বিজেপি ইশতেহারে আয়ুষ্মান ভারত প্রতিশ্রুতি, স্বাস্থ্যসাথীর পালের হাওয়া কাড়তে পারবে?

বিজেপি ইশতেহারে আয়ুষ্মান ভারত প্রতিশ্রুতি, স্বাস্থ্যসাথীর পালের হাওয়া কাড়তে পারবে?

এ দিন বিজেপির ভোট ম্যানিফেস্টো প্রকাশ অনুষ্ঠান।

এ দিন অমিত শাহ স্পষ্টই বলেন, ক্ষমতায় এলে চালু হবে আয়ুষ্মান ভারত। প্রথম মন্ত্রিসভাতেই এই আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প চালু করা হবে।

  • Share this:

    #কলকাতা: ভোটযুদ্ধে জিততে মরিয়া তৃণমূলের মূল তাস স্বাস্থ্যসাথী। পদ্মের কল্পতরু ইশতেহার বলছে, ক্ষমতায় এসে মুছে যাবে এই প্রকল্পটি। বদলে আনা হবে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পটি, যার গুণগান তাঁরা গেয়ে আসছেন অনেক আগে থেকেই।

    এ দিন অমিত শাহ স্পষ্টই বলেন, ক্ষমতায় এলে চালু হবে আয়ুষ্মান ভারত। প্রথম  মন্ত্রিসভাতেই এই আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প চালু করা হবে। এই বিষয়ে বিস্তারিত লেখা হয়েছে বিজেপির ইশতেহারে। বলা হয়েছে, এই বিমায় প্রতিটি পরিবার ৫ লক্ষ টাকা করে পাবে। এছাড়াও  ম্যানিফেস্টোতে রয়েছে আশাকর্মীদের বেতনবৃদ্ধির আশ্বাস। রয়েছে তিনটি এইমস তৈরির পরিকল্পনাও।

    প্রসঙ্গত বিজেপি নেতারা  বহুদিন ধরেই স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের বদলে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পটিকে এগিয়ে রাখতে চাইছেন। হরেক সভায় মোদি শাহ এই প্রসঙ্গ টেনে আনেন। এমনকি প্রকল্প চুরির অভিযোগও করতে শোনা যায় বিজেপি নেতাদের। কিন্তু ভোটের আগে থেকেই স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পটির ব্যাপক প্রচার তৃণমূলকে অনেকটাই ডিভিডেন্ট দিয়েছে বলে মনে করা হয়।

    উল্লেখ্য স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে পরিবারপিছু ৫ লক্ষ টাকার ক্যাশলেশ চিকিৎসার সুবিধে পাওয়া যায়। সরকারি বেসরকারি সব ধরনের হাসপাতালে চিকিৎসার সুযোগ মেলে। শুধু রাজ্যেই নয়, রাজ্যের বাইরে দিল্লি এইমস, ভেলোরেও এই কার্ডে চিকিৎসার সুবিধে মেলে। শুধুমাত্র সরকারি সংস্থা থেকে চিকিৎসা ভাতা পান এমন ব্যক্তিই এই প্রকল্পের আওতায় থাকেন না। কিন্তু আয়ুষ্মান ভারত স্কিমটিতে মাসিক আয় ১০ হাজারের বেশি হলে সুবিধে পাওয়া যায় না। দুই বা চার চাকার গাড়ি থাকলে, কৃষিক্ষেত্রে উন্নত প্রযুক্তি মেশিন থাকলে, সরকারি কর্মী হলে এই সুবিধে পাওয়া যায় না।  কাজেই ভোট বাজারে শেষ বেলায় আয়ুষ্মান ভারতের প্রচার শেষবেলায় স্বাস্থ্যসাথীর হাওয়া কাড়তে পারবে কিনা তা লাখ টাকার প্রশ্ন।

    Published by:Arka Deb
    First published: