Baishali Dalmiya: মুকুলের মতো 'আবর্জনা' দূর করতে দিলীপ নয়, শুভেন্দুর কাছে আর্জি বৈশালীর!

শিবিরে ভাগ বিজেপি?

Baishali Dalmiya: দলের 'আবর্জনা' দূর করতে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ নয়, বরং 'এমএলএ' শুভেন্দু অধিকারীর কাছে আর্জি জানালেন বৈশালী ডালমিয়া।

  • Share this:

    কলকাতা: সাড়ে তিন বছর পর নিজের 'ঘরে' ফিরেছেন মুকুল রায়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতেই তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি মুকুল। আর তারপরই মুকুলকে নিয়ে কী প্রতিক্রিয়া দেওয়া হবে, তা নিয়ে দ্বিধায় বিজেপি। এরই মধ্যে অবশ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় 'নানা মুনির নানা মত' আসতে থাকে। একদিকে যেমন মুকুল রায়ের দলত্যাগকে 'লবিবাজির শিকার' বলছেন অনুপম হাজরার মতো নেতা, অপরদিকে এবার মুকুলকেই সরাসরি 'মীরজাফর' বলে আক্রমণ শানাচ্ছেন তাঁরই ঘনিষ্ঠ বলে এতদিন পরিচিত সাংসদ তথা বিজেপি যুব মোর্চার সভাপতি সৌমিত্র খাঁ। এরই মধ্যে দলের 'আবর্জনা' দূর করতে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ নয়, বরং 'এমএলএ' শুভেন্দু অধিকারীর কাছে আর্জি জানালেন বৈশালী ডালমিয়া।

    ভোটের ঠিক আগেই রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, প্রবীর ঘোষালদের সঙ্গে চাটার্ড ফ্লাইটে দিল্লি উড়ে গিয়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন বৈশালী। এরপর তাঁকে বালি থেকেই প্রার্থী করে বিজেপি। যদিও তৃণমূলের হয়ে বালি কেন্দ্র থেকে ২০১৬ সালে জিতলেও এবার বিজেপির হয়ে হেরে যান বৈশালী। তবে, ভোটের পর যেভাবে রাজীব, প্রবীরদের তৃণমূলে ফেরা নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে, বৈশালীকে নিয়ে তেমন হয়নি।

    এবার তারই মধ্যে বৈশালীর পোস্টে দিলীপের পরিবর্তে শুভেন্দুর নাম আসায় বিজেপির অন্দরে 'শিবির' নিয়ে ফের জল্পনা উস্কে উঠেছে। ফেসবুকে বৈশালী লিখেছেন, 'আমি বিজেপি নেতা, বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারীর কাছে অনুরোধ করছি, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব দলের আবর্জনাদের দূর করুন।' এরপর নিউজ 18 বাংলা-কেও বৈশালী বলেন, 'যারা কিছুদিন থেকে দলবদল করতে চান, আমি তাঁদের উদ্দেশে এ কথা বলেছি।' কিন্তু দিলীপ ঘোষের বদলে শুভেন্দু অধিকারীর কাছে আর্জি কেন? বৈশালীর জবাব, 'দিলীপ ঘোষের কাছেও আমার এই আর্জি থাকবে।'

    যদিও রাজনৈতিক মহলের একাংশ বলছেন, বিজেপিতে একসময় মুকুল রায়-দিলীপ ঘোষ সংঘাতের মতো বাতাবরণ তৈরি হচ্ছে দিলীপ-শুভেন্দু দ্বৈরথকে ঘিরেও। ইতিমধ্যেই দিল্লি গিয়ে নরেন্দ্র মোদি সহ কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করে আলাদা 'ক্যারিশমা' দেখাতে শুরু করেছেন শুভেন্দুও। এই পরিস্থিতিতে শুভেন্দুর কাছে বৈশালীর আর্জি বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ। অনেকেই বলছেন, মুকুল বিদায়ের দিনই বিজেপির অন্দরের 'লবি' আরও একবার প্রকাশ্যে এসে গেল।

    Published by:Suman Biswas
    First published: