corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনার মধ্যে এবার অমিল পানীয় জল, পুরসভার কল খুললেই কালো জল

করোনার মধ্যে এবার অমিল পানীয় জল, পুরসভার কল খুললেই কালো জল
  • Share this:

BISWAJIT SAHA

#কলকাতা: সকালবেলা রাস্তার জলের ট্যাপ খুললেই বেরচ্ছে কালো জল। পানীয় জল হিসেবে ব্যবহার করার প্রশ্নই ওঠে না! এতটাই নোংরা জল যে ব্যবহার করা যাচ্ছে না বাড়ির অন্য কোনও কাজেও। লকডাউনে গৃহবন্দী পুরবাসীদের কাছে এ যেন গোদের উপর বিষ ফোঁড়া। কলকাতা পুরসভার ১১৪ নম্বর ওয়ার্ডের পূর্ব পুটিয়ারির ঘটনা।

কলকাতা পুরসভার নিকাশির কাজ চলছিল পূর্ব পুটিয়ারিতে। এডেড এরিয়া হওয়ায় দীর্ঘদিনের নিকাশি সমস্যা এই অঞ্চলে। সেই সমস্যা মেটানোর জন্যই গভীর নিকাশি নালা ও ড্রেনেজ পামপিং স্টেশনে বড় প্রজেক্ট রয়েছে এই এলাকায়। সেই কাজ চলতে চলতেই আচমকা লকডাউন। তড়িঘড়ি কাজ বন্ধ করে বাড়ি ফিরে গিয়েছেন শ্রমিকরা কিন্তু আশঙ্কায় ভুগছেন এলাকার বাসিন্দারা।

যেভাবে কল খুললেই কালো জল বেরচ্ছে তাতে বাসিন্দাদের আশঙ্কা নিকাশি নালার সঙ্গে পানীয় জলের মিশ্রণ ঘটে গেছে। এলাকার বাসিন্দা রমেশ যাদব জানান, রাস্তার কলের পানীয় জলে এই সমস্যার কথা কাউন্সিলর থেকে বরো চেয়ারম্যান সকলকেই জানানো হয়েছে। তুলক ডাউনের ১১ দিন পার হয়ে গেলেও এখনো পর্যন্ত সমস্যার সমাধান হয়নি।

কলকাতা পুরসভার ১১৪ নম্বর ওয়ার্ডের লোকনাথ পল্লীর বাসিন্দা পাপন চক্রবর্তী বলেন, পুরসভার পানীয় জল খাওয়া তো ছেড়েই দিয়েছি জল কিনে খেতে হচ্ছে। পুরসভার জল এতটাই নোংরা যে ফুঁটিয়ে খেলেও তাতে সংক্রমণের ভয় পাচ্ছি। স্থানীয় বাসিন্দা রবিন পালের কথায়, খাবার জল তো ছেড়েই দিন বাড়ির অন্য কাজ ধোয়ামোছা বা কাপড় কাচা কোন কাজেই ব্যবহার করা যাচ্ছেনা পুরসভার পানীয় জল।

পূর্ব পুটিয়ারি লোকনাথ পল্লীর বন্দিপুর রোডে এই নিকাশি নালার কাজ করছিল কে ইআইআইপি। কলকাতা পুরসভার এই সংস্থা লকডাউনের জেরে কাজ বন্ধ রাখে। পুরসভার ১১৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর বিশ্বজিৎ মন্ডল বলেন, নিকাশি নালার কাজ আচমকা বন্ধ হওয়ার পরই এই সমস্যার কথা জানিয়েছেন বাসিন্দারা। আমি নিজে গিয়েও দেখেছি সত্যিই সমস্যা রয়েছে বেশ কিছু পরিবারের।ওই এলাকায় সকালে বিকেলে আমরা জলের গাড়ি পাঠানোর ব্যবস্থা করেছি।

কলকাতা পুরসভার ১১ নম্বর বরো চেয়ারম্যান তারকেশ্বর চক্রবর্তী স্বীকার করে নেন ঘটনার সত্যতা। নিকাশি নালার কাজের জন্যই যে এই বিপত্তি তাও জানান তিনি। তারকেশ্বর বাবু বলেন, ঠিক কোথায় জলের পাইপ লিকেজ হয়েছে তা খুঁজে দেখতে বলা হয়েছে। কিন্তু নিকাশের কাজ মাঝপথে বন্ধ হয় সেখানে জল জমে যাচ্ছে। পাম্প করে সেই জল সরিয়ে তবেই কাজে হাত দেওয়া যাবে।

লকডাউন এর জেরে সাধারণ মানুষের বিপত্তিকে আরো বাড়িয়ে দিয়েছে এই পানীয় জলে সংক্রমণের আশঙ্কা।যদিও ওই এলাকায় পুরসভার নজরদারি আছে বলে জানিয়েছেন বরো চেয়ারম্যান। তবুও আশঙ্কা কাটছে না এলাকাবাসীদের। একেতে লকডাউন এর জেরে ঘরবন্দি। তার উপর পুরসভার পানীয় জলে এই সমস্যা দেখা দেওয়ায় চরম দূর্ভোগে পূর্ব পুটিয়ারি লোকনাথ পল্লীর বাসিন্দারা।

Published by: Simli Raha
First published: April 5, 2020, 1:56 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर