'নতুন' মমতাকে বিঁধতে নয়া পন্থা বিজেপির, কলকাতার পথে হুইল চেয়ার মিছিল!

'নতুন' মমতাকে বিঁধতে নয়া পন্থা বিজেপির, কলকাতার পথে হুইল চেয়ার মিছিল!

রাজপথে হুইল চেয়ার মিছিল

হুইল চেয়ারে বসা মমতাকে কটাক্ষে বিদ্ধ করতে এবার কলকাতার বুকে হুইল চেয়ারে বসে মিছিল করল বিজেপি নেতা-কর্মীরা।

  • Share this:

    #কলকাতা: নন্দীগ্রামে পায়ে চোট পাওয়ার পর দুদিন হাসপাতালে কাটিয়েই হুইল চেয়ারে বসেই রাজ্য ঘুরে বেড়াচ্ছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার গোপীবল্লভপুরের সভা থেকে সেই মমতা আরও সুর চড়িয়ে বলেন, 'আগে আমাকে সিপিএম মারত, এখন বিজেপি মারছে। আমার পা'কে টার্গেট করা হচ্ছে। কিন্তু আমার লাখ লাখ মা-বোনেদের পায়ে ভর করেই আমি পথ হাঁটব।' যদিও শুরু থেকেই মমতার এই ঘটনাকে 'নাটক' বলে আক্রমণ শানাচ্ছে বিজেপি। আর হুইল চেয়ারে বসা মমতাকে কটাক্ষে বিদ্ধ করতে এবার কলকাতার বুকে হুইল চেয়ারে বসে মিছিল করল বিজেপি নেতা-কর্মীরা।

    বুধবার এক্সাইড থেকে হাজরা পর্যন্ত মিছিল করে বিজেপি। তাঁদের অভিযোগ, রাজ্যে একের পর এক বিজেপি কর্মীদের খুনের সময় যন্ত্রণা অনুভব করেন না মুখ্যমন্ত্রী, কিন্তু নিজের জন্য কত ভাবছেন তিনি! বিজেপি নেতাদের দাবি, 'আমাদের ১৩০ জন কর্মীকে খুন করা হয়েছে। কিন্তু তৃণমূল নেত্রীর তাতে এতটুকুও মন কাঁদে না। অথচ হারবেন জেনে ভোটের বাজারে মানুষের সমবেদনা পেতেই এখন নিজে হুইল চেয়ারে ঘুরছেন।'

    যদিও মমতার চোটকে আগেই 'নাটকের' পর্যায়ে ফেলে দিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সোমবারই বাংলার ভোট প্রচারে এসে অমিত শাহ মমতাকে কটাক্ষ করে বলেছিলেন, ‘মমতা দিদি পায়ে আঘাত পেয়েছেন। কিন্তু সেই আঘাত তিনি কীভাবে পেলেন, তা বোঝাই যাচ্ছে না। তৃণমূল অবশ্য ষড়যন্ত্র বলছে। কিন্তু নির্বাচন কমিশন বলছে, হামলা নয়, এটা দুর্ঘটনা। ভগবান জানেন আসল সত্যিটা কী।' এরপরই অমিত নিজের দলের কর্মীদের মৃত্যুর প্রসঙ্গ তুলে তিনি বলেন, 'মমতা দিদি খুব দুঃখ পেয়েছেন, ভোটের সময় তাঁকে হুইলচেয়ারে ঘুরতে হচ্ছে। কিন্তু দিদি, আমি আপনার কাছে জানতে চাইছি, আমাদের ১৩০ জন কার্যকর্তার প্রাণ যে আপনারা নিয়েছেন, তাঁদের মায়েদের দুঃখ আপনি জানেন? চিন্তা করবেন না, আপনাকে বাংলার মানুষ এর জবাব দেবে।'

    শুধু অবশ্য বিজেপি নয়, বিরোধীরা তাঁর সুস্থতা কামনা করছেন বটে, কিন্তু সহানুভূতি আদায় করতেই তিনি হুইলচেয়ারে ঘুরছেন বলেও কটাক্ষ করছেন বাকি বিরোধীরা৷ এ দিন দলের ইস্তেহার প্রকাশ অনুষ্ঠানে বিরোধীদের এই কটাক্ষেরও সরাসরি জবাব দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ বলেন, 'পিজি-র এতজন ডাক্তার, এমআরআই রিপোর্ট, মেডিক্যাল রিপোর্ট, সবই ভুল? দু-একজন কী বলল, তাতে কিছু আসে যায় না। কাউকে জিজ্ঞেস করুন না, নিজের দুটো পায়ে চলা, আর না চলতে পারা কত বড় ব্যথা৷ আমার তো মাথায় আঘাত করেছে, দুটো হাত ভেঙে দিয়েছে, আমার চোখেও অপারেশন হয়েছে, গুলিও চালিয়েছে, পেটেও মেরেছে, কতবার অপারেশন হয়েছে৷ সবই ভাঁওতা, সবই ভুল! ওনাদের কী আছে? আমি হুইলচেয়ারে ঘুরছি আমার কোনও উপায় নেই বলে৷ আমার খুবই কষ্ট হচ্ছে৷ কিন্তু আমি মানুষের কষ্টটা বুঝি৷' কিন্তু মমতার সেই যন্ত্রণা নয়, বরং তাঁর হুইল চেয়ার-যাত্রা নিয়ে কটাক্ষ করতেই হুইল চেয়ার নিয়েই পথে নামল বিজেপি।

    Published by:Suman Biswas
    First published:

    লেটেস্ট খবর