তৃণমূলের অবৈধ অফিস ভাঙার নির্দেশ, দলীয় কার্যালয় নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ রায় হাইকোর্টের

তৃণমূলের অবৈধ অফিস ভাঙার নির্দেশ, দলীয় কার্যালয় নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ রায় হাইকোর্টের

  • Share this:

#কলকাতা: ছাদ দেওয়া না থাকলেও যে কোনও রাজনৈতিক দলের কার্যালয়কেই স্থায়ী নির্মাণ হিসেবে গণ্য করা হতে পারে৷ সোমবার একটি মামলায় এমনই গুরুত্বপূর্ণ পর্যবেক্ষণ জানাল কলকাতা হাইকোর্ট৷

দলীয় কার্যালয়কে ঘিরে হাইকোর্টে অস্বস্তিতে পড়ল শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। নির্দেশে দিতে গিয়ে হাইকোর্ট জানিয়ে দিল, দলের শিলিগুড়ি ২৯ নং ওয়ার্ড তৃণমূল কার্যালয়টি নির্মিত হয়েছে নিয়ম ভেঙে। অবৈধ নির্মাণের অভিযোগকে মান্যতা দিয়ে ১২ সপ্তাহের মধ্যে আইনি পদক্ষেপের নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট।

মালদহের স্কুল শিক্ষিকা সুতপা দাস কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করে জানান, শিলিগুড়ি পুরনিগমের ২৯ নম্বর ওয়ার্ডে তাঁর ৮ কাঠা জমির উপরে জোর করে দলীয় কার্যালয় তৈরি করেছে স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। কিন্তু পুর নিগম মানতে চাইছে না নির্মাণটি অবৈধ। হাইকোর্টে অশোক ভট্টাচার্য প্রশাসকের নিয়ন্ত্রণে চলা পুরনিগমের যুক্তি ছিল, পাকা ছাদ না থাকায় এই অস্থায়ী কাঠামোর কোনও অনুমতির প্রয়োজন নেই।


মামলাকারীর আইনজীবী উদয়শংকর চট্টোপাধ্যায় আদালতে জানান, প্রায় ৮০০ বর্গফুটের দলীয় কার্যালয় চলছে বছরের পর বছর ধরে। জায়গা দখল করে এই নির্মাণ অবৈধ। দুই পক্ষের সওয়াল জবাবের পর সোমবার বিচারপতি অমৃতা সিনহা পর্যবেক্ষণে জানান, জায়গায় মালিকানা বিষয়টির বিচারে না গিয়ে শুধু নির্মাণের বৈধতা বিবেচনা করে বলা যায় এই নির্মাণ অবৈধ।

এরপর শিলিগুড়ি পুরনিগমকে ওই অবৈধ নির্মাণের বিরুদ্ধে আইন মোতাবেক পদক্ষেপ করতে নির্দেশ দেয় আদালত। ১২ সপ্তাহের মধ্যে আইনি পদক্ষেপ শেষ করারও নির্দেশ দেন বিচারপতি। আইনি পদক্ষেপ করতে পুলিশকে প্রয়োজনীয় সাহায্যের নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।

Arnab Hazra

Published by:Debamoy Ghosh
First published: