Home /News /kolkata /
Calcutta High Court: রাজ্যের পুলিশ কাজ না পারলে আধাসেনা, কেন্দ্রীয় বাহিনী, কড়া কথা হাইকোর্টের

Calcutta High Court: রাজ্যের পুলিশ কাজ না পারলে আধাসেনা, কেন্দ্রীয় বাহিনী, কড়া কথা হাইকোর্টের

হাই কোর্টের কড়া হুঁশিয়ারি

হাই কোর্টের কড়া হুঁশিয়ারি

Calcutta High Court: ১০ অগাস্টের মধ্যে জবরদখল মুক্ত করতে পারলে, পুলিশ সেক্ষেত্রে হাইকোর্টের তোপ থেকে রেহাই পেতে পারে।

  • Share this:

#কলকাতা: বিস্ফোরক বিচারপতি রাজাশেখর মান্থা। পূর্ব মেদিনীপুরের পাঁশকুড়ার একটি জবরদখল উচ্ছেদ করার মামলায় পূর্ব মেদিনীপুর পুলিশকে একহাত নিলেন বিচারপতি। সেখ গোলাম মঈনুদ্দিন, তাঁর বাড়ির সামনে জবরদখল করে দলীয় পার্টি অফিস বানানোর অভিযোগে হাইকোর্টে মামলা করেন। তমলুক মহকুমার কোলাঘাট -মেদিনীপুর সড়কের পাশে দক্ষিণ গোপালপুর মৌজায় জবরদখল করে INTTUC কার্যালয় বানানো হয় বলে অভিযোগ। পুলিশ প্রশাসনের রিপোর্টে স্পষ্ট হয়, পূর্ত দফতরের এবং মামলাকারী কিছু জায়গা জবরদখল করে পার্টি অফিস বানানোর। পাঁশকুড়া পুলিশ কে জবরদখল সরানোর নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট। সেই নির্দেশ কার্যকর করতে যায় পূর্ত দফতরের অধিকারিকরা। সঙ্গে যায় পুলিশ। সেখানেই রাজনৈতিক প্রভাবশালীদের মদতে এলাকার মহিলা ও শিশুদের ঢাল করে জবরদখল উচ্ছেদে বাধা দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন: মন্ত্রিসভার রদবদলের আগেই দশ দফতরকে নিয়ে জরুরি বৈঠকে মুখ্যসচিব, জোর চর্চা নবান্নে

জমায়েত দেখে ও হুমকি শুনে এলাকা থেকে পালিয়ে আসে পুলিশ। হাইকোর্টের নির্দেশ মতো জবরদখল মুক্ত না হওয়ায় পূর্ব মেদিনীপুর পুলিশের কাজের কড়া সমালোচনা করেন সোমবার বিচারপতি রাজাশেখর মান্থা। ১০ অগাস্ট পুলিশ সুপারকে এজলাসে ডেকে কৈফিয়ত চেয়েছেন বিচারপতি। ১০ অগাস্টের মধ্যে জবরদখল মুক্ত করতে পারলে, পুলিশ সেক্ষেত্রে হাইকোর্টের তোপ থেকে রেহাই পেতে পারে।

আরও পড়ুন: টাকা আমার নয়, অনুপস্থিতিতে- অজান্তে ঘরে টাকা ঢোকানো হয়েছে: বিস্ফোরক অর্পিতা

মামলাকারীর আইনজীবী দিব্যেন্দু চট্টোপাধ্যায় জানান, মার্চ মাসেই পূর্ত বিভাগের ইঞ্জিনিয়ারদের জবরদখল মুক্ত করার নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট। তা না হওয়াতেই হাইকোর্টের রোষানলে পূর্ব মেদিনীপুর পুলিশ। এ বার পুলিশ ব্যর্থ হলে আধাসেনা নামিয়ে জবরদখল মুক্ত করার পর্যবেক্ষণ রেখেছেন বিচারপতি মান্থা। সোমবার বিচারপতি মান্থার পর্যবেক্ষণ রাখেন, "রাজ্যের পুলিশ কাজ না পারলে আধাসেনা, কেন্দ্রীয় বাহিনী নামাবো।পাঁশকুড়ায় হাইকোর্ট নির্দেশ কার্যকর হতে বাধা দিচ্ছে রাজনৈতিক প্রভাবশালীরা। স্থানীয় মহিলা ও শিশুদের ঢাল হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে জবরদখল সরানোর নির্দেশ মান্যতা পাচ্ছে না। পুলিশ এলাকা থেকে পালিয়ে আসছে! পুলিশের কাজে আদালত স্তম্ভিত এবং বিস্মিত!" পূর্ব মেদিনীপুরের এসপিকে তলব করেছে হাইকোর্ট। ১০ অগাস্ট এসপিকে তলব করেছেন বিচারপতি রাজাশেখর মান্থা। ওইদিন মামলার পরবর্তী শুনানি।

Arnab Hazra
Published by:Uddalak B
First published:

Tags: Calcutta High Court

পরবর্তী খবর