• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • BJP OPTS FOR TWENTY TWENTY FORMULA IN WEST BENGAL CIVIC POLLS TO ACCOMODATE OUTSIDERS DMG

বহিরাগত প্রার্থীদের জায়গা দিতে পুরভোটে বিজেপির 'টোয়েন্টি টোয়েন্টি' ফর্মুলা 

পুরভোটে প্রার্থী তালিকা ঠিক করতে নয়া ফর্মুলা বিজেপি-র।

'দিদিকে বলো' কর্মসূচি র পর 'বাংলার গর্ব মমতা স্লোগান' নিয়ে তৃণমূল স্তরে নিবিড় জনসংযোগের কর্মসূচি নিয়েছে রাজ্যের শাসক দল। রাজনৈতিক ভাবে তার মোকাবিলা করতে অমিত শাহের দেওয়া 'আর নয় অন্যায়' স্লোগানকে হাতিয়ার করে এগোতে চাইছে বিজেপি।

  • Share this:

#কলকাতা: পুরভোটে বিজেপি-র প্রার্থী জট কাটাতে  'টোয়েন্টি টোয়েন্টি' ফর্মুলা প্রয়োগ করতে চলেছে দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। দলের বাইরে থেকে আসা নব্য বিজেপি নেতা- কর্মীদের প্রার্থী করা নিয়ে টানাপোড়েন দীর্ঘদিনের। শেষ পর্যন্ত  পুরভোটকে সামনে রেখে রফা সূত্র স্থির করে দিলেন সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক বি এল সন্তোষ। রবিবার কলকাতায় দলের সাংগঠনিক বৈঠকে সন্তোষ বলেন, 'আমাদের দলের বাইরে থেকে যাঁরা এসেছেন, তাঁদের মধ্যে যোগ্য লোক থাকলে তাঁকেও প্রার্থী করতে হবে।'

সন্তোষের এই ঘোষণাতেই ফের চাঙ্গা মুকুল শিবির। প্রার্থী নির্বাচনে সন্তোষের দেওয়া ফর্মুলা হলো,   সামাজিক ক্ষেত্র থেকে ২০ শতাংশ ও অন্য রাজনৈতিক দল থেকে আসা যোগ্য নেতার জন্য ২০ শতাংশ পদ ছেড়ে বাকি ৬০ শতাংশে দলের পুরনো নেতাতের বরাদ্দ করতে হবে। রাজনৈতিক মহলের মতে, পুরভোটে শাসক দলে অনিশ্চিত, এমন যোগ্য প্রার্থীকে বিজেপি- তে এনে প্রার্থী করতে দল ও দলের বাইরে বার্তা দিলেন সন্তোষ।

'দিদিকে বলো' কর্মসূচি র পর 'বাংলার গর্ব মমতা স্লোগান' নিয়ে তৃণমূল স্তরে নিবিড় জনসংযোগের কর্মসূচি নিয়েছে রাজ্যের শাসক দল। রাজনৈতিক ভাবে তার মোকাবিলা করতে অমিত শাহের দেওয়া 'আর নয় অন্যায়' স্লোগানকে হাতিয়ার করে এগোতে চাইছে বিজেপি। পুরভোটের মুখে এই কর্মসূচিতে ৫ কোটি মানুষের কাছে সরসরি পৌঁছনোর লক্ষ্যমাত্রা বেঁধে দিয়েছেন সন্তোষ। কলকাতায় ১৩ মার্চ থেকে ওয়ার্ড ভিত্তিক প্রচার শুরু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য নেতৃত্ব। দলীয় নেতৃত্বের একাংশের মতে, সাংগঠনিক শক্তি না থাকলে এই কর্মসূচিতে সাড়া ফেলা কঠিন।

নেতা, কর্মীদের কাছে পুরভোটে দলের টিকিট পাওয়াই এখন লক্ষ্য। শেষ পর্যন্ত কার ভাগ্যে শিকে ছিঁড়বে, তা নিয়েই দড়ি টানাটানি অব্যাহত। ফলে, এলাকায় প্রভাবশালী ও শাসক দলের সঙ্গে টক্কর দেওয়ার মতো প্রার্থী দাঁড করানো না গেলে কর্মসূচি সফল হওয়ার সম্ভবনা কম৷ এই সমস্যার কথা মাথায় রেখেই এই নির্দেশ দিয়েছে দল।  প্রার্থী তালিকা তৈরির নির্দেশে জেলাকে দেওয়া হলেও, বাছাই করে চূড়ান্ত নির্বাচন করবে রাজ্য নেতৃত্বই। সেক্ষেত্রে, রাজ্য নেতৃত্বের কোপে 'বহিরাগত'তকমায় যোগ্য প্রার্থী যাতে বাদ না যান, রাজ্য নেতৃত্বকে পাশে বসিয়ে অমিত শাহের সেই বার্তাই শুনিয়ে গেলেন সন্তোষ।

অরূপ দত্ত

Published by:Debamoy Ghosh
First published: