Buddhadeb Bhattacharya: করোনার মধ্যে শুকনো কাশিতেও ভুগছেন বুদ্ধদেব! অক্সিজেনের মাত্রা এখন ৯২

কেমন আছেন বুদ্ধবাবু?

করোনা আক্রান্ত বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য (Buddhadeb Bhattacharya)-এর অবস্থা স্থিতিশীল। বর্তমানে শুকনো কাশি হচ্ছে তাঁর।

  • Share this:

    #কলকাতা: আগের থেকে একটু স্থিতিশীল অবস্থায় আছেন করোনা আক্রান্ত বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য (Buddhadeb Bhattacharya)। হাসপাতালে যখন ভর্তি হয়েছিলেন তিনি, প্রবল শ্বাসকষ্ট ও আচ্ছন্ন ভাব ছিল তাঁর। গত মঙ্গলবার বেলার দিকে হাসপাতালে আনা হয়েছিল তাঁকে। তবে, চিকিৎসা শুরুর পর দ্রুত শারীরিক অবস্থার উন্নতি হতে থাকে তাঁর। শুক্রবার হাসপাতালের বুলেটিন অনুযায়ী, বুদ্ধবাবুর রক্তে অক্সিজেনের মাত্রা ৯২ শতাংশ। বাইপ্যাপের মাধ্যমে ৪ লিটার করে অক্সিজেন লাগছে তাঁর।

    এছাড়াও জানা গিয়েছে, শুকনো কাশি রয়েছে তাঁর। তবে রাতে ভালো ঘুমিয়েছেন তিনি। এখন আর রাইলস টিউবের মাধ্যমে খাবার দিতে হচ্ছে না তাঁকে। হৃদস্পন্দনও রয়েছে মিনিটে ৫৫। বুদ্ধ বাবুর রক্তচাপও স্বাভাবিক রয়েছে। সেইসঙ্গে রেমডেসিভির সহ অন্যান্য ইনজেকশনও চলছে।

    হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর বরাবরের মতো এবারও একটু ঠিক হতেই বাড়ি ফেরার জন্য ছটফট করতে থাকেন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। অবশ্য হাসপাতলে ভর্তি হওয়ার ব্যাপারে শুরু থেকেই আপত্তি জানিয়েছিলেন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী।

    করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর থেকে বাড়িতেই আইসোলেশনে ছিলেন বুদ্ধদেব। এমনিতেই বহুদিন ধরেই তাঁর শ্বাসকষ্টের সমস্যায় ভুগছেন তিনি। অক্সিজেন সাপোর্টও দিতে হয় বাড়িতে। এরই মধ্যে তিনি ও তাঁর স্ত্রী মীরা ভট্টাচার্য করোনায় আক্রান্ত হন। মীরা হাসপাতালে থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে ফের ভর্তি হয়েছেন ওই একই হাসপাতালে। অন্যদিকে, মঙ্গলবার শরীরে অক্সিজেন লেভেল ৮০-র নিচে নেমে গেলে উদ্বেগজনক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে ঘিরে। এরপরই পরিবার ও দলের তরফে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় তাঁকে। এর আগেও হাসপাতালে দু'বার ভর্তি হয়েছেন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। দুবারই তিনি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

    অপরদিকে, দ্বিতীয় বার হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছে বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের স্ত্রী মীরাকেও। বুদ্ধ বাবু অসুস্থ হয়ে পড়ার পর থেকেই প্যানিক অ্যাটাকে ভুগছিলেন মীরা। সেই সঙ্গে বমিও হচ্ছিল। ফলে কোনো রকম ঝুঁকি না নিয়ে তাঁকে ফের হাসপাতালে ভর্তির সিদ্ধান্ত নেয় পরিবার। করোনায় আক্রান্ত হয়ে শ্বাসকষ্ট জনিত সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি। সাত দিন পর সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছিলেন। কিন্তু ফের অসুস্থ হয়ে পড়েন।

    Published by:Suman Biswas
    First published: