Home /News /kolkata /
Anis Khan Death Case: আনিস মৃত্যু তদন্তে সিট তদন্তেই আস্থা হাইকোর্টের, দ্বিতীয় ময়নাতদন্তের নির্দেশ

Anis Khan Death Case: আনিস মৃত্যু তদন্তে সিট তদন্তেই আস্থা হাইকোর্টের, দ্বিতীয় ময়নাতদন্তের নির্দেশ

আনিসের দেহের দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্তের নির্দেশ দিল হাইকোর্ট৷

আনিসের দেহের দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্তের নির্দেশ দিল হাইকোর্ট৷

রাজ্য সরকার সিট গঠন করলেও আনিসের মৃত্যুর তদন্তে সিবিআই তদন্তের দাবিতে সরব হয়েছে তাঁর পরিবার (Anis Khan Death Case)৷

  • Share this:

#কলকাতা: আনিস খান মৃত্যুর তদন্তে (Anis Khan Death Case) আপাতত রাজ্য সরকারের গঠিত সিট-এই আস্থা রাখল কলকাতা হাইকোর্ট (Calcutta High Court)৷ একই সঙ্গে আনিসের দেহের দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্তেরও নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট৷ পাশাপাশি ফরেন্সিক পরীক্ষার জন্য আনিসের মোবাইল ফোনও সিট-এর হাতে তুলে দেওয়ার জন্য নিহত ছাত্রনেতার পরিবারকে নির্দেশ দিয়েছে বিচারপতি রাজশেখর মান্থার বেঞ্চ৷ আনিস খান মৃত্যুর ঘটনায় স্বতঃপ্রণোদিত মামলা করেছিল কলকাতা হাইকোর্ট৷

প্রসঙ্গত, রাজ্য সরকার সিট গঠন করলেও আনিসের মৃত্যুর তদন্তে সিবিআই তদন্তের দাবিতে সরব হয়েছে তাঁর পরিবার৷ আনিসের দেহের দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্ত বা তাঁর ফোন সিট-এর হাতে তুলে দেওয়ার প্রস্তাবও ফিরিয়েছিলেন তাঁরা৷ এ দিন হাইকোর্ট অবশ্য নির্দেশ দিয়েছে, একজন জেলা বিচারকের নজরদারিতে আনিস খানের দ্বিতীয় ময়নাতদন্ত প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে৷ কারণ এই মৃত্যু রহস্য উদঘাটনে দ্বিতীয় ময়নাতদন্ত অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলেই মনে করছে হাইকোর্ট৷

আরও পড়ুন: আনিস মৃত্যুতে আমতার OC-র ভূমিকা নিয়ে প্রশ্নচিহ্ন, বড় পদক্ষেপ নিল SIT! CBI দাবিতে অনড় পরিবার

দ্বিতীয় ময়নাতদন্তের পর দেহের ভিসেরা নমুনা সংরক্ষণ করতে নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি রাজশেখর মান্থা।

জেলা জজের নজরদারিতেই ভিসেরা সংরক্ষিত হবে। হাইকোর্ট জানিয়েছে, পরিবারে এবং জেলা বিচারকের উপস্থিতিতেই মোবাইল ফোন সিল করে তা গ্রহণ করবেন সিট-এর তদন্তকারী অফিসার৷ আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী, আনিসের মোবাইল ফোনটি ফরেন্সিক পরীক্ষার জন্য হায়দ্রাবাদের সেন্ট্রাল ফরেন্সিক ল্যাবরেটরিতে পাঠানো হবে৷ দু' সপ্তাহের মধ্যে তদন্তের অগ্রগতি রিপোর্ট সিট-এর তরফে হাইকোর্টকে জানাতে হবে বলেও নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি মান্থা৷

আরও পড়ুন: আনিস-হত্যায় পুলিশের দু’জন গ্রেফতার, বাংলাকে অশান্ত হতে দেব না: মুখ্যমন্ত্রী

তিনি স্পষ্ট করে দিয়েছেন, এই মুহূর্তে রাজ্যের বাইরের কোনও তদন্তকারী সংস্থাই আনিস মৃত্যুকাণ্ডের তদন্ত করবে না৷

এ দিন হাইকোর্টে শুনানি চলাকালীন রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল জানান, রাজ্য সরকারও এই ঘটনার নিরপেক্ষ তদন্ত চায়৷ রাজ্য কোনও দোষীকে আড়ালও করতে চাইছে না বলে আদালতে আশ্বস্ত করেন অ্যাডভোকেট জেনারেল৷ পাশাপাশি তিনি অভিযোগ করেন, সিট-এর তরফে অনুরোধ করা হলেও আনিসের মোবাইল তাদের হাতে দেয়নি ছাত্রনেতার পরিবার৷ দ্বিতীয় ময়নাতদন্তের অনুমতিও দেয়নি তারা৷ ফলে তদন্ত করতে গিয়ে বাধার মুখে পড়ছে সিট৷ নিহত আনিস খানের বাবা সালেম খান অবশ্য হাইকোর্টের নির্দেশের পরেও সিবিআই তদন্তের দাবিতেই অনড় রয়েছেন৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

পরবর্তী খবর