• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • শীত পড়তেই রাজ্যে সক্রিয় পাখি চোরাচালানকারীরা, উদ্বিগ্ন কলকাতা হাইকোর্ট

শীত পড়তেই রাজ্যে সক্রিয় পাখি চোরাচালানকারীরা, উদ্বিগ্ন কলকাতা হাইকোর্ট

২ নং জাতীয় সড়কের পাখি চোরাচালান ঘটনায় কড়া আদালত উদ্যোগী হল নিজেই ৷ চোরাচালান রুখতে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা দায়ের ৷

২ নং জাতীয় সড়কের পাখি চোরাচালান ঘটনায় কড়া আদালত উদ্যোগী হল নিজেই ৷ চোরাচালান রুখতে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা দায়ের ৷

২ নং জাতীয় সড়কের পাখি চোরাচালান ঘটনায় কড়া আদালত উদ্যোগী হল নিজেই ৷ চোরাচালান রুখতে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা দায়ের ৷

  • Share this:

#কলকাতা: শীত পড়তেই রাজ্যে সক্রিয় পাখি চোরাচালানকারীরা।  ২ ডিসেম্বর সংবাদমাধ্যমের খবর নজরে পড়তেই স্বতঃপ্রণোদিত পদক্ষেপ হাইকোর্টের । ২ নং জাতীয় সড়কের পাখি চোরাচালান ঘটনায় কড়া আদালত উদ্যোগী হল নিজেই ৷ চোরাচালান রুখতে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা দায়ের ৷

রাজ্যে পাখি পাচার নিয়ে উদ্বিগ্ন কলকাতা হাইকোর্ট। স্বতঃপ্রণোদিত মামলা দায়ের প্রধান বিচারপতি টি বি রাধাকৃষ্ণনের। গৃহপালিত পাখি ও বিপন্ন পাখিদের বাঁচাতে উদ্যোগ প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চের।  রাজ্যে পাখি পাচার ও চোরাচালান বন্ধে কি পদক্ষেপ? পাখি চোরাচালান রোখা রাজ্যের কাদের দায়িত্ব? রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেলকে অবস্থান জানাতে নির্দেশ কোর্টের । ৮ ডিসেম্বর হবে মামলার শুনানি।

গত মঙ্গলবার গোপন সূত্রে খবর পেয়ে ২ নম্বর জাতীয় সড়কের দুর্গাপুর টোল প্লাজায় যাত্রীবাহী কলকাতাগামী বাস থেকে ৩০০টি রোজ রিঙ্ড এবং প্লাম হেডেড প্যারাকিট প্রজাতির টিয়া এবং ৩০টি ময়না উদ্ধার করেন বন দফতরের অফিসাররা। পুলিশ জানিয়েছে, পাচারের জন্য বেআইনিভাবে ওই পাখিগুলিকে বাসে করে বিহার ও ঝাড়খণ্ড থেকে আনা হচ্ছিল । বেআইনিভাবে পাখি পাচারের অভিযোগে বাসের কন্ডাক্টর ও খালাসিকে গ্রেফতার করা হয়। বন দফতরের আধিকারিকরা জানান, পাখি ভর্তি খাঁচাগুলি বস্তার ভেতর ঢোকানো থাকলেও টিয়া, ময়নাগুলি সুস্হ ছিল। সেগুলিকে কাঁকসার গভীর জঙ্গলে ছেড়ে দেওয়ার পরিকল্পনা নেওয়া হয়। শীত পড়তেই বন্যপ্রাণী পাচার বাড়তে থাকায় উদ্বিগ্ন বন দফতর। আধিকারিকরা জানান, পাখিগুলি কোথায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল, পাচারের সঙ্গে কারা যুক্ত সেসব বিস্তারিত জানার চেষ্টা চলছে।

Arnab Hazra

Published by:Elina Datta
First published: