১০ বছরেও অসম্পূর্ণ বিচার ! শিলদা-হামলার বিচারপর্ব শেষের সময় বেঁধে দিল হাইকোর্ট

১০ বছরেও অসম্পূর্ণ বিচার ! শিলদা-হামলার বিচারপর্ব শেষের সময় বেঁধে দিল হাইকোর্ট

আগামী ১ বছরের মধ্য়ে শেষ করতে হবে শিলদা ইএফআর ক্য়াম্পে মাওবাদী হামলার বিচার ৷ গোটা বিষয়ে নজর রাখতে হবে রাজ্য় পুলিশের ডিজি-কে৷ মঙ্গলবার এমনই নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট

  • Share this:

#কলকাতা:  গামী ১ বছরের মধ্য়ে শেষ করতে হবে শিলদা ইএফআর ক্য়াম্পে মাওবাদী হামলার বিচার ৷ গোটা বিষয়ে নজর রাখতে হবে রাজ্য় পুলিশের ডিজি-কে৷ মঙ্গলবার এমনই নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট৷ সেইসঙ্গে বিচারপতি জয়মাল্য বাগচীর ডিভিশন বেঞ্চের পর্যবেক্ষণ, এতদিনেও বিচার পায়নি শিলদায় নিহত জওয়ানদের পরিবার ৷

ঘটনা ২০১০ সালের ১৫ই ফেব্রুয়ারির৷ তখনও রাজ্য়ে রাজনৈতিক পালাবদল হয়নি৷ সিঙ্গুর-নন্দীগ্রাম আন্দোলন পর্ব পেরিয়ে, পশ্চিমবঙ্গে তুঙ্গে মাওবাদী কার্যকলাপ৷ ঠিক সেইসময় অবিভক্ত পশ্চিম মেদিনীপুরের শিলদায়, ইস্টার্ন ফ্রন্টিয়ার রাইফেলসের ক্য়াম্পে মাওবাদী হানা নাড়িয়ে দেয় গোটা রাজ্য়কে৷ হামলায় প্রাণ হারান ২৪ জন জওয়ান৷ তদন্তে নেমে অর্ণব দাম-সহ ২৬ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেয় পুলিশ৷ কিন্তু ২০১৯ সালে অর্ণবকে জামিন দেয় আদালত৷ জেলে তার আচরণ ভাল হওয়ার জন্যই জামিন দেওয়া হয়। জেল থেকেই নেট উত্তীর্ণ হয় মেধাবী এই মাওবাদী নেতা৷ অর্ণব জামিন পেতেই হাইকোর্টে জামিনের আবেদন করে আরও তিন অভিযুক্ত৷ সেই মামলাতেই নিম্ন আদালতের বিচারপর্ব দ্রুত শেষ করার নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট৷

শিলদার ঘটনায় জামিন চেয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয় ইন্দ্রজিৎ কর্মকার, তারা হেমব্রম ও সনাতন সোরেন। এদের প্রত্য়েকের বিরুদ্ধেই দেশদ্রোহিতার অভিযোগ রয়েছে৷  শুনানিতে বিচারপতি জয়মাল্য় বাগচী জানতে চান,

  • অভিযুক্ত ৩ জনের সঙ্গে শিলদাকাণ্ডের কী ধরনের যোগাযোগ ছিল?
  • এতদিন শুনানিতে কী কী হয়েছে?
  • অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে অর্ণব দামের মতো কোনও অভিযোগ ছিল কি না?

মঙ্গলবার হাইকোর্টে তদন্ত রিপোর্ট পেশ করে সিআইডি৷ তদন্তকারী সংস্থার আইনজীবী অরুণ মাইতি জানান, ইন্দ্রজিৎ ও অর্ণবের বিরুদ্ধে একই অভিযোগ ছিল। তবে ইন্দ্রজিৎকে কেউ সনাক্ত করেনি৷ সনাতনের বিরুদ্ধে অবশ্য় অনেক নতুন অভিযোগ পুলিশের হাতে এসেছে।  একথা শোনার পরই ইন্দ্রজিতের জামিন মঞ্জুর করে বিচারপতি জয়মাল্য় বাগচীর ডিভিশন বেঞ্চ৷ বিচারপতি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে মামলা চলছে। এখনও বিচার পায়নি নিহত জওয়ানদের পরিবার। তাই ১ বছরের মধ্যে বিচারপ্রক্রিয়া শেষ করতে হবে। গোটা বিষয়টি নজরে রাখবেন রাজ্য পুলিশের ডিজি।

ARNAB HAZRA
First published: January 30, 2020, 2:41 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर