• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • BJP MLAS RESIGN FROM EIGHT COMMITTEES IN WEST BENGAL ASSEMBLY DMG

BJP: আট কমিটির চেয়ারম্যান পদে ইস্তফা বিজেপি বিধায়কদের, রাজ ভবনে গিয়ে অভিযোগ

Photo- File

বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী আগেই জানিয়েছিলেন, মুকুল রায়কে পিএসি চেয়ারম্যান পদ থেকে না সরালে বিজেপি কোনও কমিটির চেয়ারম্যান পদ নেবে না৷

  • Share this:

#কলকাতা: মুকুল রায়কে পিএসি চেয়ারম্যান করার প্রতিবাদে বিধানসভার বিভিন্ন কমিটির চেয়ারম্যান পদ থেকে ইস্তফা দিলেন আটজন বিজেপি বিধায়ক৷ অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় ইস্তফার সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার আর্জি জানালেও তা শোনেননি বিজেপি বিধায়করা৷ ইস্তফাপত্র গৃহীত হবে কি না, তা পরীক্ষা করে দেখবেন অধ্যক্ষ৷ ইস্তফা দেওয়ার পরই শুভেন্দু অধিকারীর নেতৃত্বে রাজ ভবনে গিয়ে রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করেন পদত্যাগী বিজেপি বিধায়করা৷

যে আট বিধায়ক এ দিন ইস্তফা দিয়েছেন, তাঁরা হলেন মনোজ টিগ্গা, মিহির গোস্বামী, নিখিলরঞ্জন দে, বিষ্ণুপদ শর্মা, শ্রীকৃষ্ণ কল্যাণী, দীপক বর্মন, আনন্দময় বর্মন এবং অশোক কীর্তনীয়া৷ বিধানসভার হাউস কমিটি এবং স্ট্যান্ডিং কমিটি মিলিয়ে মোট ৪১টি কমিটি রয়েছে৷ তার মধ্যে আটটি কমিটির চেয়ারম্যান পদে বিজেপি বিধায়কদের বাছা হয়েছিল৷ বিজেপি শিবিরের অবশ্য দাবি, অন্তত ১৫টি কমিটির চেয়ারম্যান পদ চেয়েছিল তাঁরা৷

বিজেপি-র আপত্তি অগ্রাহ্য করেই মুকুল রায়কে পিএসি চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত করা হয়েছে৷ শাসক শিবিরের যুক্তি, মুকুল রায় এখনও বিজেপি বিধায়ক৷ যদিও মুকুল রায় ইতিমধ্যেই তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন৷ বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী আগেই জানিয়েছিলেন, মুকুল রায়কে পিএসি চেয়ারম্যান পদ থেকে না সরালে বিজেপি কোনও কমিটির চেয়ারম্যান পদ নেবে না৷ বিজেপি-র দাবি, পিএসি চেয়ারম্যানের পদটি বিরোধী দলকে দেওয়াই বিধানসভার দীর্ঘদিনের রীতি৷

মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই দলত্যাগ বিরোধী আইনে প্রয়োগ করে তাঁর বিধায়কপদ বাতিলের জন্য অধ্যক্ষের কাছে আবেদন করেছেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী৷ আগামী ১৬ জুলাই সেই আবেদনের শুনানিও রয়েছে৷ তার আগে মুকুল রায়কে নিয়ে শাসক শিবিরের উপরে আরও চাপ বাড়িয়ে বিষয়টি রাজ ভবন পর্যন্ত নিয়ে গেল বিজেপি৷

সূত্রের খবর, যেভাবে রীতি ভেঙে শাসক দলের তরফে মুকুল রায়কে পিএসি চেয়ারম্যান পদে বসানো হয়েছে, সে বিষয়ে হস্তক্ষেপ করারর জন্যই রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে অনুরোধ করবেন বিজেপি বিধায়করা৷ যদিও বিজেপি-র রাজ ভবনে গিয়ে দরবার করাকে খুব একটা গুরুত্ব দিচ্ছে না শাসক দল৷ তৃণমূল বিধায়ক তাপস রায়ে বলেন, 'যা হয়েছে তা সংবিধান মেনেই করা হয়েছে৷ রাজ্যপাল তো অধ্যক্ষের সিদ্ধান্তকে বদলে দিতে পারবেন না৷ রাজ্যপালের যেমন নিজের পরিধি আছে, সেরকম অধক্ষ্যেরও কিছু ক্ষমতা আছে৷'

Published by:Debamoy Ghosh
First published: