়ে বিতর্ক তুঙ্গে ওঠে৷ কারণ রাজ্যের অনুরোধ মেনে আলাপনকে আরও তিন মাস মুখ্যসচিব পদে কাজ চালিয়ে যাওয়ার অনুমতি দিয়েছিল কেন্দ্রই৷ আলাপন অবশ্য শো কজের জবাব দিলেও দিল্লিতে গিয়ে কাজে যোগ দেননি৷ নিজের অবসর গ্রহণের নির্দিষ্ট দিনেই গত ৩১ মে অবসর গ্রহণ করেন আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়৷ ওই দিনই তাঁকে মুখ্যমন্ত্রীর প্রধান উপদেষ্টা পদে নিয়োগ করে রাজ্য সরকার৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published: