Firhad Hakim Detained by CBI: নারদকাণ্ডে তোলপাড় রাজ্য, CBI-এর হাতে গ্রেফতার ফিরহাদ-মদন-শোভন-সুব্রত!

তোলপাড় বাংলা

ফিরহাদ হাকিম (Firhad Hakim) বলেন, 'নারদ মামলায় আমাকে গ্রেফতার করা হল। সিবিআই (CBI) গ্রেফতার করল। আদালতে মোকাবিলা হবে।' সূত্রের খবর, রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের থেকে অনুমতি নিয়েই এই পদক্ষেপ করেছে সিবিআই।

  • Share this:

    কলকাতা: গোটা রাজ্যে যখন করোনা মোকাবিলায় কার্যত লকডাউন চলছে, তখন নারদ মামলায় (Narada Case) নয়া মোড়। সোমবার একদম সকাল সকালই কলকাতার প্রাক্তন মেয়র, তৃণমূলের বিধায়ক এবং বর্তমানে পরিবহণ মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের (Firhad Hakim) বাড়ি এসে হাজির হয় বিরাট সংখ্যক কেন্দ্রীয় বাহিনী। সকাল ন’টা নাগাদ তাঁকে বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে সিবিআই। অন্তত ফিরহাদের তাই দাবি। বাড়ি থেকে বেরোনোর সময় সংবাদমাধ্যমে তিনি বলেন, 'নারদ মামলায় আমাকে গ্রেফতার করা হল। সিবিআই গ্রেফতার করল। আদালতে মোকাবিলা হবে।' সূত্রের খবর, রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের থেকে অনুমতি নিয়েই এই পদক্ষেপ করেছে সিবিআই।

    এদিকে সোমবার সকালেই মদন মিত্র এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়কে নিজাম প্যালেসে নিয়ে যাওয়া হয়। তাঁদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে সিবিআই সূত্রের খবর। একটা সূত্রে এমনও দাবি করা হচ্ছে, ইতিমধ্যেই চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। চার জনের বিরুদ্ধে এদিনই আদালতে চার্জশিট পেশ করা হবে।

    এদিকে, ফিরহাদকে গ্রেফতার করতে আসা মাত্রই চেতলায় বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন তৃণমূল কর্মীরা। ফিরহাদের সামনেই রাস্তায় শুয়ে পড়েন তাঁরা। তাঁদের কোনওভাবে সামলে সিবিআই-এর সঙ্গে বেরিয়ে যান ফিরহাদ। সম্প্রতি নারদ মামলায় অভিযুক্ত তৎকালীন চার বিধায়কের বিরুদ্ধে সিবিআইকে চার্জশিট পেশ করার অনুমতি দেন রাজ্যপাল।

    প্রসঙ্গত, নারদে অভিযোগের তালিকায় আর যাঁদের নাম রয়েছে, তাঁদের মধ্যে শুভেন্দু অধিকারী এখন বিজেপি বিধায়ক। কিন্তু, তাঁর নাম চার্জশিটে দেওয়ার জন্য অনুমোদন চাওয়া হয়নি। যদিও সিবিআই জানিয়েছে, যে সময়ে মামলা শুরু হয়েছিল, সেই সময়ে শুভেন্দু সাংসদ ছিলেন। তাঁর ক্ষেত্রে তাই অনুমোদন দেবেন লোকসভার অধ্যক্ষ। সিবিআইয়ের একটি সূত্র জানিয়েছে, রাজ্যপালের কাছ থেকে চার্জশিট দেওয়ার (প্রসিকিউশন স্যাংশান) অনুমতি পাওয়ার ফলে দুর্নীতি দমন আইনের সাত নম্বর ধারায় এঁদের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট জমা দেওয়া হবে।

    Published by:Suman Biswas
    First published: