উৎসবের সময় রক্তদান শিবিরের আয়োজন অত্যন্ত কম, মজুত করা যায়নি রক্ত

উৎসবের সময় রক্তদান শিবিরের আয়োজন অত্যন্ত কম, মজুত করা যায়নি রক্ত
Photo: News 18 Bangla
  • Share this:

#কলকাতা: রাজ্যের বিভিন্ন ব্লাড ব্যাঙ্কে রক্তের আকাল। এ পজিটিভ বা বি পজিটিভের মত সাধারণ গ্রুপের রক্তও মিলছে না। নেগেটিভ গ্রুেপর রক্তের ভয়াবহ অবস্থা। উৎসবের সময় রক্তদান শিবিরের আয়োজন অত্যন্ত কম হওয়ায় রক্ত মজুত করা যায়নি। সেইকারণে, রক্তের ব্যাঙ্কে রক্ত নেই। বছরের বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ক্লাব ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের করা রক্তদান শিবির থেকে সরকারি, বেসরকারি বা কেন্দ্রীয় ব্লাড ব্যাঙ্কগুলিতে রক্তের জোগান হয়। কিন্তু উ‍ৎসবের মরশুমে ব্লাড ব্যাঙ্কগুলিতে রক্তের হাহাকার। কিন্তু রক্তের ব্যাঙ্কেই কেন রক্ত নেই? পরিসংখ্যান বলছে,

- গত বছর মহালয়া থেকে লক্ষ্মীপুজো পর্যন্ত প্রায় ১ হাজার রক্তদান শিবিরের আয়োজন হয়েছিল

- এবছর মহালয়া থেকে লক্ষ্মীপুজো পর্যন্ত মাত্র ৪০০ রক্তদান শিবিরের আয়োজন হয়েছে

রোগভোগ বা দুর্ঘটনা তো আর উৎসব বোঝে না। তাই সরকারি, বেসরকারি বা কেন্দ্রীয় ব্লাড ব্যাঙ্কে রক্তের আকালে মুখ শুকোচ্ছে মানুষজনের। পজিটিভ বা নেগেটিভ সব গ্রুপের রক্তেরই আকাল।

- রাজ্যে সরকারি ব্লাড ব্যাঙ্ক ৮২টি, বেসরকারি ব্লাড ব্যাঙ্ক ৩৫টি

- রাজ্যে কেন্দ্রীয় ব্লাড ব্যাঙ্ক ১৬টি

- পুজোর সময় ব্লাড ব্যাঙ্কে পরিকাঠামোর সমস্যায় রক্তের বিভাজনেও সমস্যা হয়েছে

- স্বাস্থ্য দফতর জীবনশক্তি অ্যাপ চালু করলেও তা আপডেট হয় না

এই পরিস্থিতিতে রক্তের সমস্যা দুশ্চিন্তার বিষয় সরকারি বা বেসরকারি ব্লাডব্যাঙ্কগুলির কাছে। সামনেই কালীপুজো, ভাইফোঁটা বা জগদ্ধাত্রীপুজো। উৎসবের সময়ে রক্তের ভাঁড়ার শূন্য থাকলে কীভাবে চলবে? পুজো কমিটিগুলিকে সচেতন হওয়ার অনুরোধ স্বেচ্ছাসেবী মেডিক্যাল ব্যাঙ্কগুলির।

First published: October 15, 2019, 3:32 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर