Buddhadeb Bhattacharjee : বুধবার হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাচ্ছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী

বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য, ফাইল চিত্র

হাসপাতাল সূত্রে জানানো হয়েছে, বুধবার তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হবে ৷ তবে পরবর্তী সাত দিন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে তাঁর বাড়িতে নিভৃতবাসে থাকতে হবে ৷

  • Share this:

    কলকাতা : বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের শারীরিক অবস্থার অনেকটাই উন্নতি হয়েছে ৷ হাসপাতাল সূত্রে জানানো হয়েছে, বুধবার তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হবে ৷ তবে পরবর্তী সাত দিন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে তাঁর বাড়িতে নিভৃতবাসে থাকতে হবে ৷

    বর্তমানে তিনি ইন্টারমিটেন্ট বাইপ্যাপ সাপোর্টে আছেন ৷ রয়েছে শ্বাসকষ্টের সমস্যা ৷ তবে শুকনো কাশির সমস্যা আগের তুলনায় অনেকটাই কমেছে ৷ মঙ্গলবার মেডিক্যাল বুলেটিনে জানানো হয়েছে তাঁর রক্তে অক্সিজেনের পরিমাণ ৯৬ শতাংশ। ফলে কমেছে কৃত্রিম অক্সিজেনের চাহিদা।  নিয়ন্ত্রণে রয়েছে তাঁর রক্তচাপ ৷ হৃদস্পন্দনের গতি প্রতি মিনিটে ৬৪ ৷  তিনি স্বাভাবিকভাবেই খেতে পারছেন ৷ ইতিমধ্যে তাঁর রেমডেসিভিরের কোর্স শেষ হয়েছে। তবে স্টেরয়েড এখনও দেওয়া হচ্ছে ৷

    প্রসঙ্গত গত ১৮ মে করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে সস্ত্রীক বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যর ক্ষেত্রে ৷  প্রথমে বাড়িতে চিকিৎসা চললেও তাঁর অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে ২৫ মে দক্ষিণ কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় ৷ তাঁর চিকিৎসার জন্য তৈরি হয় মেডিক্যাল বোর্ড। বোর্ডে রয়েছেন কনসালট্যান্ট ফিজিশিয়ান কৌশিক চক্রবর্তী, কনসালট্যান্ট ফিজিশিয়ান ধ্রুব ভট্টাচার্য, কনসালট্যান্ট ক্রিটিক্যাল কেয়ার  সৌতিক পান্ডা, চেস্ট স্পেশ্যালিস্ট অঙ্কন বন্দ্যোপাধ্যায়, হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক সরোজ মন্ডল, অ্যানাস্থেসিওলজিস্ট আশিস পাত্র এবং বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের হাউজ ফিজিশিয়ান সোমনাথ মাইতি।

    বর্ষীয়ান এই বামনেতার সিওপিডি-র সমস্যাও আছে ৷ সে কারণে কিছু মাস আগেও তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন ৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published: