পরনে স্নিকার্স-হাফপ্যান্ট, হাতে কুড়ুল, দিলীপ ঘোষ বলছেন 'আমরা পথে রয়েছি'

রাজনীতি নয়, মানুষের দুর্দশা দূর করতেই তার এই গাছ অভিযান  বলে এদিন মন্তব্য করেন দিলীপবাবু। সল্টলেকের অনেক জায়গাতেই রাস্তায় গাছ পড়ে যান চলাচল সম্পূর্ণ স্তব্ধ হয়ে রয়েছে ।

রাজনীতি নয়, মানুষের দুর্দশা দূর করতেই তার এই গাছ অভিযান  বলে এদিন মন্তব্য করেন দিলীপবাবু। সল্টলেকের অনেক জায়গাতেই রাস্তায় গাছ পড়ে যান চলাচল সম্পূর্ণ স্তব্ধ হয়ে রয়েছে ।

  • Share this:

#কলকাতা:   কুড়ুল দিয়ে নিজের হাতে গাছ কাটলেন। রাস্তায় পড়ে থাকা গাছের ডালপালা কাঁধে করে টেনে নিয়ে গিয়ে অন্যত্র ফেলে অবরুদ্ধ রাস্তা অবরোধ মুক্ত করলেন দিলীপ ঘোষ। অবাক হচ্ছেন? না, একদম বাস্তব ঘটনা।  আমফান  পরবর্তী পরিস্থিতিতে সল্টলেকের বিস্তীর্ণ এলাকাতেও  গাছ পড়ে রাস্তা অবরুদ্ধ। যার জেরে রাস্তায় যান চলাচলে ব্যাপক প্রভাব পড়ছে। জনজীবন বিপর্যস্ত । ইতিমধ্যেই পুরসভা এবং সেনা জওয়ানদের তরফ থেকে রাস্তায় পড়ে থাকা গাছ পরিষ্কার করার কাজ শুরু হয়েছে। তবে সল্টলেকে  এখনও অনেক জায়গাতেই পড়ে রয়েছে গাছ। এখনও কলকাতা শহরের উত্তর থেকে দক্ষিণের অনেক রাস্তায় গাছেদের লাশ পড়ে রয়েছে । ব্যতিক্রম নয় সল্টলেকও।

সল্টলেক বিধাননগর এলাকায় যত্রতত্র পড়ে রয়েছে গাছ এবং অনেক জায়গাতেই গাছের ডাল অবরুদ্ধ করে রেখেছে রাস্তাকে। প্রাতঃভ্রমণে বেড়িয়ে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ প্রত্যক্ষ করেন গাছ পড়ে অবরুদ্ধ থাকার ছবি। আজ,  সোমবার প্রতিদিনকার মতো এদিনও মর্নিং ওয়াক সেরে সল্টলেকে নিজের বাড়ি ফিরে কিছুক্ষণের মধ্যেই ফের দলীয় কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে হাতে রীতিমতো কুড়ুল সহ গাছ কাটার অন্যান্য সামগ্রী নিয়ে গাছ কাটার এবং রাস্তা অবরোধ মুক্ত করার কাজে নেমে পড়েন দিলীপ ঘোষ। রাজ্য সরকার তথা পুরসভার বিরুদ্ধে উদাসীনতার অভিযোগ তুলে দিলীপ ঘোষ বলেন, ওরা কেবল ভাষণ দিচ্ছে। 'আমরা রয়েছি পথে। মানুষের পাশে'।

এদিন দিলীপ ঘোষকে দেখা গেল পায়ে স্নিকার্স এবং হাফপ্যান্ট পড়ে খোশমেজাজেই সল্টলেকের বিভিন্ন প্রান্ত ঘুরে ঘুরে  রাস্তায় পড়ে থাকা গাছ এবং ডালপালা নিজের হাতে করে সাফ করতে। ঝড়ের পূর্বাভাস থাকা সত্ত্বেও সরকারের  কোনও রকম প্রস্তুতি না নেওয়া প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি। বলেন , 'মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শুধু সুদখোরদের মত কেন্দ্রের কাছে টাকাই চেয়ে যান। মানুষের সমস্যা সমাধান করার  সামান্য সদিচ্ছা নেই ওঁর'।

রাজনীতি নয়, মানুষের দুর্দশা দূর করতেই তার এই গাছ অভিযান  বলে এদিন মন্তব্য করেন দিলীপবাবু। সল্টলেকের অনেক জায়গাতেই রাস্তায় গাছ পড়ে যান চলাচল সম্পূর্ণ স্তব্ধ হয়ে রয়েছে । সল্টলেকের এজে ব্লক, একে ব্লক সহ বিভিন্ন এলাকায় এদিন দেখা গেল বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু ও দলীয় কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে পায়ে হেঁটে ঘুরে যেখানে যেখানে দেখেন রাস্তায় গাছ পড়ে রয়েছে  সেখানেই অবরুদ্ধ রাস্তা অবরোধ মুক্ত করেন। এই 'রেসকিউ  টিম' প্রয়োজনে আগামিদিনেও পথে নেমে কাজ করবে বলেও জানান দিলীপ ঘোষ।

Published by:Pooja Basu
First published: