Football World Cup 2018

‘২০১৯ সালে বড়দা বিদায়’, শহিদ দিবসে চ্যালেঞ্জ মমতার

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jul 21, 2017 07:01 PM IST
‘২০১৯ সালে বড়দা বিদায়’, শহিদ দিবসে চ্যালেঞ্জ মমতার
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jul 21, 2017 07:01 PM IST

#কলকাতা: একুশে জুলাইয়ের মঞ্চ থেকেই ২০১৯ লক্ষ্য বেঁধে দিলেন তৃণমূল নেত্রী। স্পষ্ট করে দিলেন আগামী লোকসভা নির্বাচনে কেন্দ্র থেকে

নরেন্দ্র মোদি সরকারকে উৎখাত করাই তৃণমূল কংগ্রেসের অগ্নীপরীক্ষা। সেই রাজনৈতিক সংগ্রামে তৃণমূল কংগ্রেস সফল হবে বলে প্রত্যয়ী মমতা

বন্দ্যোপাধ্যায়। ধর্মতলার জনজোয়ার থেকে তৃণমূল নেত্রীর খোলা চ্যালেঞ্জ,  ২০১৯ সালে ৩০ শতাংশ ভোটও পাবে না নরেন্দ্র মোদির শাসকজোট।

বিরোধীদের মহাজোটে ফাটল ধরিয়ে সদ্য রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন এনডিএ-র প্রার্থী রামনাথ কোবিন্দ। সেই সাফল্যের চব্বিশ ঘণ্টার

মধ্যেই নরেন্দ্র মোদি সরকারকে চ্যালেঞ্জ জানালেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তিনি বলেন, ‘১৮টি দল জোট বেঁধেছে ৷ আগামী দিনে আরও বাড়বে ৷ রাষ্ট্রপতি ভোটে মীরা কুমার ৩৫‍% পেয়েছেন ৷ সংখ্যাটা যথেষ্ট ভাল ৷ লোকসভা ভোটে বিভিন্ন দল তাদের মতো করে লড়বে ৷ লোকসভা ভোটে মোদিবাবু ৩০% ভোটও পাবেন না ৷ ভাবছেন ভোট পকেটে পুরে ফেলেছেন ৷ ওই পকেট ফুটো হয়ে গেছে ৷ ৯ অগাস্ট থেেক বিজেপি ভারত ছাড়ো কর্মসূচি ৷ ৩০ অগাস্ট পর্যন্ত এই কর্মসূচি চলবে৷ রাজ্যে সবাই নিরাপদ ৷ দিল্লির রক্তচক্ষুতে অমর্ত্য সেনও নিরাপদ নন ৷ যারা বিজেপি-র বিরুদ্ধে লড়বে ৷ আমরা তাদের পাশে আছি ৷’

 ধর্মতলায় একুশে জুলাইয়ের সমাবেশ মঞ্চ থেকে দুর্নীতি নিয়ে বিজেপিকে বিঁধলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। স্মরণ করিয়ে দিলেন বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলিতে ভূরি ভূরি আর্থিক অনিয়মের অভিযোগ। তৃণমূল নেত্রীর দাবি,

রাজস্থানে হাজার হাজার টাকার দুর্নীতি হয়েছে

কর্ণাটকের খনি দুর্নীতিতে জড়িত বিজেপির রেড্ডি ভাইয়েরা

মধ্যপ্রদেশে ব্যাপম কেলেঙ্কারিতে জড়িয়েছে বিজেপি সরকার

মোদির রাজ্য গুজরাতে ঘটেছে পেট্রোলিয়াম কেলেঙ্কারি

বেনিয়ম হয়েছে নোটবন্দি এবং জিএসটি রুপায়নের ক্ষেত্রেও

 নিকট অতীতে বহুবার মোদি সরকারের বিরুদ্ধে দেশে অঘোষিত জরুরি অবস্থা জারি করার অভিযোগ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন

তিনি উল্লেখ করলেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেনের প্রসঙ্গ। কেন্দ্রবিরোধী কন্ঠস্বরকে শ্বাসরোধ করার প্রবণতা থেকে সংবাদমাধ্যমও নিস্তার পাচ্ছে না বলে মন্তব্য তৃণমূল নেত্রীর। তিনি বলেন, ‘খুব সিবিআই-ইডি দেখাচ্ছে ৷ বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলিতে কত দুর্নীতি ৷ কোথায় সিবিআই-ইডি-আয়কর দফতর? তৃণমূল প্রতিবাদ করছে ৷ তাই তৃণমূলের বিরুদ্ধে এজেন্সি লাগানো হচ্ছে ৷ বলছে বিজেপি-তে চলে এসো ৷ না হলে কেন্দ্রীয় এজেন্সি লাগানো হবে ৷ বিজেপি-র শেষ দেখে ছাড়ব ৷ আমাদের চমকাবেন না ৷ গোরক্ষের নামে গোরাক্ষস তৈরি হয়েছে ৷ কে কী খাবে, পরবে তাও ওরা ঠিক করে দেবে?’

মোদি সরকারের বিদেশনীতিকেও তুলোধোনা করেছেন তৃণমূল নেত্রী।তিনি বলেন, ‘প্রতিবেশী দেশগুলির সঙ্গে সম্পর্ক নষ্ট হচ্ছে কেন? দেশকে ঠিক করতে পারছেন না ৷ বিদেশে গিয়ে দেশকে বিক্রি করে দিচ্ছেন ৷’

 কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বহুবারই সুর চড়িয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু একুশে জুলাইয়ের শহীদমঞ্চে যে আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে তৃণমূল নেত্রীকে দেখা গেল, তা বেনজির।

First published: 07:01:56 PM Jul 21, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर