দলে বড় দায়িত্ব, সঙ্গে বৈশাখীকেও গুরুত্ব! শোভনকে মাঠে নামাতে তৎপর বিজেপি

দলে বড় দায়িত্ব, সঙ্গে বৈশাখীকেও গুরুত্ব! শোভনকে মাঠে নামাতে তৎপর বিজেপি

বিজেপি-তে গুরুত্ব বাড়ল শোভন-বৈশাখীর৷

  • Share this:

    #কলকাতা: শেষ পর্যন্ত কি বিজেপি-র সঙ্গে মান অভিমানের পালা শেষ করে সক্রিয় হতে চলেছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়৷ সেরকমই ইঙ্গিত দিয়ে শোভনকে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দিল রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব৷ কলকাতার সাংগঠনিক জোনের পর্যবেক্ষক হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে শোভনকে৷

    শোভনের দাবি কার্যত মেনে নিয়ে বৈশাখীকেও ওই কমিটির সহ আহ্বায়ক করা হয়েছে৷ ফলে বিজেপি-র অস্বস্তি কাটিয়ে শোভন এবার সক্রিয় হন কি না, সেদিকেই নজর রাজনৈতিক মহলের৷

    মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের একদা সবথেকে বিশ্বস্ত সৈনিকদের ভিড় বাড়ছে বিজেপি-তে৷ প্রায় দেড় বছর আগে শোভনকে দলে টেনে বড় চমক দিয়েছিল বিজেপি৷ কিন্তু তার পর থেকেই শোভনের সঙ্গে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বের নানা ইস্যুতে ঠোকাঠুকি লেগেই ছিল৷ বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের সঙ্গেও শোভন- বৈশাখীর মতবিরোধ শুরু থেকেই অস্বস্তিতে আসে৷ বৈশাখীকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে না, এমনও অভিযোগ ছিল শোভনের তরফে৷ বার বার চেষ্টা করেও শোভনকে সক্রিয় করতে ব্যর্থ হন বিজেপি-র কেন্দ্রীয় নেতারা৷ এমন কি, গত নভেম্বর মাসে কলকাতায় অমিত শাহের সঙ্গে শোভন- বৈশাখীর বৈঠকের পরেও বিজেপি-র কোনও কর্মসূচিতেই দেখা যায়নি দু' জনকে৷ ডিসেম্বর মাসে জে পি নাড্ডা এবং অমিত শাহ পর পর রাজ্যে এলেও তাঁদের কোনও কর্মসূচিতে হাজির হননি শোভন৷ ছিলেন না মেদিনীপুরে শুভেন্দু অধিকারীর মেগা যোগদান অনুষ্ঠানেও৷

    এর পরেও শোভনকে গুরুত্বপূর্ণ পদে আনা ইতিবাচক ইঙ্গিতই মনে করছেন রাজ্য বিজেপি-র নেতারা৷ তাঁদের ধারণা বৈশাখীকে গুরুত্ব দেওয়ায় এবার মাঠে নামবেন শোভনও৷ মুকুল, শুভেন্দুর মতো প্রাক্তন তৃণমূল নেতারা এখন নিয়মিত তৃণমূলকে আক্রমণ করে শাসক দলের অস্বস্তি বাড়াচ্ছেন৷ সেখানে শোভন নীরব থাকাটা বিজেপি-র কাছে অস্বস্তির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছিল৷ শুভেন্দু, মুকুলদের সঙ্গে শোভনকেও মাঠে নামানো গেলে তৃণমূল কংগ্রেস এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কোণঠাসা করা আরও সহজ হবে বলেই মনে করছেন বিজেপি নেতারা৷

    কলকাতার ১১টি, দমদমের ৭টি এবং দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার ৩১টি বিধানসভা নিয়ে বিজেপি-র কলকাতা সাংগঠনিক জোন৷ প্রায় ৯ বছর কলকাতার মেয়র ছিলেন শোভন, তৃণমূলে থাকাকালীন দীর্ঘসময় দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার জেলা সভাপতি ছিলেন তিনি৷ ফলে কলকাতা জোনের দায়িত্ব দিলে শোভন দলেরই কাজে আসবেন বলে মনে করছেন রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: